তিস্তার পানিবণ্টনে ‘হাইড্রোলজিক্যাল’ মূল্যায়ন জরুরি
jugantor
আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলন শুরু
তিস্তার পানিবণ্টনে ‘হাইড্রোলজিক্যাল’ মূল্যায়ন জরুরি

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২১ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তিস্তা নদীর অববাহিকা ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সীমাবদ্ধ। তাই দুই দেশকেই এই সংকট সমাধানে এগিয়ে আসতে হবে। তিস্তার পানিবণ্টন সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য বাংলাদেশ ও ভারতকে বার্ষিক ‘হাইড্রোলজিক্যাল’ (স্থানিক ও সময়গত পানিবণ্টন এবং প্রকৃতির পরিবর্তন) মূল্যায়নে করতে হবে। ‘তিস্তা নদী অববাহিকা : সংকট উত্তরণ ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক তিন দিনের ভার্চুয়াল ‘আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলনে বৃহস্পতিবার এ কথা বলেছেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ এনভায়রেনমেন্ট রিসার্চের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত।

সম্মেলনের প্রথম দিন বিষয়ভিত্তিক প্রসঙ্গ-ইতিহাস, আকৃতি এবং তিস্তা ও এর পার্শ্ববর্তী নদীর স্থানিক পরিবর্তনের ওপর ভিত্তি করে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এবারের সম্মেলনের উদ্দেশ্য হলো তিস্তা নদীর রূপতত্ত্ব, নৃতাত্ত্বিক বিষয় এবং আঞ্চলিক বিরোধের ওপর তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ ও আলোচনা-পর্যালোচনার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও জাতীয় পর্যায়ের নীতিনির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা। যাতে এই সমস্যাটি সমাধান হয়। সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য দেন একশনএইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। আলোচনায় আরও অংশ নেন একশনএইড ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ সোসাইটির চেয়ারপারসন ব্যারিস্টার মনজুর হাসান, সুইডেনের উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অশোক সোয়াইন, জাপানের কিয়টো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রোহান ডি’সুজা প্রমুখ।

আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলন শুরু

তিস্তার পানিবণ্টনে ‘হাইড্রোলজিক্যাল’ মূল্যায়ন জরুরি

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২১ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তিস্তা নদীর অববাহিকা ভারত ও বাংলাদেশের মধ্যে সীমাবদ্ধ। তাই দুই দেশকেই এই সংকট সমাধানে এগিয়ে আসতে হবে। তিস্তার পানিবণ্টন সমস্যা থেকে উত্তরণের জন্য বাংলাদেশ ও ভারতকে বার্ষিক ‘হাইড্রোলজিক্যাল’ (স্থানিক ও সময়গত পানিবণ্টন এবং প্রকৃতির পরিবর্তন) মূল্যায়নে করতে হবে। ‘তিস্তা নদী অববাহিকা : সংকট উত্তরণ ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক তিন দিনের ভার্চুয়াল ‘আন্তর্জাতিক পানি সম্মেলনে বৃহস্পতিবার এ কথা বলেছেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর ক্লাইমেট চেঞ্জ এনভায়রেনমেন্ট রিসার্চের ইমেরিটাস অধ্যাপক ড. আইনুন নিশাত।

সম্মেলনের প্রথম দিন বিষয়ভিত্তিক প্রসঙ্গ-ইতিহাস, আকৃতি এবং তিস্তা ও এর পার্শ্ববর্তী নদীর স্থানিক পরিবর্তনের ওপর ভিত্তি করে আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। এবারের সম্মেলনের উদ্দেশ্য হলো তিস্তা নদীর রূপতত্ত্ব, নৃতাত্ত্বিক বিষয় এবং আঞ্চলিক বিরোধের ওপর তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ ও আলোচনা-পর্যালোচনার মাধ্যমে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ও জাতীয় পর্যায়ের নীতিনির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করা। যাতে এই সমস্যাটি সমাধান হয়। সম্মেলনে স্বাগত বক্তব্য দেন একশনএইড বাংলাদেশের কান্ট্রি ডিরেক্টর ফারাহ কবির। বিশেষ অতিথি ছিলেন সাবেক তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু। আলোচনায় আরও অংশ নেন একশনএইড ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ সোসাইটির চেয়ারপারসন ব্যারিস্টার মনজুর হাসান, সুইডেনের উপসালা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক অশোক সোয়াইন, জাপানের কিয়টো বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ড. রোহান ডি’সুজা প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন