সিদ্ধিরগঞ্জে ভুয়া ডাক্তার ধরা পড়ছে র‌্যাবের হাতে

  সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ২৪ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভুয়া ডাক্তার

কেউ কেউ এসএসসি পাস। আবার কেউ কেউ এইচএসসি। শিক্ষার গণ্ডি বলতে এতটুকুনই। তবে তারা তাদেরকে পরিচয় দিত এমবিবিএস ডাক্তার হিসেবে। এমনকি অনেকে নিজেকে পরিচয় দিত বিশেষজ্ঞ ডাক্তার হিসেবেও।

মানুষের সরলতাকে পুঁজি করে ডাক্তার পরিচয়ের এ সব প্রতারক বছরের পর বছর এভাবেই চিকিৎসা দিয়ে আসছিল সিদ্ধিরগঞ্জে। তবে তাদের প্রতারণা ফাঁস হতে শুরু করেছে। র‌্যাব-১১ এর সদস্যরা একের পর এক অভিযান চালিয়ে এ সব স্বঘোষিত ডাক্তারকে গ্রেফতার করছে। তাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন র‌্যাব-১১ এর মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব।

৬ আগস্ট সিদ্ধিরগঞ্জের হিরাঝিল এলাকার সেবা মেডিকেল সেন্টার থেকে এমবিবিএস ডাক্তার পরিচয়দানকারী সবুজ ইসলাম সরকার (৩৮) নামে এক ভুয়া ডাক্তারকে আটক করে র‌্যাব। র‌্যাব জানায়, সবুজ ইসলাম সরকার ১৯৯৮ সালে এসএসসি ও ২০০১ সালে এইচএসসি পাস করেন। ২০০৯ সালে কলকাতার বারাসাতের বিসিবি মেডিকেল কলেজ থেকে এমবিবিএস পাস করেন বলে র‌্যাবের কাছে দাবি করলেও এর সপক্ষে কোনো কাগজ র‌্যাবকে দেখাতে পারেননি।

২৯ জুলাই সিদ্ধিরগঞ্জের শিমরাইলস্থ হক সুপার মার্কেট থেকে ভুয়া এমবিবিএস ডাক্তার মোস্তাক আহমেদ করিমকে আটক করে র‌্যাব-১১। এইচএসসি পাস করে একটি ওষুধের দোকানে চাকরি করতেন মোস্তাক আহমেদ করিম। তার নামের সঙ্গে মিল থাকা সরকারি নিবন্ধনকৃত (২৬৬৩৩ নং) ডা. মো. মোস্তাক আহমেদের কোড ব্যবহার করে নিজেকে এমবিবিএস (ডি-অর্থো) ডাক্তার পরিচয় দিয়ে রোগীদের প্রেসক্রিপশন দিয়ে গত ১৫ বছর ধরে রোগী দেখে আসছিলেন।

৮ জুলাই হিরাঝিলস্থ হাজী রজ্জব আলী সুপার মার্কেটস্থ ‘পপুলার হসপিটাল’ থেকে মো. কামাল হোসেন (৪৩) এবং মায়া বেগম (৩৬) নামে দুই ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১১। মো. কামাল হোসেন পপুলার হসপিটালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও মায়া বেগম চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন।

৮ মে রাতে সানারপাড় রহিম মার্কেট এলাকায় হেলথ কেয়ার আধুনিক হাসপাতাল অ্যান্ড ডায়াগনস্টিক সেন্টারে অভিযান চালিয়ে মো. তানভীর আহমেদ সরকার (৩৫) নামে এক ভুয়া ডাক্তারকে গ্রেফতার করেন ভ্রাম্যমাণ আদালত।

৪ এপ্রিল সিদ্ধিরগঞ্জের সাইনবোর্ড এলাকায় মো. নজরুল ইসলাম শেখ (২৭) নামের পাশে ‘এমবিবিএস, সনোলজিস্ট’ ডিগ্রি লিখে নিজেকে অভিজ্ঞ ডাক্তার পরিচয় দিয়ে ২ বছর ধরে প্রতারণা করে আসছিলেন রোগীদের সঙ্গে।

৫ ফেব্রুয়ারি সিদ্ধিরগঞ্জে এম হোসেন জেনারেল হাসপাতালে রোগী দেখার সময় ফাহামিদা আলম (২৫) নামে এক ভুয়া নারী ডাক্তারকে আটক করে।

র‌্যাব-১১ এর মেজর তালুকদার নাজমুছ সাকিব জানায়, মানুষের সরলতাকে পুঁজি করে কিছু কিছু অসাধু ব্যক্তি নিজেদের ডাক্তার পরিচয় দিয়ে রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা করে আসছে। তাদের বিরুদ্ধে আমাদের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×