বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে ইসির চিঠি

নির্বাচন পর্যন্ত উন্নয়ন প্রকল্প ও অনুদান বন্ধের চিন্তাভাবনা

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৫ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নির্বাচন পর্যন্ত সব ধরনের উন্নয়ন প্রকল্প ও অনুদান বণ্টন বন্ধের নির্দেশনা দেয়ার চিন্তাভাবনা করছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এ লক্ষ্যে নির্দেশনাসহ একটি প্রস্তাব তৈরি করা হয়েছে। কমিশনের অনুমোদন মিললে দু-এক দিনের মধ্যে তা সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। প্রভাবমুক্ত ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে এসব পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। নির্বাচনের পুনঃতফসিল ঘোষণার বিষয়টি মন্ত্রিপরিষদ বিভাগকে জানানোর পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। অপরদিকে তফসিলের আগে লাগানো বিভিন্ন ধরনের প্রচারপত্র নিজ দায়িত্বে খোলার সময়সীমা আরও তিন দিন বাড়ানো হয়েছে। ১৪ নভেম্বরের মধ্যে নিজ খরচে ওই সব তুলে ফেলার নির্দেশনা ছিল। প্রার্থীদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সময় বাড়ানোর এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয় বলে জানা গেছে।

সূত্র জানায়, বিভিন্ন নির্দেশনা সংবলিত প্রস্তাবে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়, খাদ্য মন্ত্রণালয়, মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রণালয়, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়কে সব ধরনের প্রকল্পসহ অনুদান বন্ধ রাখার কথা উল্লেখ আছে। তফসিল ঘোষণার দিন থেকে ফলাফলের গেজেট প্রকাশের আগপর্যন্ত কোনো ধরনের অনুদান ঘোষণা বা বরাদ্দ প্রদান ও অর্থ ছাড় না দিতে চিঠিতে অনুরোধ করা হবে।

প্রস্তাবিত চিঠির নির্দেশনায় উল্লেখ আছে, কোনো সরকারি সুবিধাভোগী অতি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি বা গোষ্ঠী বা প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে কোনো ধরনের অনুদান ঘোষণা বা বরাদ্দ কিংবা ছাড় দিতে পারবে না। রাজনৈতিক দল ও প্রার্থীর আচরণ বিধিমালা-২০০৮ এর বিধি ৩ অনুযায়ী এটি দণ্ডনীয় অপরাধ। একই সঙ্গে নির্বাচনের ফলাফলের গেজেট প্রকাশের আগপর্যন্ত নির্বাচনী এলাকায় কোনো প্রার্থী সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের সম্পত্তি, তথ্য অফিস, যানবাহন, টেলিফোন, ওয়াকিটকি বা অন্য কোনো সুযোগ-সুবিধা নির্বাচনের কাজে ব্যবহার করতে পারবেন না।

বিশ্ব ইজতেমা পেছাতে চিঠি : তবলিগ জামাতের সবচেয়ে বড় সম্মেলন বিশ্ব ইজতেমা পেছাতে সংগঠনটির কেন্দ্রীয় কার্যালয় কাকরাইলে একটি চিঠি পাঠাচ্ছে ইসি। গাজীপুরের রিটার্নিং অফিসারের অনুরোধে কমিশন এ পত্র দেয়ার বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে। চিঠিতে বলা হয়েছে, আগামী ১৫-২০ জানুয়ারি প্রথম এবং ২৫-২৭ জানুয়ারি দ্বিতীয় পর্যায়ের সম্মেলন হওয়ার কথা। কিন্তু জাতীয় নির্বাচনের ভোটের তারিখ পুনঃনির্ধারিত হওয়ায় আগামী ৩০ ডিসেম্বর ভোটগ্রহণ কিংবা নির্বাচন সম্পন্ন হওয়ার পর ১ জানুয়ারি পরবর্তী যেকোনো সুবিধাজনক সময়ে সম্মেলনসহ ধর্মীয় কার্যক্রম আয়োজনে সংগঠনটিকে পত্র দিচ্ছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×