শহীদ মিনারে স্বাধীনতা উৎসব শুরু

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার ২৫ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

স্বাধীনতা উৎসব

নৃত্য-গীত, কবিতা ও পথনাটকের সম্মিলনে অপশক্তির বিরুদ্ধে আপসহীন সংগ্রামের প্রত্যয়ে শুরু হয়েছে স্বাধীনতা উৎসব। রোববার থেকে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত স্বাধীনতা উৎসবের সূচনা হয়।

অশুভের সঙ্গে আপসবিহীন দ্বন্দ্ব চাই প্রতিপাদ্যে তিন দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন করেন চলচ্চিত্র ও নাট্য নির্মাতা মুক্তিযোদ্ধা নাসির উদ্দীন ইউসুফ। একইদিনে ধানমণ্ডির রবীন্দ্র সরোবরেও এ উৎসবের সূচনা হয়।

অনুষ্ঠানের শুরুতেই সব শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে মিনারের মূল বেদিতে অর্পণ করা হয় পুষ্পাঞ্জলি। এরপর নীরবতা পালন শেষে জাতীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে গণসঙ্গীত সমন্বয় পরিষদের শিল্পীরা। লাল-সবুজ পোশাকে আবৃত শিল্পীরা গেয়ে শোনায় দেশের গান ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’। গানের পর নাচ করে স্পন্দনের নৃত্যশিল্পীরা।

প্রথম পর্বের উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতা শেষে ছিল বর্ণিল সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। উৎসব উদ্বোধন করেন নাসির উদ্দীন ইউসুফ। জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছের সভাপতিত্বে উদ্বোধনী আলোচনায় অংশ নেন জাতীয় কবিতা পরিষদের সভাপতি মুহাম্মদ সামাদ, পথনাটক পরিষদের সভাপতি মান্নান হীরা, জোটের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ঝুনা চৌধুরী, পথনাটক পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আহমদ গিয়াস প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য দেন জোটের সাধারণ সম্পাদক হাসান আরিফ।

উদ্বোধনী বক্তব্যে বাহাত্তরের সংবিধানের পুনঃপ্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়ে নাসির উদ্দীন ইউসুফ বলেন, নইলে মুক্তিযুদ্ধে শহীদের জীবনদান বৃথা যাবে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ রাষ্ট্র তৈরি হচ্ছে মাত্র। স্বশাসিত হওয়ার সংস্কৃতি শুরু হয়েছে কেবল। তাই মানবতাবিরোধী শক্তির বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে।

গোলাম কুদ্দুছ বলেন, গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির যে প্রস্তাব উঠেছে সেটা কোনোভাবেই বাস্তবায়ন করা উচিত হবে না। কারণ গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির চাপ সরাসরি এসে পড়বে সাধারণ মানুষের ওপর। একইভাবেই রেলের টিকিট মূল্যবৃদ্ধি করা হলেও সেই চাপটি এসে পড়বে দরিদ্র জনগোষ্ঠীর ওপর। তাই গ্যাস ও রেলের টিকিটের মূল্যবৃদ্ধি না করার বিষয়ে তিনি সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।

হাসান আরিফ বলেন, মাদক ও সন্ত্রাসের মতো সাম্প্রদায়িক শক্তির সঙ্গে কোনো আপস চলবে না। একইভাবে বর্তমান সরকার নদী দখলদারদের বিরুদ্ধেও শুদ্ধি অভিযান চালাচ্ছে। এটা অব্যাহত রাখতে হবে। উদ্বোধনী আনুষ্ঠানিকতা শেষে দ্বিতীয় পর্বে শুরু হয় সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এ পর্বে একক কণ্ঠে গান শোনান ফকির সিরাজ, নবনীতা জাইদ চৌধুরী অনন্যা ও আরিফ রহমান।

দলীয় সঙ্গীত পরিবেশন করে ঋষিজ শিল্পীগোষ্ঠী ও সুর সাগর। দলীয় আবৃত্তি পরিবেশন করে স্বরশ্রুতি। একক আবৃত্তি পরিবেশন করেন রূপা চক্রবর্তী ও শাহাদাৎ হোসেন নিপু। দলীয় নৃত্য পরিবেশন করে কত্থক নৃত্য সম্প্রদায়। সব শেষে পথনাটক পরিবেশন করে আরণ্যক নাট্যদল। ২৬ মার্চ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার ও রবীন্দ্র সরোবর মঞ্চে একযোগে চলবে এ উৎসব। প্রতিদিনের অনুষ্ঠান শুরু হবে বিকাল ৫টায়।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×