মুন্সীগঞ্জ আইনজীবী সমিতির পাল্টাপাল্টি কমিটি
jugantor
মুন্সীগঞ্জ আইনজীবী সমিতির পাল্টাপাল্টি কমিটি

  যুগান্তর রিপোর্ট, মুন্সীগঞ্জ  

১০ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনার কারণে মুন্সীগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় সাধারণ সভায় কমিটির মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়িয়ে দেয়ায় পাল্টা ৯ সদস্যের এডহক কমিটি ঘোষণা করেছে আইনজীবীদের একটি অংশ। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কমিটির বৈধতা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পরেছে উভয় কমিটি। যা সমিতির দীর্ঘদিনের ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় আঘাত হানে বলে মনে করেন আইনজীবীরা।

এদিকে অফিস সহকারীর কাছ থেকে জোর করে ওকালতনামা নিয়ে সভাপতি, সম্পাদকের স্বাক্ষরের স্থলে স্বাক্ষর করায় এডহক কমিটির আহ্বায়ককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে পূর্ণাঙ্গ কমিটি। উল্লেখ্য, ৩০ জুন নির্দিষ্ট তারিখে নির্বাচন দিতে না পারায় জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী কমিটি ২৫ জুন সাধারণ সভা আহ্বান করে। সে সভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের কণ্ঠ ভোটে কার্যকরী কমিটির মেয়াদ আগামী তিন মাসের জন্য বাড়িয়ে দেয়া হয়। অপরদিকে মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে ১ জুলাই সকালে পিপি আবদুল মতিনের নেতৃত্বে আইনজীবীরা এক তলবি সভা ডেকে আবদুল মতিনকে আহ্বায়ক করে পাল্টা এডহক কমিটি ঘোষণা করে। জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আমান উল্লাহ প্রধান শাহিন জানান, সমিতির সাধারণ সভায় দলমত নির্বিশেষে সিনিয়র আইনজীবীসহ অধিকাংশ সদস্যদের সমর্থনে কার্যকরী কমিটির মেয়াদ তিন মাস বর্ধিত করে। এ সিদ্ধান্তে কারও কারও দ্বিমত থাকতেই পারে। সংখ্যাগরিষ্ঠরা যে সিদ্ধান্ত দেবে তার বাইরে সংখ্যালঘিষ্ঠরা যেতে পারে না।

মুন্সীগঞ্জ আইনজীবী সমিতির পাল্টাপাল্টি কমিটি

 যুগান্তর রিপোর্ট, মুন্সীগঞ্জ 
১০ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনার কারণে মুন্সীগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির নির্বাচনের মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় সাধারণ সভায় কমিটির মেয়াদ আরও তিন মাস বাড়িয়ে দেয়ায় পাল্টা ৯ সদস্যের এডহক কমিটি ঘোষণা করেছে আইনজীবীদের একটি অংশ। গঠনতন্ত্র অনুযায়ী কমিটির বৈধতা নিয়ে প্রশ্নের মুখে পরেছে উভয় কমিটি। যা সমিতির দীর্ঘদিনের ঐতিহ্যের ধারাবাহিকতায় আঘাত হানে বলে মনে করেন আইনজীবীরা।

এদিকে অফিস সহকারীর কাছ থেকে জোর করে ওকালতনামা নিয়ে সভাপতি, সম্পাদকের স্বাক্ষরের স্থলে স্বাক্ষর করায় এডহক কমিটির আহ্বায়ককে কারণ দর্শানোর নোটিশ দিয়েছে পূর্ণাঙ্গ কমিটি। উল্লেখ্য, ৩০ জুন নির্দিষ্ট তারিখে নির্বাচন দিতে না পারায় জেলা আইনজীবী সমিতির কার্যকরী কমিটি ২৫ জুন সাধারণ সভা আহ্বান করে। সে সভায় সংখ্যাগরিষ্ঠ সদস্যের কণ্ঠ ভোটে কার্যকরী কমিটির মেয়াদ আগামী তিন মাসের জন্য বাড়িয়ে দেয়া হয়। অপরদিকে মেয়াদ বাড়ানোর সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করে ১ জুলাই সকালে পিপি আবদুল মতিনের নেতৃত্বে আইনজীবীরা এক তলবি সভা ডেকে আবদুল মতিনকে আহ্বায়ক করে পাল্টা এডহক কমিটি ঘোষণা করে। জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আমান উল্লাহ প্রধান শাহিন জানান, সমিতির সাধারণ সভায় দলমত নির্বিশেষে সিনিয়র আইনজীবীসহ অধিকাংশ সদস্যদের সমর্থনে কার্যকরী কমিটির মেয়াদ তিন মাস বর্ধিত করে। এ সিদ্ধান্তে কারও কারও দ্বিমত থাকতেই পারে। সংখ্যাগরিষ্ঠরা যে সিদ্ধান্ত দেবে তার বাইরে সংখ্যালঘিষ্ঠরা যেতে পারে না।