সম্মাননা পেলেন সেলিম আল দীন ও সৈয়দ জামিল আহমেদ

প্রকাশ : ০৬ এপ্রিল ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  সাংস্কৃতিক রিপোর্টার

শিল্পকলা একাডেমিতে শুরু হয়েছে সৈয়দ বদরুদ্দীন হোসাইন স্মৃতি নাট্যোৎসব। পদাতিক নাট্য সংসদ (টিএসসি) আয়োজিত পাঁচদিনের এ উৎসবের উদ্বোধনী দিনে সম্মাননা জানানো হয় দেশের নাট্যাঙ্গনের দুই বিজ্ঞজন প্রয়াত সেলিম আল দীন ও অধ্যাপক সৈয়দ জামিল আহমেদকে। শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সৈয়দ জামিল আহমেদ এবং সেলিম আল দীনের প্রতিনিধি গ্রাম থিয়েটার যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার আগারওয়ালের হাতে সম্মাননা তুলে দেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী। একই সঙ্গে তিনি শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে ও পরীক্ষণ থিয়েটার হলে অনুষ্ঠিত এ নাট্যোৎসবেরও উদ্বোধন করেন।

এই আয়োজনে বিশেষ অতিথি ছিলেন বিশ্ব আইটিআইয়ের সাম্মানিত সভাপতি রামেন্দু মজুমদার, নাট্যজন মামুনুর রশীদ, শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী ও গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশানের সেক্রেটারি জেনারেল আকতারুজ্জামান। সভাপতিত্ব করেন পদাতিক নাট্য সংসদের সভাপতি সৈয়দ তাসনীন হোসাইন।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, যেকোনো বার্তা জনগণের কাছে সহজেই পৌঁছে দেয় মঞ্চনাটক। মঞ্চনাটক জীবন্ত, প্রাণবন্ত, শক্তিশালী মাধ্যম। আমাদের দেশের মঞ্চনাটকের অবস্থান নিয়ে আমরা গর্ববোধ করতে পারি। ঢাকা শহরের বিভিন্ন নাট্যমঞ্চ নির্মাণ করাটা খুব একটা কঠিন কাজ নয়। সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় উদ্যোগ নিলে এটা সম্ভব বলে মন্তব্য করে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শিল্প-সংস্কৃতির পৃষ্ঠপোষকতায় কাজ করছেন। তিনি এ বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখবেন বলেও আশা করেন। রামেন্দু মজুমদার বলেন, আজকের সংবর্ধিত দু’জনের হাত ধরে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে নাট্যকলা বিভাগ চালু হয়েছিল। দেশে একটি শিল্পকলানির্ভর বিশ্ববিদ্যালয় হওয়া উচিত। সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরের রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় ও ময়মনসিংহের ত্রিশালে জাতীয় কবি কাজী নজরুল বিশ্ববিদ্যালয়টিকে এগুলো প্রাধাণ্য দেয়া উচিত বলে তিনি মন্তব্য করেন।