গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির অপচেষ্টা চলছে

-এফবিসিসিআই সভাপতি

  যুগান্তর রিপোর্ট ২৫ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গ্যাস-বিদ্যুতের দাম বৃদ্ধির অপচেষ্টা চলছে বলে মন্তব্য করেছেন ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন। তিনি বলেন, আগামী ১০-১৫ বছর জ্বালানির দাম কী হবে, ব্যবসায়ীদের তা জানাতে হবে। এলএনজি আমদানির পর তা দেশীয় গ্যাসের সঙ্গে মিশ্রণ করে দাম নির্ধারণ করতে হবে। আন্তর্জাতিক বাজারে দাম বেশি হলে দাম বাড়বে, কমলে দাম কমাতে হবে।

মহিউদ্দিন বলেন, যদি ব্যাংক ঋণের সুদহার কমিয়ে না আনা যায়, ইচ্ছাকৃত খেলাপি ঋণ নিয়ন্ত্রণে আনা না যায় তাহলে প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের বাংলাদেশ নির্মাণ সম্ভব নয়। এমনকি বেসরকারি বিনিয়োগে স্থবিরতা লক্ষ করা যাচ্ছে। তার ওপর গ্যাস-বিদ্যুতের মূল্যবৃদ্ধি করা হলে বিনিয়োগ চ্যালেঞ্জের মুখে পড়বে। ভ্যাট আইন এ বছর বাস্তবায়ন করা হবে। কিন্তু এ বিষয়ে এখনও ব্যবসায়ী-এনবিআর ঐকমত্যে পৌঁছতে পারেনি।

রোববার রাতে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) এক অনুষ্ঠানে সম্মানিত অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ২০১৯-২১ মেয়াদে এফবিসিসিআই নির্বাচন উপলক্ষে বর্তমান জ্যেষ্ঠ সহসভাপতি শেখ ফজলে ফাহিমের নেতৃত্বে সম্মিলিত ব্যবসায়ী পরিষদের প্যানেল পরিচিতি অনুষ্ঠান হয়। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি ও শিল্পখাত বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান।

এফবিসিসিআই সভাপতির বক্তব্যের জবাবে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সালমান এফ রহমান বলেন, গ্যাস-বিদ্যুতের দীর্ঘমেয়াদে মূল্য নির্ধারণ করে দেয়া সম্ভব না। তবে ভারতের মতো খাতভিত্তিক গ্যাসের দাম নির্দিষ্ট করে দেয়া যায়। তিনি আরও বলেন, ব্যাংক ঋণের সুদের হার কমিয়ে আনতে সরকার কাজ করছে। আগামী দু-তিন দিনের মধ্যে সুফল দেখা যাবে। তাছাড়া ইচ্ছাকৃত ঋণখেলাপিদের বিরুদ্ধে সরকার ব্যবস্থা নিচ্ছে যেমন: ক্রিসেন্ট, হলমার্কের ঋণ জালিয়াতদের জেলে যেতে হয়েছে। সরকার কোনো ইচ্ছাকৃত ঋণখেলাপিকে ছাড় দিচ্ছে না।

সম্মিলিত ব্যবসায়ী পরিষদের প্যানেল লিডার শেখ ফজলে ফাহিম বলেন, বিগত দিনের ধারাবাহিকতায় আগামীতেও এফবিসিসিআইকে আরও কার্যকর, গতিশীল ও ব্যবসায়ীবান্ধব করা হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশের ভিশন-২০৪১ অর্জনের অংশীদার হতে উদ্যোগ নেবেন।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের মেয়র এবং বিজিএমইএর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম, এফবিসিসিআইয়ের সাবেক সভাপতি এমএ সাত্তার, এমএ কাশেম, মাহবুবুর রহমান, ইউসুফ আবদুল্লাহ হারুন, মীর নাসির হোসেন, এ কে আজাদ, কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ ও আবদুল মাতলুব আহমাদসহ সাবেক সহসভাপতি, বর্তমান ও সাবেক পরিচালক এবং সংগঠনের সদস্যরা।

২০১৯-২১ সেশনের দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে শেখ ফজলে ফাহিমের নেতৃত্বে গঠিত প্যানেল ‘সম্মিলিত ব্যবসায়ী পরিষদ’-এর চেম্বার গ্রুপের প্রার্থীরা হলেন- হাসিনা নেওয়াজ, মাসুদুর রহমান মিলন, আজিজুল হক, দিলিপ কুমার আগারওয়ালা, মাসুদ পারভেজ খান ইমরান (ইমরান), মোহাম্মদ আনোয়ার সাদাত সরকার, মো. রেজাউল করিম রেজনু, গাজী গোলাম আশরিয়া, তাবারাকুল তোসাদ্দেক হোসাইন খান টিটো, মো. কহিনুর ইসলাম, প্রবীর কুমার সাহা, মো. আতাউর রহমান ভুঁইয়া, মোহাম্মদ বজলুর রহমান, মোহাম্মদ রিয়াদ আলী, মো. হাসানুজ্জামান, হুমায়ুন রশিদ খান পাঠান, এএইচ আহমেদ জামাল, শারিতা মিল্লাত এবং সুজীব রঞ্জন দাস। গ্রুপের বাকি তিন সদস্যের নাম পরে ঘোষণা করা হবে।

অ্যাসোসিয়েশন গ্রুপের প্রার্থীরা হলেন- সংগঠনটির বর্তমান সহসভাপতি মুনতাকিম আশরাফ, খন্দকার রুহুল আমিন, আবু মোতালেব, মীর নিজাম উদ্দিন আহমেদ, মো. শফিকুল ইসলাম ভরসা, শমী কায়সার, রাশেদুল হোসাইন চৌধুরী রনি, মো. হাবিব উল্লাহ ডন, শাফকাত হায়দার, হেলেনা জাহাঙ্গীর, আমজাদ হুসাইন, নিজাম উদ্দিন রাজেশ, এসএম জাহাঙ্গীর হোসাইন, মো. আবুল আয়েস খান, আবু নাসের, খন্দকার মইনুর রহমান (জুয়েল), হাফেজ হারুন-অর রশিদ, আবদুল হক, মেহেদী আলী, মো. মুনির হোসাইন এবং কাজী শোয়েব রশিদ। গ্রুপের বাকি দুই সদস্যের নাম পরে ঘোষণা করা হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×