‘ভ্যাকসিন মডেলিং’ করে টিকা আমদানির সুপারিশ
jugantor
জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে গবেষণা
‘ভ্যাকসিন মডেলিং’ করে টিকা আমদানির সুপারিশ

  ঢাবি প্রতিনিধি  

২৮ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সম্প্রতি দুই দফায় ভারত থেকে করোনা ভ্যাকসিন আমদানি করেছে বাংলাদেশ। ভ্যাকসিন আসার পর সাধারণ মানুষের মাঝে যেমন তৈরি হয়েছে আশা, তেমনি রয়েছে না পাওয়ার শঙ্কাও। এদিকে সম্প্রতি ভ্যাকসিন সম্পর্কে মানুষের চিন্তাভাবনা নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দেশের একদল গবেষক । এতে সবার জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিতের জন্য ‘ভ্যাকসিন মডেলিং’ করে টিকা আমদানির সুপারিশ করা হয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটে ‘কোভিড-১৯ টিকার প্রতি জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীর্ষক শিরোনামে তাদের গবেষণার ফল প্রকাশ করে। দেশের ৮টি বিভাগের ৮টি জেলা ও ১৬টি উপজেলা এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে পরিচালিত জরিপে ৩ হাজার ৫৬০ অংশগ্রহণকারী বাছাই করা হয়।

গবেষণায় বলা হয়, প্রায় ৮৪ শতাংশ লোক টিকা নিতে আগ্রহী। তবে বেশিরভাগ শুরুতেই নিতে প্রস্তুত নন। ৩২ শতাংশ লোক কার্যক্রম চালুর সঙ্গে সঙ্গে টিকা নিতে চান, ৫২ শতাংশ কয়েক সপ্তাহ থেকে কয়েক মাস অপেক্ষা করতে ইচ্ছুক।

জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে গবেষণা

‘ভ্যাকসিন মডেলিং’ করে টিকা আমদানির সুপারিশ

 ঢাবি প্রতিনিধি 
২৮ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

সম্প্রতি দুই দফায় ভারত থেকে করোনা ভ্যাকসিন আমদানি করেছে বাংলাদেশ। ভ্যাকসিন আসার পর সাধারণ মানুষের মাঝে যেমন তৈরি হয়েছে আশা, তেমনি রয়েছে না পাওয়ার শঙ্কাও। এদিকে সম্প্রতি ভ্যাকসিন সম্পর্কে মানুষের চিন্তাভাবনা নিয়ে গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে দেশের একদল গবেষক । এতে সবার জন্য ভ্যাকসিন নিশ্চিতের জন্য ‘ভ্যাকসিন মডেলিং’ করে টিকা আমদানির সুপারিশ করা হয়েছে। মঙ্গলবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইনস্টিটিউটে ‘কোভিড-১৯ টিকার প্রতি জনগণের দৃষ্টিভঙ্গি : প্রেক্ষিত বাংলাদেশ’ শীর্ষক শিরোনামে তাদের গবেষণার ফল প্রকাশ করে। দেশের ৮টি বিভাগের ৮টি জেলা ও ১৬টি উপজেলা এবং ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনে পরিচালিত জরিপে ৩ হাজার ৫৬০ অংশগ্রহণকারী বাছাই করা হয়।

গবেষণায় বলা হয়, প্রায় ৮৪ শতাংশ লোক টিকা নিতে আগ্রহী। তবে বেশিরভাগ শুরুতেই নিতে প্রস্তুত নন। ৩২ শতাংশ লোক কার্যক্রম চালুর সঙ্গে সঙ্গে টিকা নিতে চান, ৫২ শতাংশ কয়েক সপ্তাহ থেকে কয়েক মাস অপেক্ষা করতে ইচ্ছুক।