ঢাকার ২০০ ভবনের নির্মাণ ও অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থায় অনিয়ম : গণপূর্তমন্ত্রী

  বিবিসি বাংলা ২১ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকায় ২০০টির বেশি বহুতল বাণিজ্যিক ভবন পরিদর্শন করে এর বেশিরভাগ ভবনেই নির্মাণ এবং অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থায় অনেক অনিয়ম পাওয়া গেছে। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বিবিসিকে শনিবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

মার্চ মাসের শেষে ঢাকার বনানীতে বহুতল ভবনে অগ্নিকাণ্ডে কমপক্ষে ২৬ জনের নিহত হওয়ার ঘটনার পর নগরীর বাণিজ্যিক ভবনগুলোর নিরাপত্তা যাচাইয়ের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছিল। রাজউকের ২৪টি টিম গত দুই সপ্তাহে ২০০টির মতো বহুতল ভবন পরিদর্শন শেষ করে সরকারের কাছে যে প্রতিবেদন দিয়েছে, তাতে বহু ভবনেই নিরাপত্তার নানাবিধ ঘাটতির কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম বলেছেন, বহুতল ভবনগুলোর নির্মাণসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে নানা অনিয়ম পাওয়া গেছে। তিনি বলেন, ‘আমাদের ২৪টি পরিদর্শন টিম ঢাকার অধিকাংশ বহুতল ভবন পরিদর্শন করে বিভিন্ন ত্রুটি-বিচ্যুতি, নিয়ম-অনিয়মকে বিশ্লেষণ করে রিপোর্ট দাখিল করেছে। আমরা এ রিপোর্টগুলোর ভেতর থেকে তিনটি ক্যাটাগরিতে আলাদা আলাদাভাবে বাছাই করছি।’

মন্ত্রী বলেন, প্রথমত যারা অনুমোদন ছাড়া বহুতল বা ঊর্ধ্বমুখী ভবন নির্মাণ করেছেন, সে বিষয়টিকে চিহ্নিত করেছি। কোনো কোনো ভবনে অগ্নিনির্বাপক ব্যবস্থা নেই। কোনো কোনো ভবনে জরুরি বের হওয়ার রাস্তায় সমন্বয় নেই। কোনো কোনো ভবনে পাওয়া গেছে, যেখানে গাড়ি রাখার গ্যারেজ থাকার কথা সেখানে তারা গ্যারেজের জায়গাটা বন্ধ করে অন্যান্য বাণিজ্যিক স্থাপনা করেছেন। কতগুলো বহুতল ভবন পরিদর্শন করে এ প্রতিবেদন করা হয়েছে, আর তাতে অনিয়মের মাত্রা কতটা পাওয়া গেছে? এসব প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, বহুতল ভবন বলতে ১০ তলার ঊর্ধ্বে যেসব ভবন, সেগুলোর দুই শতাধিক ভবন পরিদর্শনের রিপোর্ট ইতিমধ্যে এসেছে। আরও কয়েকটি টিম এখনও রিপোর্ট দাখিল করেনি। তাতে ভবন পরিদর্শনের সংখ্যা আরও বাড়বে।

পূর্তমন্ত্রী উল্লেখ করেছেন, পরিদর্শন করা দুই শতাধিক ভবনের অধিকাংশ ভবনই কোনো কোনো ক্ষেত্রে গুরুতর, কোনো কোনো ক্ষেত্রে অল্প পরিসরে হলেও নকশার পরিবর্তন ঘটিয়ে নির্মাণ করা হয়েছে এবং বিল্ডিং কোডে যেসব বিষয় ইমারতে থাকার কথা, সেগুলো যে অবস্থায় থাকার কথা, সে অবস্থায় পাওয়া যায়নি।

নগরীর বাণিজ্যিক ভবনগুলোর অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থায় যে ঘাটতি আছে, সেটা উদ্বেগজনক বলেই বিশেষজ্ঞরা বলছেন। দমকল বাহিনীও বাণিজ্যিক ভবনগুলোর অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থা পরীক্ষা করে দেখেছে। এ বাহিনীর একজন কর্মকর্তা মেজর শাকিল নেওয়াজ জানিয়েছেন, নগরীর ৯৫% থেকে ৯৬% বাণিজ্যিক ভবনে অগ্নিনিরাপত্তার ক্ষেত্রে ঝুঁকিপূর্ণ বলে তারা দেখেছেন। বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) অধ্যাপক ইশরাত ইসলাম বলছিলেন, কর্তৃপক্ষ সদিচ্ছা দেখালেই অগ্নিনির্বাপণ ব্যবস্থায় ঘাটতি দ্রুত দূর করা যেতে পারে। কিন্তু ভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে অনিয়ম বা ব্যত্যয় ঘটে গেছে, কঠোর সিদ্ধান্ত ছাড়া সেগুলো ঝুঁকিমুক্ত করা সম্ভব হবে না বলে তিনি মনে করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×