সুবর্ণচরে গণধর্ষণ

আসামি রুহুল আমিনের জামিন

আতঙ্কে নির্যাতিতার পরিবার

  যুগান্তর রিপোর্ট ২২ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নোয়াখালীর সুবর্ণচরে এক নারীকে গণধর্ষণের ঘটনায় করা মামলার অন্যতম আসামি মো. রুহুল আমিনকে জামিন দিয়েছেন হাইকোর্ট। হাইকোর্টের অবকাশকালীন একটি ডিভিশন বেঞ্চ সোমবার তাকে এক বছরের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন। এতে আতঙ্কে ভুগছেন ওই নির্যাতিত গৃহবধূসহ তার পরিবার।

এই আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করা হবে বলে জানিয়েছেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিত রায়। তিনি বলেন, জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করার জন্য ইতিমধ্যে অ্যাডভোকেট অন রেকর্ড নিয়োগ করা হয়েছে। আগামী সোমবার আপিল বিভাগের চেম্বার জজ আদালতে ওই আবেদনের ওপর শুনানি হবে।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের রাতে নোয়াখালীর সুবর্ণচরে গণধর্ষণের ঘটনায় ধর্ষিতার স্বামী ৩১ ডিসেম্বর চরজব্বার থানায় মামলা করেন। মামলার এজাহারে বলা হয়, ৩০ ডিসেম্বর রাতে পূর্ব বিরোধের জের ধরে আসামিরা ঘরে ঢুকে স্বামী ও স্ত্রীকে মারধর করে। এক পর্যায়ে স্ত্রীকে ঘরের বাইরে নিয়ে আসামিরা পালাক্রমে ধর্ষণ করে।

রুহুল আমিন সুবর্ণচর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও চর জুবলি ইউনিয়নের সাবেক ইউপি মেম্বার। ঘটনার পর তাকে দল থেকে বহিষ্কার করে আওয়ামী লীগ। ধর্ষণের মামলায় ৪ জানুয়ারি পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। এরপর তাকে কারাগারে পাঠানো হয়। পরে ম্যাজিস্ট্রেট আদালত এবং নোয়াখালীর জেলা ও দায়রা জজ আদালত তার জামিন আবেদন নাকচ করে দেন।

৪ মার্চ জেলা ও দায়রা জজ সালেহ উদ্দিন আহমদ জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়ে আদেশে বলেন, রেকর্ড পর্যালোচনা করে দেখা যায় এটা নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের মামলা। মামলাটি তদন্তাধীন থাকায় জামিন না মঞ্জুর করা হল।

এই আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে জামিন চেয়ে আবেদন করেন। ওই জামিন আবেদনে বলা হয়, জামিন আবেদনকারী পেশায় আইনজীবী মুহুরি। মামলার এজাহারে নাম নেই। পূর্ব শত্রুতার জেরে তাকে আসামি করা হয়। এ মামলায় তার বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ নেই। তিনি সম্পূর্ণ নির্দোষ। তাকে জামিন দেয়া হোক। আদালতে আসামি পক্ষে অ্যাডভোকেট আশেক-ই- রসুল এবং রাষ্ট্রপক্ষে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট বিশ্বজিত রায় উপস্থিত ছিলেন। শুনানি শেষে আদালত আসামির জামিন মঞ্জুর করেন।

আতঙ্কে নির্যাতিত নারী ও তার স্বজন : যুগান্তর রিপোর্ট, নোয়াখালী জানান, রুহুল আমিনের জামিনে গণধর্ষণের শিকার গৃহবধূ ও তার স্বামীসহ স্বজনরা আতঙ্কে ভুগছেন। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গৃহবধূর স্বামী যুগান্তরকে জানান, রুহুলের জামিনে তারা নিরাপত্তাহীনতা বোধ করছেন। চর জব্বর থানার ওসি শাহেদ উদ্দীন যুগান্তরকে বলেন, রুহুল আমিনের জামিনের বিষয়ে এখনও কোনো কাগজপত্র এ থানায় আসেনি।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×