ফাল্গুনীশপের সিইও অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেফতার
jugantor
ফাল্গুনীশপের সিইও অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেফতার
টাকা ফেরত চাইতে গেলে টর্চার সেলে নির্যাতন

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৬ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ফাল্গুনীশপ ডটকম’র সিইও পাভেল হোসেনকে (৩০) তিন সহযোগীসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রাজধানীর বনশ্রী এলাকায় বুধবার ও বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান খুলে অগ্রিম টাকা নিয়ে পণ্য না দিয়ে ভুক্তভোগীদের অস্ত্র দিয়ে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। নিজস্ব টর্চার সেলে লাঠিপেটা, বৈদ্যুতিক শকসহ অন্যান্য শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে অফিস থেকে ভুক্তভোগীদের তাড়িয়ে দিত।

রাজধানীর কাওরান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৪-এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজ্জাম্মেল হক। তিনি বলেন, চক্রের মূলহোতা ফাল্গুনীশপ ডটকম’র সিইও পাভেল হোসেন ৫০ থেকে ৬০ হাজার সাধারণ মানুষের কাছ থেকে এভাবে পণ্য দেওয়ার কথা বলে প্রায় ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। গ্রেফতার অন্য তিনজন হলেন- সাইদুল ইসলাম (৪০), আব্দুল্লাহ আল হাসান (২৫) ও ফারজানা আক্তার মিম (২১)। অভিযানে তাদের কার্যালয় থেকে প্রতারণায় ব্যবহৃত একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, দুই রাউন্ড গুলি, ২৪ ক্যান বিয়ার, চার বোতল দেশি মদ, একটি প্রাইভেট কার, কম্পিউটার, প্রিন্টার, বিপুল পরিমাণ এন-৯৫ মাস্ক, ১০০টি ইনভয়েস, ৩০টি চেক বই, ৮০টি সিল ও বিপুল পরিমাণ বিজ্ঞাপনের স্ক্রিনশট উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব-৪-এর অধিনায়ক বলেন, ফাল্গুনীশপ ডটকম, অরিমপো ডটকম ও টেক ফ্যামিলি ডটকম নামে একাধিক ই-কমার্স সাইট খুলে নিত্যপণ্যের বাজার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে তা অনলাইনে বিক্রির জন্য প্রচার করে সাধারণ লোকজনকে আকৃষ্ট করত চক্রটি। তাদের বিজ্ঞাপন দেখে স্বল্পমূল্যে পণ্য পাওয়ার আশায় অনেকে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করত। এভাবে চক্রের মূলহোতা পাভেল তার সহযোগীদের সহায়তায় দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণার মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালের শুরুতে পাভেল, জনৈক দিদারুল আলম, কানিজ ফাতেমা ও রহমতুল্লাহ শওকত মিলে ফাল্গুনীশপ ডটকম নামে একটি অনলাইন বিজনেস প্ল্যাটফরম তৈরি করে। শুরুতে তারা উত্তরা এলাকায় একটি ভাড়া করা স্পেসে আউটলেট খুলে ব্যবসায়িক কার্যক্রম শুরু করে। ব্যবসার শুরুতেই পাভেলের অন্য অংশীদাররা তার এই গ্রাহক ঠকানোর বিষয়টি বুঝতে পারে। তার বিরুদ্ধে থানায় জিডি করে এফিডেভিট করে উকিল নোটিশ পাঠিয়ে যৌথ ব্যবসা থেকে সরে যায় তারা। পাভেলের অংশীদাররা এ বিষয়টি জয়েন্ট স্টক অথরিটিকেও অবহিত করে। ২০২১ সালের মে মাসে প্রতারণার অভিযোগে কয়েকজন গ্রাহক পাভেলের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করলে সিআইডি তাকে গ্রেফতার করে। ২১ দিন জেলে থেকে জামিনে বেরিয়ে এসে আগের চেয়েও বেপরোয়া হয়ে ওঠে পাভেল। কিছু গ্রাহক ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরে অভিযোগ করলে অধিদপ্তর একাধিকবার ফাল্গুনীশপ ডটকমের আউটলেট বন্ধ করে দেয়। পরে চলতি বছরের জুলাই মাসে পাভেল খিলগাঁও থানার বনশ্রী এলাকায় অরিমপো ডটকম ও টেক ফ্যামিলি ডটকম নামে নতুন অফিসের আড়ালেই ফাল্গুনীশপ ডটকমের কার্যক্রম পরিচালনা করে। অরিমপো ডটকম ও টেক ফ্যামিলি ডটকমে নিজে এমডি ও তার স্ত্রী রিতা আক্তার চেয়ারম্যান হিসাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে।

ফাল্গুনীশপের সিইও অস্ত্র ও মাদকসহ গ্রেফতার

টাকা ফেরত চাইতে গেলে টর্চার সেলে নির্যাতন
 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৬ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতারণা ও অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে ফাল্গুনীশপ ডটকম’র সিইও পাভেল হোসেনকে (৩০) তিন সহযোগীসহ গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। রাজধানীর বনশ্রী এলাকায় বুধবার ও বৃহস্পতিবার অভিযান চালিয়ে তাদের গ্রেফতার করা হয়। ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান খুলে অগ্রিম টাকা নিয়ে পণ্য না দিয়ে ভুক্তভোগীদের অস্ত্র দিয়ে বিভিন্নভাবে ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ রয়েছে তাদের বিরুদ্ধে। নিজস্ব টর্চার সেলে লাঠিপেটা, বৈদ্যুতিক শকসহ অন্যান্য শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে অফিস থেকে ভুক্তভোগীদের তাড়িয়ে দিত।

রাজধানীর কাওরান বাজার র‌্যাব মিডিয়া সেন্টারে বৃহস্পতিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য জানান র‌্যাব-৪-এর অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোজ্জাম্মেল হক। তিনি বলেন, চক্রের মূলহোতা ফাল্গুনীশপ ডটকম’র সিইও পাভেল হোসেন ৫০ থেকে ৬০ হাজার সাধারণ মানুষের কাছ থেকে এভাবে পণ্য দেওয়ার কথা বলে প্রায় ৫০ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন। গ্রেফতার অন্য তিনজন হলেন- সাইদুল ইসলাম (৪০), আব্দুল্লাহ আল হাসান (২৫) ও ফারজানা আক্তার মিম (২১)। অভিযানে তাদের কার্যালয় থেকে প্রতারণায় ব্যবহৃত একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, দুই রাউন্ড গুলি, ২৪ ক্যান বিয়ার, চার বোতল দেশি মদ, একটি প্রাইভেট কার, কম্পিউটার, প্রিন্টার, বিপুল পরিমাণ এন-৯৫ মাস্ক, ১০০টি ইনভয়েস, ৩০টি চেক বই, ৮০টি সিল ও বিপুল পরিমাণ বিজ্ঞাপনের স্ক্রিনশট উদ্ধার করা হয়। র‌্যাব-৪-এর অধিনায়ক বলেন, ফাল্গুনীশপ ডটকম, অরিমপো ডটকম ও টেক ফ্যামিলি ডটকম নামে একাধিক ই-কমার্স সাইট খুলে নিত্যপণ্যের বাজার নির্ধারিত মূল্যের চেয়ে কম দামে তা অনলাইনে বিক্রির জন্য প্রচার করে সাধারণ লোকজনকে আকৃষ্ট করত চক্রটি। তাদের বিজ্ঞাপন দেখে স্বল্পমূল্যে পণ্য পাওয়ার আশায় অনেকে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ করত। এভাবে চক্রের মূলহোতা পাভেল তার সহযোগীদের সহায়তায় দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণার মাধ্যমে প্রচুর পরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে।

তিনি বলেন, ২০১৯ সালের শুরুতে পাভেল, জনৈক দিদারুল আলম, কানিজ ফাতেমা ও রহমতুল্লাহ শওকত মিলে ফাল্গুনীশপ ডটকম নামে একটি অনলাইন বিজনেস প্ল্যাটফরম তৈরি করে। শুরুতে তারা উত্তরা এলাকায় একটি ভাড়া করা স্পেসে আউটলেট খুলে ব্যবসায়িক কার্যক্রম শুরু করে। ব্যবসার শুরুতেই পাভেলের অন্য অংশীদাররা তার এই গ্রাহক ঠকানোর বিষয়টি বুঝতে পারে। তার বিরুদ্ধে থানায় জিডি করে এফিডেভিট করে উকিল নোটিশ পাঠিয়ে যৌথ ব্যবসা থেকে সরে যায় তারা। পাভেলের অংশীদাররা এ বিষয়টি জয়েন্ট স্টক অথরিটিকেও অবহিত করে। ২০২১ সালের মে মাসে প্রতারণার অভিযোগে কয়েকজন গ্রাহক পাভেলের বিরুদ্ধে উত্তরা পশ্চিম থানায় মামলা করলে সিআইডি তাকে গ্রেফতার করে। ২১ দিন জেলে থেকে জামিনে বেরিয়ে এসে আগের চেয়েও বেপরোয়া হয়ে ওঠে পাভেল। কিছু গ্রাহক ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরে অভিযোগ করলে অধিদপ্তর একাধিকবার ফাল্গুনীশপ ডটকমের আউটলেট বন্ধ করে দেয়। পরে চলতি বছরের জুলাই মাসে পাভেল খিলগাঁও থানার বনশ্রী এলাকায় অরিমপো ডটকম ও টেক ফ্যামিলি ডটকম নামে নতুন অফিসের আড়ালেই ফাল্গুনীশপ ডটকমের কার্যক্রম পরিচালনা করে। অরিমপো ডটকম ও টেক ফ্যামিলি ডটকমে নিজে এমডি ও তার স্ত্রী রিতা আক্তার চেয়ারম্যান হিসাবে কার্যক্রম পরিচালনা করে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন