টিআইবির প্রতিবেদন মনগড়া ও পূর্বনির্ধারিত : ইসি রফিকুল ইসলাম

দাবি ভিত্তিহীন ও অগ্রহণযোগ্য -আবদুর রহমান

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে বিতর্কিত, প্রশ্নবিদ্ধ আখ্যা দিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) যে প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে, তা প্রত্যাখ্যান করেছেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, এ প্রতিবেদন পূর্বনির্ধারিত ও মনগড়া।

রফিকুল ইসলাম বলেন, টিআইবি যেটিকে গবেষণা বলে দাবি করছে, তা কোনো গবেষণা নয়, প্রতিবেদন মাত্র। কেননা গবেষণা করতে যেসব পদ্ধতি প্রয়োগ করতে হয়, তা এখানে প্রয়োগ করা হয়নি। এটি সম্পূর্ণরূপে মনগড়া প্রতিবেদন। এছাড়া বলা হয়েছে, এটা তাদের প্রাথমিক প্রতিবেদন। তার অর্থই হচ্ছে, এই প্রতিবেদন পূর্বনির্ধারিত। তিনি বলেন, ভোটের কারচুপির তথ্য নিলে অবশ্যই সহকারী প্রিসাইডিং কর্মকর্তার কাছ থেকে তথ্য নিতে হবে বা লিখিত কোনো ডকুমেন্ট থেকে তথ্য নিতে হবে। কিন্তু টিআইবি তা করেনি। কোন সোর্স থেকে কী প্রক্রিয়ায় তথ্য নিয়ে প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছে, তা উল্লেখ করা হয়নি। কাজেই এটা কোনো গবেষণা হয়নি। তিনি আরও বলেন, বলা হয়েছে বাছাইকৃত প্রার্থীদের কাছ থেকে তারা তথ্য নিয়েছে। এক্ষেত্রে জামায়াতের প্রার্থীদের কাছ থেকে তথ্য নিলেও গবেষণা প্রতিবেদন এক রকম হবে। আর আওয়ামী লীগের প্রার্থীদের কাছ থেকে নিলে আরেক রকম হবে। টিআইবির গবেষণায় এগুলো স্পষ্ট নয়। আমরা এই প্রতিবেদন আমলে নিচ্ছি না। যদি গবেষণা হতো, তবে আমলে নিতে পারতাম।

প্রতিবেদনের ভিত্তি নেই -আবদুর রহমান : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবদুর রহমান বলেন, এ প্রতিবেদনের কোনো ভিত্তি নেই। এটা তাদের (টিআইবির) মনগড়া প্রতিবেদন। সারা দুনিয়ার মানুষ বলছে নির্বাচন অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে। তারা আওয়ামী লীগ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানাচ্ছেন। সেখানে এ ধরনের বক্তব্য অগ্রহণযোগ্য। নির্বাচন অবাধ, সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ হয়েছে দাবি করে তিনি বলেন, নির্বাচনে দেশের মানুষ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিয়ে পছন্দের দল আওয়ামী লীগকে বেছে নিয়েছে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×