টঙ্গীতে ছয় দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতি
jugantor
টঙ্গীতে ছয় দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

  টঙ্গী পূর্ব থানা প্রতিনিধি  

১৮ মে ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুরের টঙ্গী স্টেশন রোড এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে সোমবার মধ্য রাতে ছয় দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাতদের হামলায় দুজন নিরাপত্তা প্রহরী নয়ন ও জাফর আহত হয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, রাত আড়াইটার দিকে সংঘবদ্ধ একদল ডাকাত নিরাপত্তা প্রহরী নয়নকে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে পর্যায়ক্রমে ছয়টি দোকানের মালামাল লুট করে এবং ভোল্ট ও ক্যাশ ভেঙে টাকাপয়সা নিয়ে পালিয়ে যায়।

উত্তরা টায়ার অ্যান্ড ব্যাটারি শপের মালিক মো. আলমগীর হোসেন জানান, আমার দোকানের সব ব্যাটারি ও নতুন টায়ার নিয়ে গেছে। করোনাকালীন ব্যবসায়িক মন্দার ভেতর এ ঘটনায় আমি পথে বসে গেলাম।

ফিউচার স্টিলের মালিক মো. হুমায়ুন কবির জানান, আমার নিরাপত্তা প্রহরীকে মারধর করে দোকানের ভোল্ট ভেঙে দুই লাখ টাকা নিয়ে যায়।

টঙ্গী পূর্ব থানা ওসি মো. জাবেদ মাসুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার পর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পুলিশের একাদিক টিম বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

টঙ্গীতে ছয় দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

 টঙ্গী পূর্ব থানা প্রতিনিধি 
১৮ মে ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুরের টঙ্গী স্টেশন রোড এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের পাশে সোমবার মধ্য রাতে ছয় দোকানে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। এ সময় ডাকাতদের হামলায় দুজন নিরাপত্তা প্রহরী নয়ন ও জাফর আহত হয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, রাত আড়াইটার দিকে সংঘবদ্ধ একদল ডাকাত নিরাপত্তা প্রহরী নয়নকে রড দিয়ে বেধড়ক পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে পর্যায়ক্রমে ছয়টি দোকানের মালামাল লুট করে এবং ভোল্ট ও ক্যাশ ভেঙে টাকাপয়সা নিয়ে পালিয়ে যায়।

উত্তরা টায়ার অ্যান্ড ব্যাটারি শপের মালিক মো. আলমগীর হোসেন জানান, আমার দোকানের সব ব্যাটারি ও নতুন টায়ার নিয়ে গেছে। করোনাকালীন ব্যবসায়িক মন্দার ভেতর এ ঘটনায় আমি পথে বসে গেলাম।

ফিউচার স্টিলের মালিক মো. হুমায়ুন কবির জানান, আমার নিরাপত্তা প্রহরীকে মারধর করে দোকানের ভোল্ট ভেঙে দুই লাখ টাকা নিয়ে যায়।

টঙ্গী পূর্ব থানা ওসি মো. জাবেদ মাসুদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, ঘটনার পর পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ আমরা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। পুলিশের একাদিক টিম বিষয়টি নিয়ে কাজ করছে। এ ঘটনায় আইনগত ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন।

 

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন