ম্যারাডোনার সেই বাড়ি এখন জাদুঘর

  স্পোর্টস ডেস্ক ৩০ মে ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সেই বাড়ির দেয়ালে এখনও জড়িয়ে রয়েছে তার নিঃশ্বাস। স্বপ্ন দেখা শুরু সেই বাড়িতেই। তখনও তার স্বপ্নের মেঘ আবেগের আকাশে উড়ছে। দিয়েগো ম্যারাডোনা তখন টিনএজার।

আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েনস আয়ার্সের সেই বাড়ি এখন জাদুঘর। যেখানে তিনি ছিলেন ১৯৭৮ পর্যন্ত। স্বপ্নের রথে চড়ে ছিয়াশি বিশ্বকাপ আর্জেন্টিনাকে জেতালেন অধিনায়ক ম্যারাডোনা।

সারা দুনিয়ায় ছড়িয়ে পড়ে তার নাম। এ গ্রহের কোণে কোণে ফুটবলরসিকদের হৃদয়ে গেঁথে যান ১০ নম্বর জার্সি পরা এক ফুটবল লিজেন্ড।

’৮৬ বিশ্বকাপ জেতার আগে, নাপোলির হয়ে বারদুয়েক সেরি-এ লিগের খেতাব জয়ের আগে বুয়েনস আয়ার্সের সেই দুই তলা বাড়িতে ছিলেন ম্যারাডোনা। ১৯৭৮-এ বাড়িটি বুঝিয়ে দেয়া হয় ম্যারাডোনা ও তার পরিবারকে।

এখন সেই বাড়িটিই জাদুঘর। ভক্তরা সুযোগ পাবেন সেখানে ঢুঁ মেরে তাদের ফুটবলগুরুকে সম্মান জানানোর। জাদুঘরে ম্যারাডোনার ফুটবল স্মারক সাজিয়ে রাখা হয়েছে সযত্নে।

১৯৮১-তে ম্যারাডোনা বোকা জুনিয়র্সের হয়ে খেলতে যাওয়ার পর সেই বাড়িতে থাকতেন এক মহিলা। ২০০৮ সালে তার কাছ থেকে ৮২ হাজার পাউন্ডে বাড়িটি কিনে নেন আর্জেন্টিনা জুনিয়র দলের সাবেক কোচ আলবার্তো পেরেজ। তিনি বলেছেন, ‘দিয়েগো যতদিন এই বাড়িতে ছিল সেটাই সম্ভবত ওর জীবনের সবচেয়ে রোমান্টিক সময়।’

পেরেজ ম্যারাডোনার পুরনো বাড়ির সব ফার্নিচার এবং গৃহসামগ্রী রেখে দিয়েছেন জাদুঘরে। সেই সঙ্গে পিয়ানো, যেটি বাজাতে ভীষণ ভালো লাগত তার। জাদুঘরে প্রবেশ করা মাত্র দর্শনার্থী অনুভব করবেন ম্যারাডোনার উপস্থিতি। সেটাই তো স্বাভাবিক!

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত