পুরান ঢাকায় ভবন ধস : বাবা-ছেলের লাশ উদ্ধার
jugantor
পুরান ঢাকায় ভবন ধস : বাবা-ছেলের লাশ উদ্ধার

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১৮ জুলাই ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর পাটুয়াটুলীতে পুরনো একটি দোতালা ভবন ধসে পড়েছে। এ ঘটনায় মো. জাহিদুল ইসলাম ব্যাপারী নামে এক ব্যক্তি ও তার ছেলে শফিকুল ইসলাম নিখোঁজ হন। পরে ফায়ার সার্ভিস তাদের লাশ উদ্ধার করে। পাটুয়াটুলী ছয় নম্বর লেনের দোতলা ভবনটি মঙ্গলবার গভীর রাতে ধসে পড়ে। খবর পেয়ে বুধবার দুপুরে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা বিভাগের পরিচালক দেবাশীষ বর্ধন যুগান্তরকে বলেন, দোতলা ভবনের পুরোটাই ধসে পড়েছে। ভবনটি জরাজীর্ণ ছিল।

ভবনটি পরিত্যক্ত হওয়ায় কোনো ভাড়াটিয়া না থাকলেও স্থানীয় ফুটপাতে কলা বিক্রেতা দুই বাবা-ছেলে ভবনটির দোতলা পরিষ্কার করে সেখানে রাত কাটাতেন। ঘটনার পর থেকে ওই দু’জন নিখোঁজ ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভবনটি পুরনো। ভবনের ছাদ নির্মাণ করা হয়েছে চুন-সুরকি দিয়ে। পুরো স্থাপনাটি নির্মাণে কোনো রড ব্যবহার করা হয়নি। এছাড়া ভবনটির আশপাশে কোনো জায়গা নেই, ভবনে যাওয়ার রাস্তাও খুব সরু। ফলে উদ্ধারকাজ চালাতে খুবই বেগ পেতে হচ্ছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কোতোয়ালি থানার ওসি সাইদুর রহমান জানান, পাটুয়াটুলীর পরিত্যক্ত ভবনটির মালিক মৃত আয়নাল হোসেন। জাহিদুলের গ্রামের বাড়ি মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার বাজিতপুর গ্রামে। তার বাবার নাম মৃত জয়নুদ্দিন ব্যাপারী। ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে বুধবার বেলা ১২টা থেকে ৩টি ইউনিট উদ্ধারকাজ শুরু করে। তিনি জানান, এ ঘটনার পর এলাকায় উৎসুক মানুষের সমাগম বেড়েছে। তবে উদ্ধারকাজে যেন ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকে লক্ষ রেখেছে পুলিশ। জাহিদুলের ভাই আরজ আলী জানান, তার ভাই ও ভাতিজা প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবারও ওই ভবনে ঘুমাতে যান। সকালে এসে দেখি তারা কোথাও নেই এবং তাদের মোবাইলফোনটিও বন্ধ। পরে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।

পুরান ঢাকায় ভবন ধস : বাবা-ছেলের লাশ উদ্ধার

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১৮ জুলাই ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর পাটুয়াটুলীতে পুরনো একটি দোতালা ভবন ধসে পড়েছে। এ ঘটনায় মো. জাহিদুল ইসলাম ব্যাপারী নামে এক ব্যক্তি ও তার ছেলে শফিকুল ইসলাম নিখোঁজ হন। পরে ফায়ার সার্ভিস তাদের লাশ উদ্ধার করে। পাটুয়াটুলী ছয় নম্বর লেনের দোতলা ভবনটি মঙ্গলবার গভীর রাতে ধসে পড়ে। খবর পেয়ে বুধবার দুপুরে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে ফায়ার সার্ভিস।

ফায়ার সার্ভিসের ঢাকা বিভাগের পরিচালক দেবাশীষ বর্ধন যুগান্তরকে বলেন, দোতলা ভবনের পুরোটাই ধসে পড়েছে। ভবনটি জরাজীর্ণ ছিল।

ভবনটি পরিত্যক্ত হওয়ায় কোনো ভাড়াটিয়া না থাকলেও স্থানীয় ফুটপাতে কলা বিক্রেতা দুই বাবা-ছেলে ভবনটির দোতলা পরিষ্কার করে সেখানে রাত কাটাতেন। ঘটনার পর থেকে ওই দু’জন নিখোঁজ ছিলেন। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভবনটি পুরনো। ভবনের ছাদ নির্মাণ করা হয়েছে চুন-সুরকি দিয়ে। পুরো স্থাপনাটি নির্মাণে কোনো রড ব্যবহার করা হয়নি। এছাড়া ভবনটির আশপাশে কোনো জায়গা নেই, ভবনে যাওয়ার রাস্তাও খুব সরু। ফলে উদ্ধারকাজ চালাতে খুবই বেগ পেতে হচ্ছে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কোতোয়ালি থানার ওসি সাইদুর রহমান জানান, পাটুয়াটুলীর পরিত্যক্ত ভবনটির মালিক মৃত আয়নাল হোসেন। জাহিদুলের গ্রামের বাড়ি মাদারীপুর জেলার রাজৈর থানার বাজিতপুর গ্রামে। তার বাবার নাম মৃত জয়নুদ্দিন ব্যাপারী। ঘটনার পর ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে বুধবার বেলা ১২টা থেকে ৩টি ইউনিট উদ্ধারকাজ শুরু করে। তিনি জানান, এ ঘটনার পর এলাকায় উৎসুক মানুষের সমাগম বেড়েছে। তবে উদ্ধারকাজে যেন ব্যাঘাত না ঘটে সেদিকে লক্ষ রেখেছে পুলিশ। জাহিদুলের ভাই আরজ আলী জানান, তার ভাই ও ভাতিজা প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবারও ওই ভবনে ঘুমাতে যান। সকালে এসে দেখি তারা কোথাও নেই এবং তাদের মোবাইলফোনটিও বন্ধ। পরে তাদের লাশ উদ্ধার করা হয়।