ফতুল্লায় শ্বশুরকে খুন করে পালানোর সময় আটক

  ফতুল্লা প্রতিনিধি ২২ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় পারিবারিক বিরোধে শ্বশুরকে খুন করে পালানোর সময় এলাকাবাসীর হাতে আটক হয়েছে জামাই। এসময় এলাকাবাসী গণধোলাই দিয়ে ঘাতক জামাই আলমগীর হোসেনকে পুলিশে দিয়েছে। সোমবার সন্ধ্যায় ফতুল্লার আলীগঞ্জ এলাকায় রনি মিয়ার বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ওহাব মিয়া (৬০) কিশোরগঞ্জ জেলার বাইজিদপুর এলাকার আবদুল কাদের মিয়ার ছেলে। তিনি এক ছেলে, তিন মেয়ে ও স্ত্রীসহ রনি মিয়ার বাড়িতে ভাড়া থেকে রাজমিস্ত্রির কাজ করতেন।

নিহতের বড় মেয়ে রোকসানা বেগম জানান, তার ছোট বোন শাহানাজ বেগমকে সাত মাস আগে ফতুল্লা রেলস্টেশন এলাকার সাত্তার গাজীর ছেলে আলমগীর হোসেনের কাছে বিয়ে দেয়া হয়। বিয়ের সময় দুই ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগদ ৫০ হাজার টাকা দেয়া হয় আলমগীরকে।

তিনি আরও জানান, বিয়ের পর থেকে আলমগীর হোসেন যৌতুকের দাবিতে প্রায় সময় শাহানাজকে মারধর করত। কয়েক দিন আগে মারধর করে শাহানাজকে বাড়ি থেকে বের করে দেয়। এর পর থেকে শাহানাজ বাবার বাড়িতে রয়েছে। সন্ধ্যায় আমাদের আলীগঞ্জের ভাড়া বাড়িতে এসে আলমগীর যৌতুকের টাকা দাবি করে তর্কে জড়িয়ে আমার বাবার পেটে ছুরিকাঘাত করে। এ সময় এলাকাবাসী আলমগীরকে আটক করে পুলিশে দেয়। পরে শহরের ৩০০ শয্যা হাসপাতালে নেয়া হলে জরুরি বিভাগের চিকিৎসক আমার বাবাকে মৃত ঘোষণা করেন।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি মঞ্জুর কাদের জানান, পারিবারিক বিরোধে জামাই শ্বশুরকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করেছে। জামাইকে আটক করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×