মার্কিন ক্ষেপণাস্ত্রে ভারতে হামলা চালাচ্ছে পাকিস্তান

কাশ্মীর সেনাক্যাম্পে হানা, দুই জওয়ান নিহত

  যুগান্তর ডেস্ক ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি ট্যাংক বিধ্বংসী গাইডেড মিসাইল (এটিজিএম) দিয়ে ভারতে হামলা চালাচ্ছে পাকিস্তান সেনারা। এ নিয়ে বিষয়টি যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে বোঝাপড়ার কথা ভাবছে নয়াদিল্লি। শনিবার কাশ্মীরের সানজুয়ান সেনাক্যাম্পে হানার কিছুক্ষণ পরই এই পদক্ষেপের ইঙ্গিত দেয় দিল্লির প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়। ভোর ৫টার ওই অতর্কিত হামলায় দুই সেনাজওয়ান নিহত হন। এক নারীসহ আহত হন ৭ জন। পুলিশের ধারণা, কাশ্মীরভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-এ-মোহাম্মদ এ হামলা চালিয়েছে। খবর টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

গত রোববার কাশ্মীরের রাজৌরিতে লাইন অব কনট্রোল বরাবর ভারতীয় সেনাবাহিনীর ওপর ব্যাপক গোলাবর্ষণ করে পাকিস্তান সেনাবাহিনী। গোলাবর্ষণের সময় পাকিস্তানি সেনারা ট্যাংক বিধ্বংসী গাইডেড মিসাইলও ব্যবহার করে। এতে একজন ক্যাপ্টেনসহ ৪ ভারতীয় সেনা নিহত হয়। ভারতের সেনা সূত্র জানায়, রাজৌরি হামলায় পাকিস্তানি সেনারা ১২০ মিলিমিটারের মর্টার ও ট্যাংক বিধ্বংসী মিসাইল ব্যবহার করে। লাইন অব কনট্রোল বরাবর ভারতীয় সেনা চৌকি লক্ষ্য করে সচরাচর তারা ৮০ মিলিমিটারের মর্টার ছোড়ে। যুক্তরাষ্ট্রের নিকট থেকে কেনা পাকিস্তানের গাইডেড মিসাইল ব্যবহারে উদ্বিগ্ন ভারতের কর্তৃপক্ষ। ভারত-যুক্তরাষ্ট্র কৌশলগত সম্পর্ক বিবেচনায় নিয়ে বিষয়টি ওয়াশিংটনের সঙ্গে বোঝাপড়ার কথা ভাবছে তারা। শনিবার দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এক বিবৃতিতে বলেছে, আমরা বিষয়টি তাদের (যুক্তরাষ্ট্র) কাছে তুলে ধরব।

এর আগে ভারতের জম্মু ও কাশ্মীরের সানজুয়ান সেনা ক্যাম্পে এক হামলায় অন্তত দুই সেনা কর্মকর্তা নিহত এবং শিশু ও নারীসহ সাতজন আহত হন। জম্মু পুলিশের মহাপরিচালক এসডি সিং জামওয়াল বলেন, শনিবার ভোর ৫টার দিকে একজন গার্ড সন্দেহজনক নড়াচড়া দেখতে পেয়ে বিষয়টি বোঝার চেষ্টার মধ্যেই তার বাঙ্কার লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ শুরু হয়। সন্ত্রাসীদের ধরতে কয়েক ঘণ্টা অভিযান চলছিল বলেও জানান তিনি। ভারতের সংসদ ভবনে হামলায় ফাঁসির দণ্ড পাওয়া কাশ্মীরভিত্তিক জঙ্গিগোষ্ঠী জইশ-এ-মোহাম্মদ নেতা আফজাল গুরুর ৫ম মৃত্যুবার্ষিকীর একদিন পর এ হামলা চালানো হয়। পুলিশের ধারণা, জাইশ-ই-মোহাম্মদের আত্মঘাতী দল এ হামলা চালিয়েছে।

জামওয়াল বলেন, ‘কতজন সন্ত্রাসী হামলা চালিয়েছেন তা এখনও নিশ্চিত হওয়া যায়নি। জম্মু ও কাশ্মীরে হামলা হতে পারে এমন গোয়েন্দা তথ্য থাকায় ক্যাম্পের প্রবেশ পথগুলোতে কড়া নিরাপত্তা ছিল।’ সন্ত্রাসীরা কিভাবে সেনা ক্যাম্পে প্রবেশ করেছে তা এখনও স্পষ্ট নয় বলে জানিয়েছেন ওই পুলিশ কর্মকর্তা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক পুলিশ কর্মকর্তা রয়টার্সকে বলেন, তিন থেকে চারজন সন্ত্রাসী এ হামলা চালিয়েছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

 

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter