কেরানীগঞ্জে ককটেল ফাটিয়ে ব্যালট ছিনতাই চেষ্টায় মামলা
jugantor
কেরানীগঞ্জে ককটেল ফাটিয়ে ব্যালট ছিনতাই চেষ্টায় মামলা

  কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি  

০২ ডিসেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের শুভাঢ্যা উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ককটেল ফাটিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাই চেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই মো. ফজর আলী বাদী হয়ে মামলাটি করেন। রোববার নির্বাচনের দিন সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে ব্যালট ছিনতাই চেষ্টার ওই ঘটনা ঘটে। মামলায় শুভাঢ্যা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আবুল হোসেন ওরফে আবুল মেম্বার (পরাজিত প্রার্থী), নবনির্বাচিত মেম্বার মিঠু হোসেন এ্যানি ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ১৩ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার এজাহারে এসআই মো. ফজর আলী উল্লেখ করেন, ওইদিন ভোট গ্রহণ শেষে ব্যালট পেপার ও নির্বাচনি সরঞ্জাম নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা পিসাইডিং অফিসারসহ অন্যরা। কেন্দ্র থেকে বের হওয়ার সময় আবুল হোসেন ওরফে আবুল মেম্বার, মিঠু হোসেন এ্যানি ও মো. মিজানের লোকজন ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। পরে ঘটনাস্থলে আমরা উপস্থিত হয়ে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও গ্যাস ছুড়লে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। পরে আবার ব্যালট পেপার নিয়ে রওয়ানা হলে তারা আবারও ককটেল মেরে ব্যালট ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি ও কয়েকজন বিজিবি সদস্য আহত হন।

কেরানীগঞ্জে ককটেল ফাটিয়ে ব্যালট ছিনতাই চেষ্টায় মামলা

 কেরানীগঞ্জ (ঢাকা) প্রতিনিধি 
০২ ডিসেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

কেরানীগঞ্জের শুভাঢ্যা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের শুভাঢ্যা উচ্চবিদ্যালয় কেন্দ্রে ককটেল ফাটিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাই চেষ্টার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। মঙ্গলবার দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার এসআই মো. ফজর আলী বাদী হয়ে মামলাটি করেন। রোববার নির্বাচনের দিন সন্ধ্যায় ভোট গণনা শেষে ব্যালট ছিনতাই চেষ্টার ওই ঘটনা ঘটে। মামলায় শুভাঢ্যা ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সাবেক ইউপি সদস্য আবুল হোসেন ওরফে আবুল মেম্বার (পরাজিত প্রার্থী), নবনির্বাচিত মেম্বার মিঠু হোসেন এ্যানি ও দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদকসহ ১৩ জনকে আসামি করা হয়েছে। মামলার এজাহারে এসআই মো. ফজর আলী উল্লেখ করেন, ওইদিন ভোট গ্রহণ শেষে ব্যালট পেপার ও নির্বাচনি সরঞ্জাম নিয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেন কেন্দ্রের দায়িত্বে থাকা পিসাইডিং অফিসারসহ অন্যরা। কেন্দ্র থেকে বের হওয়ার সময় আবুল হোসেন ওরফে আবুল মেম্বার, মিঠু হোসেন এ্যানি ও মো. মিজানের লোকজন ককটেল বিস্ফোরণ ঘটিয়ে ব্যালট পেপার ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। পরে ঘটনাস্থলে আমরা উপস্থিত হয়ে কয়েক রাউন্ড ফাঁকা গুলি ও গ্যাস ছুড়লে পরিস্থিতি কিছুটা নিয়ন্ত্রণে আসে। পরে আবার ব্যালট পেপার নিয়ে রওয়ানা হলে তারা আবারও ককটেল মেরে ব্যালট ছিনতাইয়ের চেষ্টা করে। পরে অতিরিক্ত পুলিশ ও বিজিবি ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনায় দক্ষিণ কেরানীগঞ্জ থানার ওসি ও কয়েকজন বিজিবি সদস্য আহত হন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন