টঙ্গীতে গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার : আটক ৩

  ঢাকা (উত্তর) প্রতিনিধি ২৫ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

টঙ্গীর পাগাড় এলাকা থেকে এক গৃহবধূর গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশ। মঙ্গলবার দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে ঘরের দরজা ভেঙে মেঝ থেকে নূরজাহান বেগম (৩৪) নামে ওই গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের স্বামী জহিরুল ইসলাম, দোকানের কর্মচারী রুবেল ও জহিরুল ইসলামের দ্বিতীয় স্ত্রী মরিয়ম বেগমকে আটক করা হয়েছে। নিহত নূরজাহান নোয়াখালী জেলার চাটখিল থানার মোল্লাপতন গ্রামের নূরুল হকের মেয়ে।

এলাকাবাসী জানান, নূরজাহান বেগম তার স্বামী মুদি ব্যবসায়ী জহিরুল ইসলামের সঙ্গে পাগাড় ফরিদ খান রোডের একটি ভাড়া বাড়িতে বসবাস করতেন। জহিরুল ইসলাম আগে আরও দুটি বিয়ে করেছেন। কিছুদিন ধরে স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে সাংসারিক বিভিন্ন বিষয়াদি নিয়ে কলহ চলে আসছিল। মঙ্গলবার দিনভর এ নিয়ে স্বামীর সঙ্গে কথা কাটাকাটি হয় নূরজাহান বেগমের। রাতে বাসায় ফিরে স্বামী জহিরুল ইসলাম দরজা খোলার জন্য বাসার কলিংবেল চাপলেও ভেতর থেকে কোনো সাড়াশব্দ না পেয়ে আশপাশের ভাড়াটিয়াদের বিষয়টি জানান। পরে বাড়ির মালিক পুলিশকে খবর দেন। খবর পেয়ে টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের এসআই মেজবাহ উদ্দিন ঘটনাস্থলে পৌঁছে দরজা ভেঙে ঘরের মেঝ থেকে নূরজাহান বেগমের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেন। বুধবার সকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সিআইডির ক্রাইমসিন ইউনিট। লাশের ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়।

টঙ্গী পূর্ব থানা পুলিশের ওসি কামাল হোসেন জানান, দরজা ভেঙে ঘরের মেঝে থেকে নূরজাহান বেগম নামে এক গৃহবধূর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। ঘরের অপর একটি কক্ষের সিলিং ফ্যানের সঙ্গে ওড়না ঝুলানো ছিল। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে, ফাঁসি নিতে ব্যর্থ হয়ে তিনি ধারালো দা দিয়ে নিজের গলা কেটে আত্মহত্যা করেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×