দুই ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের তিন বছরপূর্তি আজ

প্রকাশ : ০৬ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর রিপোর্ট

ঢাকার দুই সিটি কর্পোরেশনের তিন বছরপূর্তি হচ্ছে আজ। ২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিল অনুষ্ঠিত নির্বাচনে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনে (ডিএসসিসি) আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মোহাম্মদ সাঈদ খোকন এবং ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনে (ডিএনসিসি) আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে আনিসুল হক মেয়র নির্বাচিত হন। একই বছরের ৬ মে তারা মেয়র হিসেবে শপথ নেন। ২০১৭ সালের ২৯ জুলাই লন্ডনে গিয়ে অসুস্থ হয়ে পড়েন মেয়র আনিসুল হক। একই বছর ৩০ নভেম্বর লন্ডনের একটি হাসপাতালে তিনি মারা যান। এরপর ডিএনসিসির কাউন্সিলর ওসমান গণিকে প্যানেল মেয়র হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয়।

তিন বছর দায়িত্ব পালনকালে ডিএসসিসির মেয়র সাঈদ খোকন নাগরিকবান্ধব কয়েক ডজন উদ্যোগ নিয়েছেন। কিছু উদ্যোগ সফল হলেও অনেক উদ্যোগের সম্পূর্ণ সুফল ভোগ করতে পারছেন না নগরবাসী। জানতে চাইলে সাঈদ খোকন বলেন, ডিএসসিসি এলাকায় এখন ভাঙা রাস্তা খুঁজে পাওয়া যাবে না। বর্জ্য ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়নের জন্য পরিচ্ছন্নতাকর্মীদের মোবাইল ও সিম কার্ড দেয়া হয়েছে। এখন ৮০ শতাংশ কর্মী ভোরবেলা রাস্তায় থাকেন। বর্জ্য ব্যবস্থাপনার উন্নতি হয়েছে। ফুটপাত দখলমুক্ত করার কাজ করা হচ্ছে।

গত তিন বছরের ডিএনসিসির কার্যক্রম পর্যালোচনায় দেখা গেছে, প্রয়াত মেয়র আনিসুল হকের নেয়া উদ্যোগগুলোই বর্তমানে বাস্তবায়নের কাজ চলছে। তবে কিছু উদ্যোগ বাস্তবায়নে চলছে ধীরগতি। দাফতরিক কাজেও গতি নেই। পাশাপাশি বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কার্যক্রমেও ঢিলেমিভাব লক্ষ করা গেছে। সব মিলিয়ে নাগরিক সেবাদান কার্যক্রমও গতি হারাচ্ছে।

জানতে চাইলে প্যানেল মেয়র মো. ওসমান গণি বলেন, রাজধানীর ক্যান্টনমেন্ট, বিমানবন্দর, মহাখালী ডিওএইচএস, বারিধারা ডিওএইচএস এলাকার মশা মারার দায়িত্ব ডিএনসিসির নয়। এছাড়া বসুন্ধরা আবাসিক এলাকা, আফতাবনগরও ডিএনসিসির অধীনে নয়। ওই সব এলাকার মশাও ডিএনসিসি এলাকায় চলে আসে। ফলে সহজেই মশার নিয়ন্ত্রণ করা কঠিন হয়ে যায়। তিনি আরও বলেন, আনিসুল হক অনেক ভালো উদ্যোগ নিয়েছিলেন। সেগুলো বাস্তবায়ন করা হচ্ছে।