টিকা নেওয়ার পর করোনা আক্রান্তদের ৪ গুণ অ্যান্টিবডি
jugantor
গবেষণার তথ্য
টিকা নেওয়ার পর করোনা আক্রান্তদের ৪ গুণ অ্যান্টিবডি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৭ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

টিকা নেওয়ার পর যারা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছে তাদের শরীরে ৪ গুণ বেশি অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

রোগতত্ত্ব রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট-আইইডিসিআর এবং আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রের আইসিডিডিআর,বির গবেষণায় এই তথ্য পাওয়া গেছে।

আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ইউএসএআইডির কারিগরি সহায়তায় সম্প্রতি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা (কোভিশিল্ড) গ্রহীতাদের রক্তে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি সংক্রান্ত এই গবেষণা চালানো হয়।

গবেষণায় দেশের বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ৬ হাজার ৩০০ টিকা গ্রহণকারী অংশ নেয়। গবেষণার অংশ হিসাবে টিকা নেওয়ার পর দুই বছর রক্তে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পর্যালোচনা করা হবে।

গবেষণার প্রাথমিক ফলাফল পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ১২০ জন প্রথম ডোজ কোভিশিল্ড গ্রহণকারীর টিকা নেওয়ার এক মাস পর ৯২ শতাংশ ও দুই মাস পরে ৯৭ শতাংশের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

সব বয়সের টিকা গ্রহীতাদের শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পাওয়া গেছে। অন্যান্য অসুস্থতা (কো-মরবিডিটি) থাকা বা না থাকার অ্যান্টিবডির উপস্থিতির তেমন কোনো পার্থক্য পাওয়া যায়নি।

আইইডিসিআর’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্যে কোভিশিল্ড টিকা গ্রহণের পর শরীরে কোভিড-১৯ অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে। চলমান গবেষণার মাধ্যমে ভবিষ্যতে এই টিকা গ্রহীতাদের শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি সংক্রান্ত হালনাগাদ তথ্য পাওয়া যাবে।

গবেষণার তথ্য

টিকা নেওয়ার পর করোনা আক্রান্তদের ৪ গুণ অ্যান্টিবডি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৭ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

টিকা নেওয়ার পর যারা কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়েছে তাদের শরীরে ৪ গুণ বেশি অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

রোগতত্ত্ব রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট-আইইডিসিআর এবং আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্রের আইসিডিডিআর,বির গবেষণায় এই তথ্য পাওয়া গেছে।

আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থা ইউএসএআইডির কারিগরি সহায়তায় সম্প্রতি অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার টিকা (কোভিশিল্ড) গ্রহীতাদের রক্তে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি সংক্রান্ত এই গবেষণা চালানো হয়।

গবেষণায় দেশের বিভিন্ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রের ৬ হাজার ৩০০ টিকা গ্রহণকারী অংশ নেয়। গবেষণার অংশ হিসাবে টিকা নেওয়ার পর দুই বছর রক্তে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পর্যালোচনা করা হবে।

গবেষণার প্রাথমিক ফলাফল পর্যালোচনায় দেখা গেছে, ১২০ জন প্রথম ডোজ কোভিশিল্ড গ্রহণকারীর টিকা নেওয়ার এক মাস পর ৯২ শতাংশ ও দুই মাস পরে ৯৭ শতাংশের শরীরে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

সব বয়সের টিকা গ্রহীতাদের শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি পাওয়া গেছে। অন্যান্য অসুস্থতা (কো-মরবিডিটি) থাকা বা না থাকার অ্যান্টিবডির উপস্থিতির তেমন কোনো পার্থক্য পাওয়া যায়নি।

আইইডিসিআর’র পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বাংলাদেশি নাগরিকদের মধ্যে কোভিশিল্ড টিকা গ্রহণের পর শরীরে কোভিড-১৯ অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে। চলমান গবেষণার মাধ্যমে ভবিষ্যতে এই টিকা গ্রহীতাদের শরীরে অ্যান্টিবডির উপস্থিতি সংক্রান্ত হালনাগাদ তথ্য পাওয়া যাবে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ছড়িয়ে পড়ছে করোনাভাইরাস