জমি নিয়ে বিরোধের জের

শ্রীপুরে ৬ কুকুরের গলা কেটে প্রতিবেশীকে হত্যার হুমকি!

প্রকাশ : ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  শ্রীপুর (গাজীপুর) প্রতিনিধি

শ্রীপুরে ৬ কুকুরের গলা কেটে হত্যা। ছবি: সংগৃহীত

ব্যক্তিগত বিরোধের জেরে শ্রীপুর উপজেলার মাওনা ইউনিয়নের দক্ষিণ বারতোপা গ্রামে মা-কুকুরসহ ৫ ছানাকে গলা কেটে হত্যা করেছে দুই প্রতিবেশী। হত্যার পর এভাবেই আলেয়া বেগম ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করা হবে বলে হুমকি দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

শনিবার সকাল ৯টার দিকে একই গ্রামের মৃত বাহাদুর খাদেমের স্ত্রী আলেয়া বেগমের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

এ ব্যাপারে সন্ধ্যায় একই গ্রামের অভিযুক্ত প্রতিবেশী হাতেম আলীর ছেলে হাশেম ও আরিফ নামে দুই ব্যক্তির বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় অভিযোগ দেয়া হয়েছে।

বিধবা আলেয়া বেগম জানান, তিনি নোয়াখালী থেকে সপরিবারে ২০০৬ সালে গাজীপুরের ওই এলাকায় জমি ক্রয় করে বসবাস করে আসছেন। বসবাসের পর থেকে অভিযুক্তরা তাদের উচ্ছেদ করে জমি জবরদখলের জন্য বিভিন্ন সময় নানা ধরনের হুমকি দিয়ে আসছে।

বিরোধের জেরে বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৩টার দিকে অভিযুক্তরা তার বাড়িতে এসে তাকে ও তার মেয়ে খাদিজা আক্তারকে মারধর করে চলে যায়। পরে শনিবার সকাল ৯টার দিকে তার বাড়ির উঠানে এসে প্রথমে মা-কুকুর ও একে একে পাঁচটি ছানার গলা কেটে হত্যা করে পাগলা কুকুরে ছানা হত্যা করেছে বলে চিৎকার করে। এ সময় বাড়ির লোকজন কান্নাকাটি করলেও তাদের হিংস্রতা থামাতে পারেনি। কুকুরের মতো এভাবেই তাদেরও হত্যা করা হবে বলে অভিযুক্তরা হুমকি দিয়ে চলে যায়।

স্থানীয় মাওনা ইউপি সদস্য সুরুজ্জামান জানান, কিছু লোক ওই বিধবা জমি দখলের চেষ্টা করছে বলে আমাকে জানিয়েছে। আমি তাকে প্রশাসনের আশ্রয় নেয়ার পরামর্শ দিয়েছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. আবদুল জলিল জানান, কোনো পশুর সঙ্গে নির্দয় ও নিষ্ঠুর আচরণ করলে তার বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা রয়েছে।

শ্রীপুর থানায় কর্তব্যরত কর্মকর্তা সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) মোবারক হোসেন জানান, এ ব্যাপারে লিখিত অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনা তদন্তের জন্য একজন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেয়া হবে।

অভিযুক্ত হাশেম জানান, তারা নিজেরাই কুকুর ছানা হত্যা করে আমাদের ওপর দোষ চাপিয়ে দিচ্ছে। আলেয়া বেগম ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যা করার অভিযোগ সঠিক না। আমরাও আলেয়ার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেব। আলেয়া আমাদেরকে একাধিকবার মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করার হুমকি দিয়ে আসছে।