হেড টু হেড পর্তুগাল-ঘানা
jugantor
হেড টু হেড পর্তুগাল-ঘানা
রোনাল্ডো এখন পর্তুগালের

  ক্রীড়া ডেস্ক  

২৪ নভেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ম্যানইউর সঙ্গে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বিচ্ছেদের খবরে যেন হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো সান্তোস। বিশ্বকাপে খেলতে কাতারে এসে নিজেদের আসল কাজেই মনোযোগ দিতে পারছিল না পর্তুগাল দল। তাদের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনার চেয়ে অধিনায়ক রোনাল্ডোর সঙ্গে তার ক্লাবের টানাপোড়েন নিয়ে চর্চা হচ্ছিল বেশি।

কাতারে আসার আগে এক সাক্ষাৎকারে ক্লাবের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে রোনাল্ডো নিজেই ঝামেলাটা বাধিয়েছিলেন। মঙ্গলবার রাতে সমঝোতার ভিত্তিতে ম্যানইউর সঙ্গে তার চুক্তি বাতিলের মধ্য দিয়ে সেই ঝড় আপাতত থেমেছে। মুক্ত রোনাল্ডো এখন শুধুই পর্তুগালের। এবার আসল কাজে নামার পালা। দোহার ৯৭৪ স্টেডিয়ামে আজ ঘানার মুখোমুখি হয়ে বিশ্বকাপে অভিযান শুরু করতে যাচ্ছে রোনাল্ডোর পর্তুগাল।

‘এইচ’ গ্রুপে তাদের বাকি দুই প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়া। ২০০৬ সালে নিজের প্রথম বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে খেলার সৌভাগ্য হয়েছিল রোনাল্ডোর। পরের তিন আসরে শেষ ষোলোর বেশি এগোতে পারেনি পর্তুগাল। এবার নিজের পঞ্চম ও সম্ভাব্য শেষ বিশ্বকাপে শিরোপায় চোখ ৩৭ বছর বয়সি রোনাল্ডোর। নিজে ফর্মে না থাকলেও আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ গোলদাতার স্বপ্ন ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয়।

নিন্দুকদের ভাষায় যা দিবা স্বপ্ন! দলে রোনাল্ডো, ব্রুনো ফার্নান্দেস, পেপে, ফেলিক্স, বের্নার্দো সিলভা, আন্দ্রে সিলভা, রুবেন দিয়াসের মতো অনেক তারকা থাকলেও পর্তুগালকে কেউ শিরোপার দাবিদার ভাবছে না। তাদের প্রথম ম্যাচের প্রতিপক্ষ ঘানা (৬১) বিশ্বকাপের ৩২ দলের মধ্যে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে সবচেয়ে পিছিয়ে। ২০১৪ বিশ্বকাপে আফ্রিকার দলটিকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল পর্তুগাল। তবে ঘানা যে ২০১০ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিল তা ভুলে যাননি পর্তুগিজ ডিফেন্ডার রুবেন দিয়াস, ‘ক্রিশ্চিয়ানোর বিষয়টি নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। এবার সব ভুলে শুধু মাঠের খেলায় মনোযোগ দিতে হবে। ঘানার বিপক্ষে জিততে সেরাটাই দিতে হবে আপনাকে। তারা খুবই বিপজ্জনক দল। শারীরিকভাবে শক্তিশালী। তাদের খেলোয়াড়রা ইউরোপের শীর্ষ পর্যায়ে খেলে। ভুল করলেই বিপদে পড়ব আমরা।’

দেশ : পর্তুগাল

বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ : এ নিয়ে আটবার

সেরা ফল : ১৯৬৬ আসরে তৃতীয়

কোচ : ফার্নান্দো সান্তোস

মূল খেলোয়াড় : ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

শক্তি : ক্ষুরধার আক্রমণভাগ

দুর্বলতা : মাঝমাঠে ভারসাম্য কম

ফিফা র‌্যাংকিং : ৯

ডাক নাম : দ্য নেভিগেটরস

দেশ : ঘানা

বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ : এ নিয়ে

চতুর্থবার

সেরা ফল : ২০১০ আসরে

কোয়ার্টার ফাইনাল

কোচ : ওটো অ্যাডো

মূল খেলোয়াড়

আন্দ্রে আইয়ু

শক্তি : জমাট রক্ষণ

দুর্বলতা : মাঝমাঠ বিশ্বমানের নয়

ফিফা র‌্যাংকিং : ৬১

ডাক নাম : ব্ল্যাক স্টারস

ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২

হেড টু হেড পর্তুগাল-ঘানা

রোনাল্ডো এখন পর্তুগালের
 ক্রীড়া ডেস্ক 
২৪ নভেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ম্যানইউর সঙ্গে ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর বিচ্ছেদের খবরে যেন হাঁফ ছেড়ে বাঁচলেন পর্তুগাল কোচ ফার্নান্দো সান্তোস। বিশ্বকাপে খেলতে কাতারে এসে নিজেদের আসল কাজেই মনোযোগ দিতে পারছিল না পর্তুগাল দল। তাদের বিশ্বকাপ জেতার সম্ভাবনার চেয়ে অধিনায়ক রোনাল্ডোর সঙ্গে তার ক্লাবের টানাপোড়েন নিয়ে চর্চা হচ্ছিল বেশি।

কাতারে আসার আগে এক সাক্ষাৎকারে ক্লাবের বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়ে রোনাল্ডো নিজেই ঝামেলাটা বাধিয়েছিলেন। মঙ্গলবার রাতে সমঝোতার ভিত্তিতে ম্যানইউর সঙ্গে তার চুক্তি বাতিলের মধ্য দিয়ে সেই ঝড় আপাতত থেমেছে। মুক্ত রোনাল্ডো এখন শুধুই পর্তুগালের। এবার আসল কাজে নামার পালা। দোহার ৯৭৪ স্টেডিয়ামে আজ ঘানার মুখোমুখি হয়ে বিশ্বকাপে অভিযান শুরু করতে যাচ্ছে রোনাল্ডোর পর্তুগাল।

‘এইচ’ গ্রুপে তাদের বাকি দুই প্রতিপক্ষ উরুগুয়ে ও দক্ষিণ কোরিয়া। ২০০৬ সালে নিজের প্রথম বিশ্বকাপে সেমিফাইনালে খেলার সৌভাগ্য হয়েছিল রোনাল্ডোর। পরের তিন আসরে শেষ ষোলোর বেশি এগোতে পারেনি পর্তুগাল। এবার নিজের পঞ্চম ও সম্ভাব্য শেষ বিশ্বকাপে শিরোপায় চোখ ৩৭ বছর বয়সি রোনাল্ডোর। নিজে ফর্মে না থাকলেও আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ গোলদাতার স্বপ্ন ফাইনালে ব্রাজিলকে হারিয়ে বিশ্বকাপ জয়।

নিন্দুকদের ভাষায় যা দিবা স্বপ্ন! দলে রোনাল্ডো, ব্রুনো ফার্নান্দেস, পেপে, ফেলিক্স, বের্নার্দো সিলভা, আন্দ্রে সিলভা, রুবেন দিয়াসের মতো অনেক তারকা থাকলেও পর্তুগালকে কেউ শিরোপার দাবিদার ভাবছে না। তাদের প্রথম ম্যাচের প্রতিপক্ষ ঘানা (৬১) বিশ্বকাপের ৩২ দলের মধ্যে ফিফা র‌্যাংকিংয়ে সবচেয়ে পিছিয়ে। ২০১৪ বিশ্বকাপে আফ্রিকার দলটিকে ২-১ গোলে হারিয়েছিল পর্তুগাল। তবে ঘানা যে ২০১০ বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনালে খেলেছিল তা ভুলে যাননি পর্তুগিজ ডিফেন্ডার রুবেন দিয়াস, ‘ক্রিশ্চিয়ানোর বিষয়টি নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। এবার সব ভুলে শুধু মাঠের খেলায় মনোযোগ দিতে হবে। ঘানার বিপক্ষে জিততে সেরাটাই দিতে হবে আপনাকে। তারা খুবই বিপজ্জনক দল। শারীরিকভাবে শক্তিশালী। তাদের খেলোয়াড়রা ইউরোপের শীর্ষ পর্যায়ে খেলে। ভুল করলেই বিপদে পড়ব আমরা।’

দেশ : পর্তুগাল

বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ : এ নিয়ে আটবার

সেরা ফল : ১৯৬৬ আসরে তৃতীয়

কোচ : ফার্নান্দো সান্তোস

মূল খেলোয়াড় : ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডো

শক্তি : ক্ষুরধার আক্রমণভাগ

দুর্বলতা : মাঝমাঠে ভারসাম্য কম

ফিফা র‌্যাংকিং : ৯

ডাক নাম : দ্য নেভিগেটরস

দেশ : ঘানা

বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ : এ নিয়ে

চতুর্থবার

সেরা ফল : ২০১০ আসরে

কোয়ার্টার ফাইনাল

কোচ : ওটো অ্যাডো

মূল খেলোয়াড়

আন্দ্রে আইয়ু

শক্তি : জমাট রক্ষণ

দুর্বলতা : মাঝমাঠ বিশ্বমানের নয়

ফিফা র‌্যাংকিং : ৬১

ডাক নাম : ব্ল্যাক স্টারস

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ফুটবল বিশ্বকাপ ২০২২