মেডিকেল অফিসার নিয়োগ পরীক্ষা

ফল বাতিলের দাবিতে বিএসএমএমইউ-তে বিক্ষোভ অব্যাহত

  যুগান্তর রিপোর্ট ১৬ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বিক্ষোভ

মেডিকেল অফিসার পদে নিয়োগ পরীক্ষার ফল বাতিল ও ভিসির পদত্যাগের দাবিতে গত দুইদিনের মতো বুধবারও উত্তপ্ত ছিল বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) ক্যাম্পাস। বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা দুপুর ১২টার দিকে ভিসির কার্যালয়ের সামনে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করেন।

বেলা ১১টা থেকে ক্যাম্পাসে জড়ো হতে থাকেন চিকিৎসকরা। এরপর তারা ভিসির সঙ্গে দেখা করতে যান। ভিসির ব্লাকের সামনের গেট বন্ধ থাকায় এবং অতিরিক্ত পুলিশ ও আনসার মোতায়ন থাকায় তারা সেখানে বসেই স্লোগান দিতে থাকেন। এর পর তারা প্রোক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদের সঙ্গে দেখা করে তাদের ক্ষোভের কথা জানান।

বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা যুগান্তরকে জানান, আমরা আজও ভিসির দেখা পাইনি। তিনি দেখা করার কথা বলেও দেখা দিচ্ছেন না। এটি রহস্যজনক। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, শনিবার সংবাদ সম্মেলন করে মেডিকেল অফিসার নিয়োগ পরীক্ষায় অনিয়মের কথা তুলে ধরব। এছাড়া অনিয়মের তথ্য প্রমাণ আদালতে উপস্থাপন করব।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রোক্টর অধ্যাপক ডা. সৈয়দ মোজাফফর আহমেদ যুগান্তরকে বলেন, বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকরা আমার সঙ্গে দেখা করেছেন। তারা তাদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে আমরা তাদের আবেগকে গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করছি।

প্রসঙ্গত, গত ২০ মার্চ অনুষ্ঠিত ১৮০ জন মেডিকেল অফিসার এবং ২০ জন ডেন্টাল সার্জন নিয়োগে লিখিত পরীক্ষর অনুষ্ঠিত হয়। এতে ৮ হাজার ৫৫৭ জন চিকিৎসক অংশগ্রহণ করেন। লিখিত পরীক্ষয় ৭১৯ জন মেডিকেল অফিসার ও ডেন্টালে ৮১ জন মিলে মোট ৮২০ জন উত্তীর্ণ হয়েছেন। চূড়ান্ত নিয়োগে ৫০ নম্বরের মৌখিক পরীক্ষ অনুষ্ঠিত হবে। তবে মৌখিক পরীক্ষার তারিখ এখনও চূড়ান্ত হয়নি। এই পরীক্ষায় অনিয়ম হয়েছে বলে বিক্ষুব্ধ চিকিৎসকদের অভিযোগ।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×