দুর্নীতিমুক্ত নগর গড়ার অঙ্গীকার

  গাজীপুর প্রতিনিধি ০৪ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের ইশতেহার ঘোষণা করেছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী মুক্তিযোদ্ধা হাসান উদ্দিন সরকার। তিনি ১৯ দফা নির্বাচনী ইশতেহারে নগর পিতা নয়, কর্মী হয়ে নাগরিকদের সুখে-দুঃখে পাশে থাকার এবং অধুনিক, পরিচ্ছন্ন, পরিবেশবান্ধব, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজ ও দুর্নীতিমুক্ত একটি নগর গড়ার অঙ্গীকার করেছেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে ধানের শীষ প্রার্থীর টঙ্গীর বাসভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি সাবেক প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান এবং মুক্তিযুদ্ধসহ সব গণতান্ত্রিক আন্দোলন- সংগ্রামে আত্মদানকারী শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে এ ইশতেহার ঘোষণা করেন।

এ সময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশারফ হোসেন, যুগ্ম-মহাসচিব খায়রুল কবীর খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল কুদ্দুস তালুকদার দুলু, ফজলুল হক মিলন, জাসাস কেন্দ্রীয় কমিটির সিনিয়র সহসভাপতি বাবুল আহমেদ, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহিদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি, গাজীপুর জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী ছাইয়েদুল আলম বাবুল, কেন্দ্রীয় সদস্য হুমায়ূন কবির, ডা. মাজহারুল আলম, আবদুল মতিন, আবু বকর সিদ্দিক, এসএম রুহুল আমিন, মাহবুব আলম শুক্কুর, সাখাওয়াত হোসেন সবুজ, অধ্যাপক নজরুল ইসলাম, সাংবাদিক দেলোয়ার হোসেন, জাসাস নেতা সৈয়দ হাসান সোহেল, শিবা সানু, ডনসহ বিপুল সংখ্যক নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

উপস্থিত সাংবাদিকদের ও শুভেচ্ছা জানিয়ে হাসান সরকার আরও বলেন, অবরুদ্ধ গণতন্ত্র, ভুলুণ্ঠিত মানবাধিকার এবং নৈমিত্তিক গুম-খুন, ধর্ষণে জর্জরিত দেশ ও জাতীর এক চরম ক্রান্তিলগ্নে এবারের সিটি কর্পোরেশন নির্বাচ অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় জড়িয়ে অন্যায়ভাবে কারারুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। তবুও শান্তিপূর্ণ আন্দলনের আন্দোলন ও সংগ্রামের অংশ হিসেবেই আমরা এ নির্বাচনে অংশ গ্রহণের সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ইশতেহারের ১৯ দফা হচ্ছে-

নগরায়নের মাস্টার প্লান প্রণয়ন : দেশি-বিদেশি নগর বিশেষজ্ঞ ও পরিকল্পনাবিদদের নিয়ে এ প্লান প্রণয়ন করা হবে এবং এরই ভিত্তিতে সব উন্নয়ন কার্মকাণ্ড পরিচালিত হবে।

নগরভবন নির্মাণ : প্রখ্যাত স্থাপত্যবিদ এবং পরিকল্পনাবিদদের তত্ত্বাবধানে নির্মিত হবে গাজীপুরের ‘নগরভবন’।

সেবাদানকারী অন্যান্য সংস্থার সঙ্গে সমন্বয় : পুলিশ, সড়ক ও জনপথ, ডেসকো, পল্লীবিদ্যুৎ, টিএন্ডটি, ইত্যাদি সেবাদানকারী সংস্থার সঙ্গে সুষম সমন্বয় করে সর্বোচ্চ নাগরিক সেবা নিশ্চিত করা হবে। দুর্নীতি বন্ধে সর্বোচ্চ শক্তি প্রয়োগ করব।

শিক্ষা, খাদ্যসেবা ও নিরাপদ খাদ্য, আবাসন, যাতায়াত ও নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হবে।

যানজট ও পরিবহন ব্যবস্থার উন্নয়ন : যানজট নিরসনে নিরাপদ ও পরিকল্পিত পার্কিংয়ের ব্যবস্থা করা হবে।

নগরীর পরিচ্ছন্নতা : গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের বিভিন্ন জায়গায় (স্কুল, কলেজ, বাসস্ট্যান্ড, বাজার, ইত্যাদি পয়েন্টের কাছাকাছি) আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন গণশৌচাগার নির্মাণ করা হবে।

বর্জ্য ব্যবস্থাপনা : নগর পরিচ্ছন্ন রাখতে ও আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তুলতে দেশি-বিদেশি বিশেষজ্ঞ ও দাতাদের সহায়তা নেয়া হবে। এলাকাভিত্তিক ময়লা সংরক্ষণ কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। বর্জ্য রিসাইকেলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ ও সারের মতো সম্পদ সৃষ্টির উদ্যোগ নেয়া হবে।

সবুজ ও পরিবেশবান্ধব নগরায়ন : পার্ক ও উন্মুক্ত স্থানগুলোকে ঘিরে পরিকল্পিত বৃক্ষায়নের মাধ্যমে সবুজায়নের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করব। বাসাবাড়ি নির্মাণ এবং নগর পরিকল্পনায় সবুজকে প্রাধান্য দেয়া হবে।

জলাবদ্ধতা দূরীকরণ : এলাকাভিত্তিক জলাবদ্ধতা দূরীকরণে স্থানীয় জনগণ এবং বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ বাস্তবায়নে দ্রুত পদক্ষেপ নেয়া হবে।

বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ : ৫৭টি ওয়ার্ডেই বিদ্যমান গভীর নলকূপগুলো সচল রাখতে ও প্রয়োজনীয় সংখ্যক গভীর নলকূপ স্থাপন করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহ : নগরবাসীর জন্য নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিত করতে সিটি কর্পোরেশনের সব কয়টি ওয়ার্ডে পল্লী বিদ্যুতের পরিবর্তে ডেসার মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। যেসব এলাকায় গ্যাস লাইন নেই সেসব এলাকায় গ্যাস সরবরাহ লাইন স্থাপনের জন্য যথাযথ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের চেষ্টা চালাব।

ক্রীড়া, সংস্কৃতি ও বিনোদন : নগরের ভেতর পার্ক, মাঠ ও উন্মুক্ত স্থান চিহ্নিত করা হবে। খেলাধুলা ও শরীরচর্চার উপযোগী করে প্রয়োজনীয় সংখ্যক পার্ক ও মাঠ নির্মাণ করা হবে।

নাগরিক সেবা আধুনিকীকরণ : নাগরিক সেবা, অভিযোগ ও সমস্যা সমাধানে ২৪ ঘণ্টা হটলাইন চালু করা হবে।

অন্যান্য কর্মসূচির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হল সশস্ত্র মুক্তিসংগ্রামে গাজীপুরবাসীর ঝাপিয়ে পড়ার দিবসটি (১৯ মার্চ) যথাযথ মর্যাদায় যেন পালিত হয় সে ব্যবস্থা করা হবে। এই যুদ্ধে যারা শহীদ হয়েছিলেন তাদের নামে গরিব ও মেধাবী শিক্ষার্থীকে এবং বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্য ব্যক্তি কিংবা প্রতিষ্ঠানকে বৃত্তি প্রদান করা হবে।

 

 

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter