স্বামী-স্ত্রীর জুটি এবং অসাধারণ জিকো
jugantor
স্বামী-স্ত্রীর জুটি এবং অসাধারণ জিকো

  স্পোর্টস রিপোর্টার  

১২ মার্চ ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বসুন্ধরা কিংস এএফসি কাপে নিজেদের অভিষেক ম্যাচে ৫-১ গোলের বড় জয় পেয়েছে। পাঁচ গোলের চারটিই করেছেন হার্নান বার্কোস। এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড চার গোল করলেও ম্যাচপরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকোর প্রশংসা করেছেন বসুন্ধরার স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোন। তার কথায়, ‘জিকো অসাধারণ গোলকিপার। একটি ম্যাচে তিনটি পেনাল্টি শট ঠেকানোর রেকর্ড বিশ্বে আছে কি না আমার জানা নেই। সে এটি করে দেখিয়েছে। গত মৌসুমে ফেডারেশন কাপে কোয়ার্টার ও সেমিফাইনালে সে কয়েকটি পেনাল্টি রুখে দিয়েছিল।’

মালদ্বীপের ক্লাব টিসি স্পোর্টসের কোচ মোহামেদ ফাজলি জিকোর গ্লাভসের শক্তিকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট মনে করছেন, ‘দ্বিতীয় গোলটি পেনাল্টি থেকে করতে পারলে ম্যাচের চিত্র বদলে যেতে পারত। কিন্তু গোলকিপার অসাধারণ সেভ করেছে। হলুদ কার্ড পাওয়ার পরেও সে মনোবল না হারিয়ে দুর্দান্তভাবে রুখে দিয়েছে।’ জিকোর পাশাপাশি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড বার্কোসের প্রশংসাও করেন টিসির কোচ, ‘সে দুর্দান্ত ফরোয়ার্ড। ফিনিশিং দক্ষতা অসাধারণ। তার কারণে ব্যবধান এত বড় হয়েছে।’ অস্কার ব্র“জোন বড় জয় প্রসঙ্গে বলেন, ‘আগে বলেছিলাম, আমরা সুযোগ পেলেও সেটা গোলে রূপান্তর করতে পারছি না। যার কারণে লিগে পয়েন্ট হারাতে হয়েছে। এই ম্যাচে অবশ্য আমার আশা পূরণ হয়েছে।’ বার্কোস ও দানিয়েল কলিন্দ্রেসের জুটিকে স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে তুলনা করে অস্কার বলেন, ‘তাদের জুটিটা খুব ভালো হয়েছে। অনেকটা স্বামী-স্ত্রীর মতো।’

এই ম্যাচে হারলেও মালেতে প্রতিশোধ নেয়ার বার্তা দিয়েছেন টিসির কোচ ফাজলে, ‘মালেতে আপনারা ভিন্ন টিসিকে দেখতে পাবেন।’ অন্যদিকে বসুন্ধরা কোচ জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চান, ‘আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোতে চাই। আমাদের লক্ষ্য গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফাইনালে খেলা।’ ই-গ্রুপে ভারতের চেন্নাইয়ান এফসিকে বড় প্রতিপক্ষ মনে করছেন অস্কার, ‘মাজিয়ার মানও হয়তো টিসির কাছাকাছি হবে। চেন্নাইয়ের ম্যাচটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। বড় ব্যবধানের জয় কোনো কার্যকর হবে না। কারণ হেড টু হেড আগে।’

স্বামী-স্ত্রীর জুটি এবং অসাধারণ জিকো

 স্পোর্টস রিপোর্টার 
১২ মার্চ ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বসুন্ধরা কিংস এএফসি কাপে নিজেদের অভিষেক ম্যাচে ৫-১ গোলের বড় জয় পেয়েছে। পাঁচ গোলের চারটিই করেছেন হার্নান বার্কোস। এই আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড চার গোল করলেও ম্যাচপরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকোর প্রশংসা করেছেন বসুন্ধরার স্প্যানিশ কোচ অস্কার ব্রুজোন। তার কথায়, ‘জিকো অসাধারণ গোলকিপার। একটি ম্যাচে তিনটি পেনাল্টি শট ঠেকানোর রেকর্ড বিশ্বে আছে কি না আমার জানা নেই। সে এটি করে দেখিয়েছে। গত মৌসুমে ফেডারেশন কাপে কোয়ার্টার ও সেমিফাইনালে সে কয়েকটি পেনাল্টি রুখে দিয়েছিল।’

মালদ্বীপের ক্লাব টিসি স্পোর্টসের কোচ মোহামেদ ফাজলি জিকোর গ্লাভসের শক্তিকেই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট মনে করছেন, ‘দ্বিতীয় গোলটি পেনাল্টি থেকে করতে পারলে ম্যাচের চিত্র বদলে যেতে পারত। কিন্তু গোলকিপার অসাধারণ সেভ করেছে। হলুদ কার্ড পাওয়ার পরেও সে মনোবল না হারিয়ে দুর্দান্তভাবে রুখে দিয়েছে।’ জিকোর পাশাপাশি আর্জেন্টাইন ফরোয়ার্ড বার্কোসের প্রশংসাও করেন টিসির কোচ, ‘সে দুর্দান্ত ফরোয়ার্ড। ফিনিশিং দক্ষতা অসাধারণ। তার কারণে ব্যবধান এত বড় হয়েছে।’ অস্কার ব্র“জোন বড় জয় প্রসঙ্গে বলেন, ‘আগে বলেছিলাম, আমরা সুযোগ পেলেও সেটা গোলে রূপান্তর করতে পারছি না। যার কারণে লিগে পয়েন্ট হারাতে হয়েছে। এই ম্যাচে অবশ্য আমার আশা পূরণ হয়েছে।’ বার্কোস ও দানিয়েল কলিন্দ্রেসের জুটিকে স্বামী-স্ত্রীর সঙ্গে তুলনা করে অস্কার বলেন, ‘তাদের জুটিটা খুব ভালো হয়েছে। অনেকটা স্বামী-স্ত্রীর মতো।’

এই ম্যাচে হারলেও মালেতে প্রতিশোধ নেয়ার বার্তা দিয়েছেন টিসির কোচ ফাজলে, ‘মালেতে আপনারা ভিন্ন টিসিকে দেখতে পাবেন।’ অন্যদিকে বসুন্ধরা কোচ জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে চান, ‘আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ এগোতে চাই। আমাদের লক্ষ্য গ্রুপ চ্যাম্পিয়ন হয়ে ফাইনালে খেলা।’ ই-গ্রুপে ভারতের চেন্নাইয়ান এফসিকে বড় প্রতিপক্ষ মনে করছেন অস্কার, ‘মাজিয়ার মানও হয়তো টিসির কাছাকাছি হবে। চেন্নাইয়ের ম্যাচটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। বড় ব্যবধানের জয় কোনো কার্যকর হবে না। কারণ হেড টু হেড আগে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন