একদিনে ডিএসইর বাজারমূলধনে যোগ হল ১২ হাজার কোটি টাকা
jugantor
শেয়ারবাজার
একদিনে ডিএসইর বাজারমূলধনে যোগ হল ১২ হাজার কোটি টাকা

  যুগান্তর রিপোর্ট  

১০ আগস্ট ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনার মধ্যেও শেয়ারবাজারে বড় ধরনের উত্থান হয়েছে। একদিনে রোববার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মূল্যসূচক প্রায় ২শ’ পয়েন্ট বেড়েছে। এর ফলে বাজারমূলধনে যোগ হয়েছে ১২ হাজার কোটি টাকা। আর এর সুবাদে ৬ মাস আগের অবস্থানে চলে গেছে মূল্যসূচক ও বাজারমূলধন। এছাড়াও ডিএসইতে ১ হাজার ১২৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর পরিচালক মো. রকিবুর রহমান সিঙ্গাপুর থেকে টেলিফোনে রোববার যুগান্তরকে বলেন, আমরা সম্মিলিতভাবে বাজারকে এগিয়ে নিচ্ছি। সবাই একসঙ্গে কাজ করলে বাজার টেকসই হবে। তিনি বলেন, বাজারে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা জরুরি। আর এ লক্ষ্যে কাজ করছে বর্তমান কমিশন। ডিএসইও এক্ষেত্রে সহায়তা করছে। বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ডিএসইতে রোববার ৩৫৫টি কোম্পানির ৪৩ কোটি ৬ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ১ হাজার ১২৮ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। এর এ লেনদেন গত এক বছর ৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে গত বছরের ২৮ জানুয়ারি ডিএসইতে ১ হাজার ১৪৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল। তবে এর মধ্যে ইউনিভারকে গ্ল্যাক্সোর পুরো কোম্পানি কিনে নেয়ায় ২ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল। তবে এটি স্বাভাবিক লেনদেনের মধ্যে বিবেচিত হয় না। লেনদেন করা কোম্পানিগুলোর মধ্যে মঙ্গলবার দাম বেড়েছে ২৯৩টি কোম্পানির শেয়ারের, কমেছে ৪২টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টি কোম্পানির শেয়ার। ডিএসইর ব্রড সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৮০ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৫৪৫ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসই-৩০ মূল্যসূচক ৬৪ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৫৪০ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৪৭ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৫৮ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে বেড়ে ৩ লাখ ৪৫ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

সিএসই : চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে রোববার ২৭৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের ১ কোটি ৫৬ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ২৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২০৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, কমেছে ৩০টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ৪৮০ পয়েন্ট বেড়ে ১২ হাজার ৮৮২ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। সিএসই ৩০ মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ৩৭৪ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ১৬৯ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। সিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে বেড়ে ২ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

শীর্ষ দশ কোম্পানি : রোববার ডিএসইতে যে সব প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বেশি লেনদেন হয়েছে সেগুলো হল- স্কয়ার ফার্মা, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, বেক্সিমকো ফার্মা, সিঙ্গার বিডি, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল, বেক্সিমকো লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স, গ্রামীণফোন এবং ইন্দো-বাংলা ফার্মা।

শেয়ারবাজার

একদিনে ডিএসইর বাজারমূলধনে যোগ হল ১২ হাজার কোটি টাকা

 যুগান্তর রিপোর্ট 
১০ আগস্ট ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনার মধ্যেও শেয়ারবাজারে বড় ধরনের উত্থান হয়েছে। একদিনে রোববার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) মূল্যসূচক প্রায় ২শ’ পয়েন্ট বেড়েছে। এর ফলে বাজারমূলধনে যোগ হয়েছে ১২ হাজার কোটি টাকা। আর এর সুবাদে ৬ মাস আগের অবস্থানে চলে গেছে মূল্যসূচক ও বাজারমূলধন। এছাড়াও ডিএসইতে ১ হাজার ১২৮ কোটি টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে।

ডিএসইর পরিচালক মো. রকিবুর রহমান সিঙ্গাপুর থেকে টেলিফোনে রোববার যুগান্তরকে বলেন, আমরা সম্মিলিতভাবে বাজারকে এগিয়ে নিচ্ছি। সবাই একসঙ্গে কাজ করলে বাজার টেকসই হবে। তিনি বলেন, বাজারে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা জরুরি। আর এ লক্ষ্যে কাজ করছে বর্তমান কমিশন। ডিএসইও এক্ষেত্রে সহায়তা করছে। বাজার বিশ্লেষণে দেখা গেছে, ডিএসইতে রোববার ৩৫৫টি কোম্পানির ৪৩ কোটি ৬ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ১ হাজার ১২৮ কোটি ৬৪ লাখ টাকা। এর এ লেনদেন গত এক বছর ৭ মাসের মধ্যে সর্বোচ্চ। এর আগে গত বছরের ২৮ জানুয়ারি ডিএসইতে ১ হাজার ১৪৮ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল। তবে এর মধ্যে ইউনিভারকে গ্ল্যাক্সোর পুরো কোম্পানি কিনে নেয়ায় ২ হাজার ৫শ’ কোটি টাকা লেনদেন হয়েছিল। তবে এটি স্বাভাবিক লেনদেনের মধ্যে বিবেচিত হয় না। লেনদেন করা কোম্পানিগুলোর মধ্যে মঙ্গলবার দাম বেড়েছে ২৯৩টি কোম্পানির শেয়ারের, কমেছে ৪২টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ২০টি কোম্পানির শেয়ার। ডিএসইর ব্রড সূচক আগের দিনের চেয়ে ১৮০ পয়েন্ট বেড়ে ৪ হাজার ৫৪৫ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসই-৩০ মূল্যসূচক ৬৪ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৫৪০ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৪৭ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৫৮ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। ডিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে বেড়ে ৩ লাখ ৪৫ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

সিএসই : চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে রোববার ২৭৪টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের ১ কোটি ৫৬ লাখ শেয়ার লেনদেন হয়েছে। যার মোট মূল্য ২৬ কোটি ৭৮ লাখ টাকা। এর মধ্যে দাম বেড়েছে ২০৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ারের, কমেছে ৩০টি এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৩৭টি কোম্পানির শেয়ারের দাম। সিএসইর সার্বিক মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ৪৮০ পয়েন্ট বেড়ে ১২ হাজার ৮৮২ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। সিএসই ৩০ মূল্যসূচক আগের দিনের চেয়ে ৩৭৪ পয়েন্ট বেড়ে ১১ হাজার ১৬৯ পয়েন্টে উন্নীত হয়েছে। সিএসইর বাজারমূলধন আগের দিনের চেয়ে বেড়ে ২ লাখ ৭৫ হাজার কোটি টাকায় উন্নীত হয়েছে।

শীর্ষ দশ কোম্পানি : রোববার ডিএসইতে যে সব প্রতিষ্ঠানের শেয়ার বেশি লেনদেন হয়েছে সেগুলো হল- স্কয়ার ফার্মা, ব্রিটিশ আমেরিকান টোব্যাকো, বেক্সিমকো ফার্মা, সিঙ্গার বিডি, বাংলাদেশ সাবমেরিন ক্যাবল, বেক্সিমকো লিমিটেড, ব্র্যাক ব্যাংক, পাইওনিয়ার ইন্স্যুরেন্স, গ্রামীণফোন এবং ইন্দো-বাংলা ফার্মা।