না.গঞ্জের দুই বিনোদন পার্ক বন্ধ করল প্রশাসন
jugantor
না.গঞ্জের দুই বিনোদন পার্ক বন্ধ করল প্রশাসন
হাসপাতালের অর্ধশত দোকান উচ্ছেদ

  নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি  

১৮ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের দুটি বিনোদন পার্কে হাজারো মানুষের সমাগম ঠেকাতে মাঠে নেমেছে প্রশাসন। শহরের বরফকল এলাকার চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক এবং ফতুল্লার পঞ্চবটীর অ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড পার্কে অভিযান চালিয়ে পার্ক দুটি বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ তিনশ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের (করোনা হাসপাতাল) ভেতর ও সামনের রাস্তার অর্ধশত স্থায়ী ও অস্থায়ী দোকান গুঁড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন। রোববার রাতে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে অভিযান চালানো হয়।

ঈদের দিন বিকাল থেকে চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক এবং অ্যাডভেঞ্চার পার্কে স্বাস্থ্যবিধি ও লকডাউনের তোয়াক্কা না করে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমায়। এ বিষয়ে যুগান্তরে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে ঘুম ভাঙে প্রশাসনের। জেলা ও পুলিশ প্রশাসন অভিযান চালিয়ে পার্ক দুটি বন্ধ করে দেয়। করোনা হাসপাতালের পরিচালনা পরিষদের উদাসীনতা আর প্রশাসনের ঢিলেঢালা মনোভাবের কারণে এর ভেতরে ও বাইরে ঈদের দিন বিকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত এবং পরের দিনও হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। এ কারণে রোববার রাতে করোনা হাসপাতালের সামনের অস্থায়ী চটপটি, ফাস্টফুড ও চায়ের দোকান উচ্ছেদ করে প্রশাসন। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, করোনাযুদ্ধে কিভাবে জয়ী হওয়া যায়, কিভাবে মানুষকে সচেতন করা যায়- তা নিয়ে সরকারি কর্মকর্তারা দিন-রাত কাজ করছেন। তিনি আরও বলেন, নিজেদের ভালো নিজেরা না বুঝলে প্রশাসনের পক্ষে একা এ যুদ্ধে জয়ী হওয়া অসম্ভব। ফতুল্লার শিবুমার্কেট এলাকায় অবস্থিত নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল (নম) পার্কের স্বত্বাধিকারী ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা শাহ নিজাম বলেন, করোনায় দুই বছর ধরে আমরা ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়েছি। এরপরও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে আমরা পার্ক বন্ধ রেখেছি। অথচ সিটি করপোরেশনের মালিকানাধীন অ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড পার্কটি খোলা রাখা হয়।

না.গঞ্জের দুই বিনোদন পার্ক বন্ধ করল প্রশাসন

হাসপাতালের অর্ধশত দোকান উচ্ছেদ
 নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি 
১৮ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জের দুটি বিনোদন পার্কে হাজারো মানুষের সমাগম ঠেকাতে মাঠে নেমেছে প্রশাসন। শহরের বরফকল এলাকার চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক এবং ফতুল্লার পঞ্চবটীর অ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড পার্কে অভিযান চালিয়ে পার্ক দুটি বন্ধ করে দিয়েছে প্রশাসন। এছাড়া নারায়ণগঞ্জ তিনশ শয্যাবিশিষ্ট হাসপাতালের (করোনা হাসপাতাল) ভেতর ও সামনের রাস্তার অর্ধশত স্থায়ী ও অস্থায়ী দোকান গুঁড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন। রোববার রাতে ম্যাজিস্ট্রেটের উপস্থিতিতে অভিযান চালানো হয়।

ঈদের দিন বিকাল থেকে চৌরঙ্গী ফ্যান্টাসি পার্ক এবং অ্যাডভেঞ্চার পার্কে স্বাস্থ্যবিধি ও লকডাউনের তোয়াক্কা না করে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমায়। এ বিষয়ে যুগান্তরে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হলে ঘুম ভাঙে প্রশাসনের। জেলা ও পুলিশ প্রশাসন অভিযান চালিয়ে পার্ক দুটি বন্ধ করে দেয়। করোনা হাসপাতালের পরিচালনা পরিষদের উদাসীনতা আর প্রশাসনের ঢিলেঢালা মনোভাবের কারণে এর ভেতরে ও বাইরে ঈদের দিন বিকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত এবং পরের দিনও হাজার হাজার মানুষের সমাগম ঘটে। এ কারণে রোববার রাতে করোনা হাসপাতালের সামনের অস্থায়ী চটপটি, ফাস্টফুড ও চায়ের দোকান উচ্ছেদ করে প্রশাসন। এ ব্যাপারে জেলা প্রশাসক মোস্তাইন বিল্লাহ জানান, করোনাযুদ্ধে কিভাবে জয়ী হওয়া যায়, কিভাবে মানুষকে সচেতন করা যায়- তা নিয়ে সরকারি কর্মকর্তারা দিন-রাত কাজ করছেন। তিনি আরও বলেন, নিজেদের ভালো নিজেরা না বুঝলে প্রশাসনের পক্ষে একা এ যুদ্ধে জয়ী হওয়া অসম্ভব। ফতুল্লার শিবুমার্কেট এলাকায় অবস্থিত নাসিম ওসমান মেমোরিয়াল (নম) পার্কের স্বত্বাধিকারী ও মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা শাহ নিজাম বলেন, করোনায় দুই বছর ধরে আমরা ব্যাপক লোকসানের মুখে পড়েছি। এরপরও জাতির বৃহত্তর স্বার্থে আমরা পার্ক বন্ধ রেখেছি। অথচ সিটি করপোরেশনের মালিকানাধীন অ্যাডভেঞ্চার ল্যান্ড পার্কটি খোলা রাখা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন