বেইলি রোডে ‘নিশিকাব্য’ কাঁটাবনে ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’
jugantor
বেইলি রোডে ‘নিশিকাব্য’ কাঁটাবনে ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার  

২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাকালে নাট্যাঙ্গনকে গতিশীল করার লক্ষ্যে নাটকের দল ‘ব’ নাটুয়া তাদের নিজস্ব প্রযোজনা নিয়ে এগিয়ে এসেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় নাটকসরণিখ্যাত বেইলি রোডের মহিলা সমিতির মিলনায়তনে দলটি মঞ্চায়ন করে তাদের নিয়মিত প্রযোজনার নাটক ‘নিশিকাব্য’। মুহম্মদ জাফর ইকবালের ছোটগল্প ‘মধ্যরাত্রিতে তিনজন দুর্ভাগা তরুণ’ এর ছায়া অবলম্বনে ‘নিশিকাব্য’ নাটকটি মূলত মনোবৈকল্যের গল্প।

মঈন উদ্দিন পাঠান রচিত এই নাটকটির নির্দেশনায় ছিলেন আবদুল মমিন।

এক রাতে পার্কের আলো-আঁধারে গল্পটি লেখা হয়। নিশিকাব্য লিখতে বসেন এক সাইকোপ্যাথ। যার কোনো অভাব নেই। দিন বলতে কিছু নেই। দিনটা সে ঘুমিয়ে কাটায়। যেহেতু প্রচলিত যাপনে সে অনভ্যস্ত, তাই রাতের সময় কাটানো তার জীবনের একমাত্র লক্ষ্য হয়ে ওঠে। রাত কাটানোর প্রথম প্রহরই নিশিকাব্য নাটকের সূচনাকাল। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সাইকোপ্যাথের সঙ্গী হয় একজন বেকার আর একজন প্রেমিক। বেকার যে কিনা ট্রেন মিস করে রাতটা কাটানোর জন্য পার্কে এসেছিল। প্রেমিকা অন্যের হাত ধরে বিদেশ চলে যাওয়ার খবর জানতে পেরে প্রেমিক দড়ি হাতে পার্কে এসেছিল আত্মহত্যা করতে। সাইকোপ্যাথ, বেকার ও প্রেমিক এই তিনজন মিলে নানা ঘটনা-দুর্ঘটনার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায়। কাকতালীয়ভাবে তাদের দেখা হতে থাকে কবি, নিশিকন্যা, সন্ত্রাসী ও নৈশপ্রহরীর সঙ্গে। গল্পে রাতটা কাটানোর জন্য একটা উপকরণের দরকার পড়ে। সাইকোপ্যাথ উপকরণ হিসেবে ধরে আনে পথশিশু আবুলকে। আবুল ঘুড়ি ওড়াতে ভালোবাসে। লাল ঘুড়ি তার সবচেয়ে প্রিয়। শুরু হয় নিশিকাব্য নাটকের চরিত্রগুলোর অনিশ্চিত যাত্রা। এভাবেই এগিয়ে যায়

নাটকটির কাহিনী।

বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- সাজেদ বিন সাজিদ, তারিফ হোসাইন, রাইয়ান অনাবিল, আবদুল মমিন, আবির হোসাইন, সুমাইয়া স্মৃতি, তামিম হোসেন, ফারহান ইশরাক, রিওন সাকিব, ইব্রাহিম মোরশেদ, শ্রাবণ গোমেজ প্রমুখ।

অন্যদিকে একই সময়ে ‘মহলা মগন’ উঠান নাটকের মেলায় নাটকের দল প্রাচ্যনাট তাদের কাঁটাবনের মহড়া কক্ষে মঞ্চায়ন করে ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’।

গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেসের উপন্যাস অবলম্বনে নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন মো. শওকত হোসেন সজিব ও কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন নির্দেশিত ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’র দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন ও প্রজ্ঞা তাসনুভা রূবাইয়াৎ।

একই মঞ্চে আজ শনিবার নাটকটির দ্বিতীয় মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হবে।

বেইলি রোডে ‘নিশিকাব্য’ কাঁটাবনে ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’

 সাংস্কৃতিক রিপোর্টার 
২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

করোনাকালে নাট্যাঙ্গনকে গতিশীল করার লক্ষ্যে নাটকের দল ‘ব’ নাটুয়া তাদের নিজস্ব প্রযোজনা নিয়ে এগিয়ে এসেছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় নাটকসরণিখ্যাত বেইলি রোডের মহিলা সমিতির মিলনায়তনে দলটি মঞ্চায়ন করে তাদের নিয়মিত প্রযোজনার নাটক ‘নিশিকাব্য’। মুহম্মদ জাফর ইকবালের ছোটগল্প ‘মধ্যরাত্রিতে তিনজন দুর্ভাগা তরুণ’ এর ছায়া অবলম্বনে ‘নিশিকাব্য’ নাটকটি মূলত মনোবৈকল্যের গল্প।

মঈন উদ্দিন পাঠান রচিত এই নাটকটির নির্দেশনায় ছিলেন আবদুল মমিন।

এক রাতে পার্কের আলো-আঁধারে গল্পটি লেখা হয়। নিশিকাব্য লিখতে বসেন এক সাইকোপ্যাথ। যার কোনো অভাব নেই। দিন বলতে কিছু নেই। দিনটা সে ঘুমিয়ে কাটায়। যেহেতু প্রচলিত যাপনে সে অনভ্যস্ত, তাই রাতের সময় কাটানো তার জীবনের একমাত্র লক্ষ্য হয়ে ওঠে। রাত কাটানোর প্রথম প্রহরই নিশিকাব্য নাটকের সূচনাকাল। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে সাইকোপ্যাথের সঙ্গী হয় একজন বেকার আর একজন প্রেমিক। বেকার যে কিনা ট্রেন মিস করে রাতটা কাটানোর জন্য পার্কে এসেছিল। প্রেমিকা অন্যের হাত ধরে বিদেশ চলে যাওয়ার খবর জানতে পেরে প্রেমিক দড়ি হাতে পার্কে এসেছিল আত্মহত্যা করতে। সাইকোপ্যাথ, বেকার ও প্রেমিক এই তিনজন মিলে নানা ঘটনা-দুর্ঘটনার মধ্য দিয়ে এগিয়ে যায়। কাকতালীয়ভাবে তাদের দেখা হতে থাকে কবি, নিশিকন্যা, সন্ত্রাসী ও নৈশপ্রহরীর সঙ্গে। গল্পে রাতটা কাটানোর জন্য একটা উপকরণের দরকার পড়ে। সাইকোপ্যাথ উপকরণ হিসেবে ধরে আনে পথশিশু আবুলকে। আবুল ঘুড়ি ওড়াতে ভালোবাসে। লাল ঘুড়ি তার সবচেয়ে প্রিয়। শুরু হয় নিশিকাব্য নাটকের চরিত্রগুলোর অনিশ্চিত যাত্রা। এভাবেই এগিয়ে যায়

নাটকটির কাহিনী।

বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন- সাজেদ বিন সাজিদ, তারিফ হোসাইন, রাইয়ান অনাবিল, আবদুল মমিন, আবির হোসাইন, সুমাইয়া স্মৃতি, তামিম হোসেন, ফারহান ইশরাক, রিওন সাকিব, ইব্রাহিম মোরশেদ, শ্রাবণ গোমেজ প্রমুখ।

অন্যদিকে একই সময়ে ‘মহলা মগন’ উঠান নাটকের মেলায় নাটকের দল প্রাচ্যনাট তাদের কাঁটাবনের মহড়া কক্ষে মঞ্চায়ন করে ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’।

গ্যাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেসের উপন্যাস অবলম্বনে নাটকটির নাট্যরূপ দিয়েছেন মো. শওকত হোসেন সজিব ও কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন নির্দেশিত ‘কর্নেলকে কেউ চিঠি লেখে না’র দুটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন কাজী তৌফিকুল ইসলাম ইমন ও প্রজ্ঞা তাসনুভা রূবাইয়াৎ।

একই মঞ্চে আজ শনিবার নাটকটির দ্বিতীয় মঞ্চায়ন অনুষ্ঠিত হবে।