টেকনিক্যাল পদে প্রশাসন ক্যাডার পদায়নে প্রকৃচির ক্ষোভ
jugantor
টেকনিক্যাল পদে প্রশাসন ক্যাডার পদায়নে প্রকৃচির ক্ষোভ

  যুগান্তর রিপোর্ট  

২৬ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সম্প্রতি প্রকৌশল, কৃষি ও স্বাস্থ্য খাতের বিভিন্ন কারিগরি পদে প্রশাসন ক্যাডারের নন-টেকনিক্যাল কর্মকর্তাদের পদায়ন করা হচ্ছে। যা দেশের জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা ও সরকারের উন্নয়ন রাজনীতির চিন্তাচেতনা বিরোধী। এসব পদায়নের ব্যাপারে গভীর ক্ষোভ ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে প্রকৌশলী-কৃষিবিদ-চিকিৎসক (প্রকৃচি) কেন্দ্রীয় স্টিয়ারিং কমিটি। রোববার সকালে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন-বিএমএ কার্যালয়ে ডা. এ কাশেম সভাকক্ষে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রকৃচি নেতারা এই উদ্বেগ প্রকাশ করেন। বিএমএ মহাসচিব ও প্রকৃচি সদস্য সচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। সভায় নেতারা বলেন, টেকনিক্যাল পদে প্রশাসন ক্যাডার পদায়ন দেশের উন্নয়ন পরিপন্থী। এতে রাজনৈতিক সরকার ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আন্তঃক্যাডার দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয় এমন কিছুই সরকার করবে না। প্রধানমন্ত্রীর এমন অনুশাসন থাকার পরও প্রশাসনের বর্তমান কার্যকলাপ অব্যহত থাকলে প্রকৃচি তা মেনে নেবে না। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী দিনের করণীয় নির্ধারণে আইইবির সভাপতি প্রকৌশলী মো. নূরুল হুদাকে আহ্বায়ক এবং বিএমএ মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরীকে সদস্য সচিব করে প্রকৃচির নতুন স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই সভায় দেশের প্রতিটি জেলায় প্রকৃচির শাখা কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। আন্তঃক্যাডার বৈষম্য নিরসন এবং কৃত্যপেশাভিত্তিক প্রশাসন গঠনে যাবতীয় তথ্য-উপাত্ত নিয়ে আগামীতে করণীয় বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানানো হবে বলেও সভায় সিদ্ধান্ত হয়।

টেকনিক্যাল পদে প্রশাসন ক্যাডার পদায়নে প্রকৃচির ক্ষোভ

 যুগান্তর রিপোর্ট 
২৬ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সম্প্রতি প্রকৌশল, কৃষি ও স্বাস্থ্য খাতের বিভিন্ন কারিগরি পদে প্রশাসন ক্যাডারের নন-টেকনিক্যাল কর্মকর্তাদের পদায়ন করা হচ্ছে। যা দেশের জনগণের আশা-আকাঙ্ক্ষা ও সরকারের উন্নয়ন রাজনীতির চিন্তাচেতনা বিরোধী। এসব পদায়নের ব্যাপারে গভীর ক্ষোভ ও উদ্বেগ প্রকাশ করেছে প্রকৌশলী-কৃষিবিদ-চিকিৎসক (প্রকৃচি) কেন্দ্রীয় স্টিয়ারিং কমিটি। রোববার সকালে বাংলাদেশ মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন-বিএমএ কার্যালয়ে ডা. এ কাশেম সভাকক্ষে আয়োজিত এক মতবিনিময় সভায় প্রকৃচি নেতারা এই উদ্বেগ প্রকাশ করেন। বিএমএ মহাসচিব ও প্রকৃচি সদস্য সচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এই তথ্য নিশ্চিত করা হয়েছে। সভায় নেতারা বলেন, টেকনিক্যাল পদে প্রশাসন ক্যাডার পদায়ন দেশের উন্নয়ন পরিপন্থী। এতে রাজনৈতিক সরকার ক্ষতিগ্রস্ত হবে। আন্তঃক্যাডার দ্বন্দ্বের সৃষ্টি হয় এমন কিছুই সরকার করবে না। প্রধানমন্ত্রীর এমন অনুশাসন থাকার পরও প্রশাসনের বর্তমান কার্যকলাপ অব্যহত থাকলে প্রকৃচি তা মেনে নেবে না। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, আগামী দিনের করণীয় নির্ধারণে আইইবির সভাপতি প্রকৌশলী মো. নূরুল হুদাকে আহ্বায়ক এবং বিএমএ মহাসচিব ডা. মো. ইহতেশামুল হক চৌধুরীকে সদস্য সচিব করে প্রকৃচির নতুন স্টিয়ারিং কমিটি গঠন করা হয়েছে। এই সভায় দেশের প্রতিটি জেলায় প্রকৃচির শাখা কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত হয়। আন্তঃক্যাডার বৈষম্য নিরসন এবং কৃত্যপেশাভিত্তিক প্রশাসন গঠনে যাবতীয় তথ্য-উপাত্ত নিয়ে আগামীতে করণীয় বিষয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে দেশবাসীকে জানানো হবে বলেও সভায় সিদ্ধান্ত হয়।