সংবাদ সম্মেলনে সুরেশ তেলের মালিক

৪০ কোটি টাকার সম্পদ দখলের ষড়যন্ত্র

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রায় চল্লিশ কোটি টাকার সম্পত্তি দখলের জন্য কুচক্রী মহল ষড়যন্ত্র করছে বলে অভিযোগ করেছেন সুরেশ সরিষার তেল উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান অন্নপূর্ণা অয়েল মিলের মালিক সুধীর চন্দ্র সাহা। তিনি অভিযোগ করেন, তার মেয়েকে মাদকাসক্ত করে ঘর থেকে বের করে নিয়েছে ওই চক্র। মেয়েকে উদ্ধার ও তার সুচিকিৎসারও দাবি জানিয়েছেন তিনি। শনিবার ক্রাইম রিপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশন (ক্র্যাব) মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে সুধীর চন্দ্র সাহা এ অভিযোগ করেন।

লিখিত বক্তব্যে সুধীর সাহা বলেন, আমার একমাত্র মেয়ে লিমা সাহা নরসিংদী সরকারি কলেজের ছাত্রী থাকা অবস্থায় নরসিংদীর জনৈক ইতি রানী পালের ছেলে সৈকত পাল তাকে (লিমা) প্রেমের ফাঁদে ফেলে মাদকাসক্ত করে। আমি মেয়েকে কাউন্সেলিংয়ের মাধ্যমে সুস্থ করে তোলার চেষ্টা করি। রাজধানীর গুলশানের একটি চিকিৎসা কেন্দ্রের ডাক্তার তাকে ‘নিমপোমিয়া’ রোগী বলে শনাক্ত করেন। একপর্যায়ে তাকে ভারতে পাঠানো হয়। ২৪ মে সে ভারত থেকে দেশে আসে। লিমা বিমানবন্দরে নামার পর সৈকত পালের ভগ্নিপতি শুল্ক গোয়েন্দা কর্মকর্তা বিজয় রায়ের সহযোগিতায় ইমিগ্রেশন না করে বের হয়ে যায়। পরে শুল্ক গোয়েন্দার সহকারী কমিশনারের সহায়তায় মেয়েকে উদ্ধার করা হয়। এরপর লিমা সাহাকে বিয়ে করেছে বলে দারি করে সৈকত পাল আদালতে মামলা করে। পরে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট চিকিৎসাধীন অবস্থায় লিমাকে উদ্ধার করে সৈকত পালের হেফাজতে দেন।

সুধীর সাহা বলেন, ইতি রানী পাল ও তার পরিবার আমার প্রায় ৪০ কোটি টাকার সম্পত্তি দখলের জন্য ষড়যন্ত্র করছে। সুধীর সাহা আরও বলেন, সৈকতের পরিবার দাবি করছে লিমা ও সৈকত বিয়ে করেছে। আমার প্রশ্ন- এটা কেমন বিয়ে? এই বিয়ে আমি মানতে পারছি না। লিমাকে উদ্ধার করে সুচিকিৎসার ব্যবস্থা করতে আমি প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি ও র‌্যাব মহাপরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের হস্তক্ষেপ কামনা করছি। কয়েক দিন আগে লিমা সাহা ও সৈকত পাল ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, তারা প্রাপ্তবয়স্ক। স্বেচ্ছায় তারা বিয়ে করেছেন। সৈকত পাল বলেন, আমরা পাল বংশের। আর লিমা সাহা বংশের। এ কারণে লিমার বাবা আমাদের বিয়ের বিষয়টি মেনে নিতে পারছেন না। তিনি আরও বলেন, আমরা ভালোবেসে একজন আরেকজনকে বিয়ে করেছি। এখানে সম্পদের লোভ বা অন্য কিছু জড়িত নেই।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter