মিয়ানমারে চীনের বন্দর

  যুগান্তর ডেস্ক ১০ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মিয়ানমারে চীনের বন্দর

মিয়ানমারের কিয়কপিউ শহরে বঙ্গোপসাগরের ধারে একটি গভীর সমুদ্রবন্দর বানানোর ঘোষণা দিয়েছে চীন। দক্ষিণ এশিয়ায় এটি হবে চীনের তৈরি তৃতীয় সমুদ্রবন্দর।

ভারতের শরীর ঘেঁষা দেশগুলোতে চীনের এমন উদ্যোগ দেশটির উদ্বেগের কারণ হয়ে দেখা দিয়েছে বলে খবর দিয়েছে ইন্দো-এশিয়ান নিউজ সার্ভিস।

মিয়ানমারের চীনের বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রজেক্টের আওতায় বেইজিং ও নেইপিদো বৃহস্পতিবার এ বন্দর স্থাপনের চুক্তি স্বাক্ষর করে। বর্তমানে পাকিস্তানের গদরে একটি সমুদ্রবন্দর নির্মাণ করছে চীন।

অন্যদিকে শ্রীলংকার হাম্বানটোটার বন্দরটি ৯৯ বছরের জন্য চীনকে লিজ দেয়া রয়েছে। এগুলো ছাড়াও বাংলাদেশের চট্টগ্রামে একটি সমুদ্রবন্দরের অর্থায়ন করছে চীন।

চীন প্রতিবেশী দেশগুলোতে এসব বন্দর নির্মাণ করে ভারত মহাসাগরে দেশটিকে ঘিরে ফেলতে চাইছে বলে মনে করছে ভারত। মিয়ানমার চীনের বিনিয়োগের বিষয়ে শঙ্কিত হয়ে তাদের কয়েকটি প্রকল্পের আকার সীমিত করে দিয়েছে। বৃহস্পতিবারের চুক্তি স্বাক্ষর করার আগে কয়েক বছর ধরে আলোচনা বন্ধ ছিল।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম এ বন্দরকে বেল্ট অ্যান্ড রোড প্রকল্পের একটি উল্লেখযোগ্য পদক্ষেপ বলে অভিহিত করেছে। গ্লোবাল টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়, চীন বন্দরটির ৭০ শতাংশের অর্থায়ন করবে। বাকি ৩০ শতাংশ দেবে মিয়ানমার।

ঘটনাপ্রবাহ : রোহিঙ্গা বর্বরতা

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×