ছেলের জন্য আইসিইউ ছেড়ে দেওয়া সেই মায়ের মৃত্যু
jugantor
চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল
ছেলের জন্য আইসিইউ ছেড়ে দেওয়া সেই মায়ের মৃত্যু

  চট্টগ্রাম ব্যুরো  

৩০ জুলাই ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে আইসিইউ সংকটে করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু মাকে আইসিইউ থেকে নামিয়ে তার জায়গায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে ছেলেকে। আইসিইউ থেকে নামানোর ৫-৬ ঘণ্টা পরই ওই মা মারা যান। অপরদিকে ছেলের অবস্থা সংকটাপন্ন বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার করোনা চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে।

জানা গেছে, নগরীর কোতোয়ালি থানার সিঅ্যান্ডবি কলোনি এলাকার কানন প্রভা পাল (৬৫) করোনায় আক্রান্ত হয়ে এ হাসপাতালে ভর্তি হন। প্রথমে তিনি আইসোলেশন ওয়ার্ডে ছিলেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউ ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। এদিকে মায়ের পর করোনা আক্রান্ত হয়ে এ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন ছেলে শিমুল পাল (৪৩)। একপর্যায়ে ছেলের অবস্থারও অবনতি ঘটে। প্রয়োজন হয় আইসিইউয়ের। কিন্তু শিমুলের জন্য কোথাও তা পাওয়া যাচ্ছিল না। উপায় না দেখে পরিবারের সদস্যদের অনুরোধে মাকে আইসিইউ থেকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। ছেলেকে নেওয়া হয় ওই আইসিইউতে।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের কনসালটেন্ট ও করোনা ইউনিটের প্রধান ডা. আবদুর রব যুগান্তরকে বলেন, মায়ের অবস্থা খারাপ ছিল। তিনি আইসিইউতে অচেতন অবস্থায় ছিলেন। পরিবারের সদস্যদের লিখিত অনুরোধে ওই ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এ হাসপাতালে ১৮ আইসিইউ বেডের কোনোটাই খালি নেই। প্রতিদিন ২৫-৩০ জন রোগী আইসিইউয়ের জন্য অপেক্ষায় থাকেন বলে জানান তিনি।

চট্টগ্রামে করোনার সর্বোচ্চ সংক্রমণ : এদিকে চট্টগ্রামে প্রতিদিনই করোনা শনাক্তের নতুন রেকর্ড হচ্ছে। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের দেওয়া বৃহস্পতিবারের তথ্য অনুযায়ী, আগের দিন ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৩১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একদিনের হিসাবে চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত এটাই সর্বোচ্চ সংক্রমণ। আক্রান্তদের মধ্যে ৮৫৮ জন নগরীর ও ৪৫৭ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। ৩ হাজার ৫১৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা ধরা পড়ে। এদিন করোনায় মৃত্যু হয় ১৭ জনের। দুদিন আগে চট্টগ্রামে সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছিল ৩১০ জন। ওইদিন ১৮ জন মারা যান।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতাল

ছেলের জন্য আইসিইউ ছেড়ে দেওয়া সেই মায়ের মৃত্যু

 চট্টগ্রাম ব্যুরো 
৩০ জুলাই ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

চট্টগ্রামে আইসিইউ সংকটে করোনা আক্রান্ত মুমূর্ষু মাকে আইসিইউ থেকে নামিয়ে তার জায়গায় চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে ছেলেকে। আইসিইউ থেকে নামানোর ৫-৬ ঘণ্টা পরই ওই মা মারা যান। অপরদিকে ছেলের অবস্থা সংকটাপন্ন বলে বৃহস্পতিবার জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার করোনা চিকিৎসার জন্য বিশেষায়িত চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে।

জানা গেছে, নগরীর কোতোয়ালি থানার সিঅ্যান্ডবি কলোনি এলাকার কানন প্রভা পাল (৬৫) করোনায় আক্রান্ত হয়ে এ হাসপাতালে ভর্তি হন। প্রথমে তিনি আইসোলেশন ওয়ার্ডে ছিলেন। পরে অবস্থার অবনতি হলে তাকে আইসিইউ ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। এদিকে মায়ের পর করোনা আক্রান্ত হয়ে এ হাসপাতালের আইসোলেশনে ভর্তি হন ছেলে শিমুল পাল (৪৩)। একপর্যায়ে ছেলের অবস্থারও অবনতি ঘটে। প্রয়োজন হয় আইসিইউয়ের। কিন্তু শিমুলের জন্য কোথাও তা পাওয়া যাচ্ছিল না। উপায় না দেখে পরিবারের সদস্যদের অনুরোধে মাকে আইসিইউ থেকে আইসোলেশন ওয়ার্ডে নেওয়া হয়। ছেলেকে নেওয়া হয় ওই আইসিইউতে।

চট্টগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের কনসালটেন্ট ও করোনা ইউনিটের প্রধান ডা. আবদুর রব যুগান্তরকে বলেন, মায়ের অবস্থা খারাপ ছিল। তিনি আইসিইউতে অচেতন অবস্থায় ছিলেন। পরিবারের সদস্যদের লিখিত অনুরোধে ওই ব্যবস্থা নেওয়া হয়। এ হাসপাতালে ১৮ আইসিইউ বেডের কোনোটাই খালি নেই। প্রতিদিন ২৫-৩০ জন রোগী আইসিইউয়ের জন্য অপেক্ষায় থাকেন বলে জানান তিনি।

চট্টগ্রামে করোনার সর্বোচ্চ সংক্রমণ : এদিকে চট্টগ্রামে প্রতিদিনই করোনা শনাক্তের নতুন রেকর্ড হচ্ছে। জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয়ের দেওয়া বৃহস্পতিবারের তথ্য অনুযায়ী, আগের দিন ২৪ ঘণ্টায় ১ হাজার ৩১৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। একদিনের হিসাবে চট্টগ্রামে এ পর্যন্ত এটাই সর্বোচ্চ সংক্রমণ। আক্রান্তদের মধ্যে ৮৫৮ জন নগরীর ও ৪৫৭ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা। ৩ হাজার ৫১৫ জনের নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা ধরা পড়ে। এদিন করোনায় মৃত্যু হয় ১৭ জনের। দুদিন আগে চট্টগ্রামে সর্বোচ্চ করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছিল ৩১০ জন। ওইদিন ১৮ জন মারা যান।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন