ধামরাইয়ে ইউপির টাকা আত্মসাৎ

দিনভর অবরুদ্ধ সচিব, পরে ফেরতের শর্তে মুক্ত

  ধামরাই (ঢাকা) প্রতিনিধি ০৪ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ঢাকার ধামরাই সদর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) জন্মনিবন্ধন সনদ, ট্রেড লাইসেন্স ও করের টাকা ক্যাশে জমা না করে আত্মসাতের অভিযোগে সোমবার সচিবকে ইউপি কার্যালয়ে অবরুদ্ধ করে রাখা হয়। ওই ইউপির সদস্যরাই তাকে পরিষদ কক্ষে অবরুদ্ধ করে রাখে। পরিষদের টাকা ফেরত দেয়ার শর্তে ওই ইউপি সচিব সোমবার রাত ১০টার দিকে মুক্তি পান। ঘটনাটি এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ইউপি সদস্য মো. ফারুক হোসেন মোল্লা জানান, ইউনিয়ন পরিষদের করের কয়েক লাখ টাকা ব্যাংকে কিংবা পরিষদের তহবিলে জমা না করে তা আত্মসাৎ করে ইউপি সচিব মো. মতিউল আলম। শুধু তাই নয়, ৩নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মো. আবদুল আলীম ও তার ভাতার টাকা না দিয়ে তা আত্মসাৎ করা হয়। এমনিভাবে পরিষদের জন্মনিবন্ধন সনদ, ট্রেড লাইসেন্স ও করের লাখ লাখ টাকা ব্যাংক ও পরিষদের ক্যাশে জমা না করে আত্মসাৎ করেছে। আমরা সদস্যরা হিসাব চাইলেই ইউপি চেয়ারম্যান সাহাবুদ্দিন ও সচিব নানা টালবাহানা করে আমাদেরকে কোনো হিসাব না দিয়ে উল্টো বিভিন্ন ধরনের হুমকি দিত। এরই পরিপেক্ষিতে ১২ জন ইউপি সদস্য সোমবার সকাল ১০টার দিকে তার কাছে যাই ও সমস্ত হিসাব দেয়ার অনুরোধ করি। তিনি হিসাব না দিয়ে উল্টো আমাদেরকে হুমকি দিলে আমরা তাকে অবরুদ্ধ করি। এমনিভাবে রাত ১০টা পর্যন্ত তাকে আটকে রাখি। পরে তিনি ও ইউপি চেয়ারম্যান পরিষদের সমস্ত টাকা ফেরত দেয়ার আশ্বাস দিলে তাকে মুক্তি দেয়া হয়। ইউপি সচিব মতিউল আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বিষয়টি আমরা নিজেদের মধ্যে মিটমাট করে ফেলব। ইউপি চেয়ারম্যান সাহাবুদ্দিন বলেন, এ ব্যাপারে আমি সম্পূর্ণ নির্দোষ। এর মধ্যে আমাকে জড়াবেন না। আমি বিষয়টি সদস্যদের সঙ্গে আলোচনা করে সমাধান করে দেব।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×