উজিরপুরে ছাত্রীর মুখমণ্ডল ঝলসে দিয়েছে বখাটেরা
jugantor
উজিরপুরে ছাত্রীর মুখমণ্ডল ঝলসে দিয়েছে বখাটেরা

  উজিরপুর (বরিশাল) প্রতিনিধি  

২২ জানুয়ারি ২০১৮, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উজিরপুরে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ইতি আক্তার নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মুখমণ্ডল অ্যাসিড ছুড়ে ঝলসে দিয়েছে বখাটেরা। রোববার উজিরপুর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর মূলহোতা মনির খানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উপজেলার শোলক ইউনিয়নের ধামুরা গ্রামের প্রবাসী মন্টু হাওলাদারের মেয়ে ধামুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ইতি আক্তার। তাকে কিছুদিন ধরে একই এলাকার হাশেম খানের ছেলে মনির খান কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি না হওয়ায় শনিবার সন্ধ্যায় ইতির বাড়ির মধ্যে ঢোকে মনির খান, শফিকুল হাওলাদার ও রিপন। তারা ইতির মুখমণ্ডলে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে দ্রুত পালিয়ে যায়। বাড়ির লোকজন ঝলসে যাওয়া ইতিকে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ছাত্রীর পরিবার বখাটেদের ভয়ে আতঙ্কে রয়েছে। উজিরপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) জানান, মূলহোতা মনির খানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

উজিরপুরে ছাত্রীর মুখমণ্ডল ঝলসে দিয়েছে বখাটেরা

 উজিরপুর (বরিশাল) প্রতিনিধি 
২২ জানুয়ারি ২০১৮, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উজিরপুরে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ইতি আক্তার নামে এক এসএসসি পরীক্ষার্থীর মুখমণ্ডল অ্যাসিড ছুড়ে ঝলসে দিয়েছে বখাটেরা। রোববার উজিরপুর মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়েরের পর মূলহোতা মনির খানকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

উপজেলার শোলক ইউনিয়নের ধামুরা গ্রামের প্রবাসী মন্টু হাওলাদারের মেয়ে ধামুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী ইতি আক্তার। তাকে কিছুদিন ধরে একই এলাকার হাশেম খানের ছেলে মনির খান কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এতে রাজি না হওয়ায় শনিবার সন্ধ্যায় ইতির বাড়ির মধ্যে ঢোকে মনির খান, শফিকুল হাওলাদার ও রিপন। তারা ইতির মুখমণ্ডলে অ্যাসিড নিক্ষেপ করে দ্রুত পালিয়ে যায়। বাড়ির লোকজন ঝলসে যাওয়া ইতিকে উজিরপুর হাসপাতালে ভর্তি করেন। পরে তাকে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে বার্ন ইউনিটে স্থানান্তর করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকে ছাত্রীর পরিবার বখাটেদের ভয়ে আতঙ্কে রয়েছে। উজিরপুর মডেল থানার ওসি (তদন্ত) জানান, মূলহোতা মনির খানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকি আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।