রাস্তায় শিক্ষার্থীরা

ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় উপসচিবের গাড়িচালক ধরা

  যুগান্তর রিপোর্ট ২১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ড্রাইভিং লাইসেন্স

শিক্ষার্থী আবরার আহমেদ চৌধুরী নিহতের ঘটনায় দ্বিতীয় দিনে বুধবার সকাল থেকে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ শুরু করেন স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।

রাস্তায় চলাচলরত গাড়ির কাগজপত্র ও চালকের ড্রাইভিং লাইসেন্স তারা চেক করেন। ড্রাইভিং লাইসেন্স না থাকায় শাহবাগ মোড়ে এক উপসচিবের গাড়িচালক ধরা খেয়েছেন। এ সময় এক ট্রাফিক সার্জেন্টও ধরা খান।

দুপুরে রাজধানীর নীলক্ষেত এলাকা থেকে শাহাবাগ আসছিল সাদা রঙের একটি প্রাইভেট কার। শাহাবাগের ফুটওভার ব্রিজের সামনে আসতেই অবরোধকারী শিক্ষার্থীরা পথরোধ করে ড্রাইভারের কাছে লাইসেন্স দেখতে চান। গাড়িটির ওপর জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের স্টিকার লাগানো ছিল। চালক আমতা আমতা করে সরকারি গাড়ি বলতেই শিক্ষার্থীরা ভুয়া ভুয়া বলে চিৎকার করেন।

গাড়িটির মালিকের পরিচয় জানতে চাইলে চালক বলেন, মালিক উপসচিব। এ সময় শিক্ষার্থীরা সাইন পেন দিয়ে গাড়ির বনেটে ‘ভুয়া’, ‘লাইসেন্স নাই’, ‘ঘুষের টাকায় লাইসেন্স লাগে না?’ ইত্যাদি লিখে দেন। গাড়িটি রেখে মালিককে আনতে যান চালক। একই সময় মৎস্য ভবন থেকে পুলিশের একটি প্রিজন ভ্যান শাহাবাগ সিগন্যালে এলে শিক্ষার্থীরা পথরোধ করে লাইসেন্স দেখতে চান। লাইসেন্স দেখাতে না পারায় গাড়ির বনেটে ‘ভুয়া’ লিখে পিছু হটতে বাধ্য করে।

এ সময় একজন বিচারপতির গাড়ি চেক না করেই তা ছেড়ে দেয়া হয়। এদিকে দুপুর আড়াইটায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে থেকে শাহাবাগ থানার দিকে যাচ্ছিলেন ট্রাফিক সার্জেন্ট রাসেল। শাহাবাগ মোড়ে মোটরসাইকেলের গতিরোধ করে কাগজপত্র দেখতে চান শিক্ষার্থীরা। ড্রাইভিং লাইসেন্স ও মোটরসাইকেলের কাগজপত্র সঙ্গে না থাকায় শিক্ষার্থীদের তোপের মুখে পড়েন তিনি।

সার্জেন্ট রাসেল জানান, সব (কাগজপত্র) আছে, তবে বাসায়। এ কথা শুনে শিক্ষার্থীরা বলেন, সাধারণ মানুষ যখন বাসায় লাইসেন্স রেখে আসার কথা বলে তখন তো আপনারা শুনেন না, মামলা দেন। আপনার লাইসেন্স বাসায় থাকলে দোষ নেই কেন?’ এ সময় সমস্বরে সবাই ভুয়া ভুয়া বলে চিৎকার করেন। পোশাক পরিহিত আরও একজন সার্জেন্টকে আটকালে তিনি জানান, সরকারি গাড়ির কাগজ থানায় জমা থাকে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×