স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী নিহত

রূপগঞ্জে আ’লীগের দুই পক্ষের পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশ : ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি

রূপগঞ্জ উপজেলার হাবিবনগর এলাকায় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষ ও পুলিশ ত্রিমুখী সংঘর্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগ কর্মী সুমন মিয়া নিহতের ঘটনায় আওয়ামী লীগের দু’পক্ষ পাল্টাপাল্টি সংবাদ সম্মেলন করেছে। শনিবার বিকালে উপজেলার রূপসী এলাকায় ও মঠেরঘাট এলাকার রূপগঞ্জ প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে পৃথক সংবাদ সম্মেলন করেন তারা।

রূপসী এলাকার সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি তোফাজ্জল হোসেন মোল্লা, সহ-সভাপতি শেখ সাইফুল ইসলাম, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌসি আলম নিলা, যুবলীগ সভাপতি কামরুল হাসান তুহিন, নিহত সুমন মিয়ার বাবা মনু মিয়া, মা সাহিদা বেগম, মামলার বাদী ও নিহতের শাশুড়ি কাজল রেখাসহ আরও অনেকে।

সুমনের বাবা মনু মিয়া বলেন, আমি শুনেছি, চেয়ারম্যান রফিকুল ইসলাম রফিকের লোকজন আমার ছেলেকে গুলি করে হত্যা করেছে। ছেলে হত্যার সংবাদ পেয়ে শোকে কাতর হয়ে আমি অসুস্থ হয়ে পড়ায় ছেলের শাশুড়ি কাজল রেখা আমার পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করেন এবং আমার অনুমোতিক্রমে এজাহার দেন এবং মামলা রুজু হয়। আমি সুস্থ হওয়ার পর এজাহার পরে দেখতে পাই, আমার বক্তব্যের সঙ্গে এজাহারের হুবহু মিল রয়েছে এবং এ ব্যাপারে আমি বাদী হয়ে রূপগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছি। আমি ছেলে হত্যার বিচার দাবি করছি প্রশাসনের কাছে।

অপরদিকে রূপগঞ্জ প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আ’লীগের সম্পাদক শাহজাহান ভূঁইয়া, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাবিবুর রহমান হারেজ, জেলা পরিষদের সদস্য মিজানুর রহমান মিজান, ইউপি চেয়ারম্যান আবু হোসেন ভূঁইয়া রানু, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি আবুল বাশার টুকুসহ আরও অনেকে। লিখিত বক্তব্যে উপজেলা চেয়ারম্যান শাহজাহান ভূঁইয়া বলেন, সুমন হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটিতে স্থানীয় এমপি গোলাম দস্তগীর গাজী রাজনৈতিক ফায়দা লুটতে পরিকল্পিতভাবে চেয়ারম্যান রফিকসহ আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদের মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছেন।