উদ্যোক্তাদের শেয়ার কম থাকলে ছাড় নয়

শেয়ারবাজারে অ্যালায়েন্স সিকিউরিটিজের সনদ বাতিল

প্রকাশ : ২২ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

সিকিউরিটিজ আইন ভঙ্গের দায়ে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সদস্য অ্যালায়েন্স সিকিউরিটিজের সনদ বাতিল করা হচ্ছে। একই সঙ্গে প্রতিষ্ঠানটিকে ৫ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) সভায় মঙ্গলবার এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এছাড়াও তালিকাভুক্ত কোম্পানিতে উদ্যোক্তা পরিচালকদের শেয়ার ধারণের ব্যাপারে কঠোর অবস্থান নিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক সাইফুর রহমান স্বাক্ষরিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়, প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক ও তাদের পরিবারের সদস্যদের বিও অ্যাকাউন্টে পর্যাপ্ত টাকা না থাকলে, তাদের টাকা তোলার সুযোগ দেয়া হয়েছে। এ ধরনের কাজ সিকিউরিটিজ আইনের লঙ্ঘন। একই সঙ্গে পরিচালক ও তাদের আত্মীয়দের বিধিবহির্ভূত ঋণ দিয়েছিল। এর আগে কমিশনের পক্ষ থেকে এটি সমন্বয়ের নির্দেশ দেয়া হয়েছিল। কিন্তু প্রতিষ্ঠানটি ওই নির্দেশনা মানেনি। এছাড়াও প্রতিষ্ঠানটি সমন্বিত গ্রাহক হিসাব থেকে ১২ কোটি ৯৭ লাখ ৩০ হাজার টাকা ডিলার হিসেবে স্থানান্তর করে তা থেকে স্থায়ী আমানত (এফডিআর) হিসেবে দেখিয়েছে। এছাড়া নীতিমালা লঙ্ঘন করে গ্রাহকদের কাছ থেকে ৫ লাখ টাকার ওপরে নগদ নিয়েছে। এসব কারণে বাজারের শৃঙ্খলা বজায় রাখা ও বিনিয়োগকারীদের স্বার্থে অ্যালায়েন্স সিকিউরিটিজ অ্যান্ড ম্যানেজমেন্টের বিরুদ্ধে নিবন্ধন সনদ বাতিলের জন্য সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

অন্যদিকে কোম্পানির উদ্যোক্তা পরিচালকদের শেয়ার ধারণের ক্ষেত্রে কঠোর অবস্থান নিয়েছে বিএসইসি। তালিকাভুক্ত কোনো কোম্পানিতে উদ্যোক্তা ও পরিচালকদের সম্মিলিতভাবে ন্যূনতম ৩০ শতাংশ শেয়ার না থাকলে ওই কোম্পানির কোনো উদ্যোক্তা বা পরিচালক এখন থেকে শেয়ার বিক্রি করতে পারবেন না। এমনকি কোনো শেয়ার হস্তান্তর বা ঋণ নেয়ার জন্য ব্যাংক বা আর্থিক প্রতিষ্ঠান বন্ধকও রাখতে পারবেন না। পাশাপাশি কোনো কোম্পানি অথবা প্রতিষ্ঠান কোনো কোম্পানির ২ শতাংশ বা তার বেশি শেয়ার ধারণ করলে সেই কোম্পানি বা প্রতিষ্ঠান ওই কোম্পানির পরিচালক পদের জন্য একজন ব্যক্তিকে মনোনীত করতে পারবে।