টঙ্গীতে তুলে নেওয়া হলো কাশ্মীরি ছাত্রের বহিষ্কারাদেশ
jugantor
বিদেশি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ
টঙ্গীতে তুলে নেওয়া হলো কাশ্মীরি ছাত্রের বহিষ্কারাদেশ

  টঙ্গী পশ্চিম (গাজীপুর) প্রতিনিধি  

২৮ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুরের টঙ্গী গুশুলিয়া ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিদেশি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে এক কাশ্মীরি ছাত্রের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করেছে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওই শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেন। বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের পর তারা হোস্টেলে ফিরে যান।

জানা গেছে, ১৯ জানুয়ারি বিকালে ওই মেডিকেল কলেজে বাংলাদেশি ও বিদেশি শিক্ষার্থীদের ফুটবল খেলা চলছিল। এ সময় কাশ্মীরের ছাত্র জিসান ফয়েজ দর্শক সারি থেকে মাঠে ঢুকে বাংলাদেশি ছাত্র আবুল ফাত্তাহ মো. ফাহিমকে মাথার ওপর তুলে আছাড় মেরে মাটিতে ফেলে দেন। এ ঘটনায় দেশি-বিদেশি শিক্ষার্থীদের মাঝে উত্তেজনা চলছিল। এতে কলেজ কর্তৃপক্ষ ২৬ জানুয়ারি জিসানকে ৬ মাসের জন্য বহিষ্কার করে। এ খবর শুনে জিসান ওইদিন রাত ৯টার দিকে হোস্টেল কক্ষে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। সহপাঠীরা টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে ওই কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে তিনি আইসিইউতে আছেন।

বিদেশি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ

টঙ্গীতে তুলে নেওয়া হলো কাশ্মীরি ছাত্রের বহিষ্কারাদেশ

 টঙ্গী পশ্চিম (গাজীপুর) প্রতিনিধি 
২৮ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুরের টঙ্গী গুশুলিয়া ইন্টারন্যাশনাল মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে বিদেশি শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভে এক কাশ্মীরি ছাত্রের বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহার করেছে কর্তৃপক্ষ। বৃহস্পতিবার বেলা ১১টা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত ওই শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ করেন। বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের পর তারা হোস্টেলে ফিরে যান।

জানা গেছে, ১৯ জানুয়ারি বিকালে ওই মেডিকেল কলেজে বাংলাদেশি ও বিদেশি শিক্ষার্থীদের ফুটবল খেলা চলছিল। এ সময় কাশ্মীরের ছাত্র জিসান ফয়েজ দর্শক সারি থেকে মাঠে ঢুকে বাংলাদেশি ছাত্র আবুল ফাত্তাহ মো. ফাহিমকে মাথার ওপর তুলে আছাড় মেরে মাটিতে ফেলে দেন। এ ঘটনায় দেশি-বিদেশি শিক্ষার্থীদের মাঝে উত্তেজনা চলছিল। এতে কলেজ কর্তৃপক্ষ ২৬ জানুয়ারি জিসানকে ৬ মাসের জন্য বহিষ্কার করে। এ খবর শুনে জিসান ওইদিন রাত ৯টার দিকে হোস্টেল কক্ষে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা চালান। সহপাঠীরা টের পেয়ে তাকে উদ্ধার করে ওই কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন। বর্তমানে তিনি আইসিইউতে আছেন।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন