চীনা টিকার অনুমোদন দেয়নি বাংলাদেশ
jugantor
চীনা টিকার অনুমোদন দেয়নি বাংলাদেশ

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বন্ধু দেশ হিসাবে বাংলাদেশ এখনো চীনের উৎপাদিত কোনো করোনা টিকার অনুমোদন বা স্বীকৃতি দেয়নি। মঙ্গলবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকায় চীনের দূতাবাসের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, চীন বাংলাদেশসহ প্রাসঙ্গিক দেশগুলোর সঙ্গে টিকা সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করোনা মহামারির বিরুদ্ধে বিজয় অর্জনে অবদান রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। বাংলাদেশে অবস্থিত চায়না দূতাবাসের তথ্য কর্মকর্তা আসমা আক্তার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, চীন ৫৩টি উন্নয়নশীল দেশকে টিকা সহায়তা সরবরাহ করছে। একইসঙ্গে ২২টি দেশে টিকা রফতানি করছে। এর আগে চীন মূলত উন্নয়নশীল দেশগুলোর চাহিদা মেটাতে সহায়তা করতে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে ১০ মিলিয়ন টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যাতে করে দরিদ্র দেশগুলোকে টিকা দিয়ে সহায়তা করতে পারে চীন। এক্ষেত্রে চীন উন্নয়নশীল দেশে সাশ্রয়ী দামে টিকা দিতে প্রতিশ্র“তবদ্ধ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, টিকার ক্ষেত্রে চীনের সহযোগী মনোভাব থাকলেও বন্ধু দেশ হিসাবে বাংলাদেশ এখনো চীনা টিকাগুলো জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন বা স্বীকৃতি দেয়নি।

যদিও চীন বাংলাদেশসহ প্রাসঙ্গিক দেশগুলোর সঙ্গে টিকা সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে, তার সামর্থ্যরে মধ্যে সহায়তা প্রদান করতে এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করোনা মহামারির বিরুদ্ধে বিজয় অর্জনে অবদান রাখবে।

চীনা টিকার অনুমোদন দেয়নি বাংলাদেশ

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বন্ধু দেশ হিসাবে বাংলাদেশ এখনো চীনের উৎপাদিত কোনো করোনা টিকার অনুমোদন বা স্বীকৃতি দেয়নি। মঙ্গলবার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ঢাকায় চীনের দূতাবাসের পক্ষ থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে। সেখানে বলা হয়েছে, চীন বাংলাদেশসহ প্রাসঙ্গিক দেশগুলোর সঙ্গে টিকা সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করোনা মহামারির বিরুদ্ধে বিজয় অর্জনে অবদান রাখতে দৃঢ় প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। বাংলাদেশে অবস্থিত চায়না দূতাবাসের তথ্য কর্মকর্তা আসমা আক্তার সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছেন, চীন ৫৩টি উন্নয়নশীল দেশকে টিকা সহায়তা সরবরাহ করছে। একইসঙ্গে ২২টি দেশে টিকা রফতানি করছে। এর আগে চীন মূলত উন্নয়নশীল দেশগুলোর চাহিদা মেটাতে সহায়তা করতে কোভ্যাক্সের মাধ্যমে ১০ মিলিয়ন টিকা দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। যাতে করে দরিদ্র দেশগুলোকে টিকা দিয়ে সহায়তা করতে পারে চীন। এক্ষেত্রে চীন উন্নয়নশীল দেশে সাশ্রয়ী দামে টিকা দিতে প্রতিশ্র“তবদ্ধ।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, টিকার ক্ষেত্রে চীনের সহযোগী মনোভাব থাকলেও বন্ধু দেশ হিসাবে বাংলাদেশ এখনো চীনা টিকাগুলো জরুরি ব্যবহারের অনুমোদন বা স্বীকৃতি দেয়নি।

যদিও চীন বাংলাদেশসহ প্রাসঙ্গিক দেশগুলোর সঙ্গে টিকা সহযোগিতা অব্যাহত রাখতে, তার সামর্থ্যরে মধ্যে সহায়তা প্রদান করতে এবং যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করোনা মহামারির বিরুদ্ধে বিজয় অর্জনে অবদান রাখবে।