চাকরির প্রলোভনে প্রতারণা, আটক ১
jugantor
চাকরির প্রলোভনে প্রতারণা, আটক ১

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

২৯ জানুয়ারি ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর বনানী থেকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে এক প্রতারককে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তার নাম জসিম উদ্দিন। সে নিজেকে সেনাবাহিনীর মেজর পরিচয় দিত। র‌্যাব-১ এর একটি দল বৃহস্পতিবার সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক করেছে।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (অপস্ অফিসার) সহকারী পুলিশ সুপার নোমান আহমদ শুক্রবার জানান, ৫-৬ মাস আগে ভুক্তভোগী জিসান আলীর (২০) সঙ্গে প্রতারক জসিম উদ্দিনের পরিচয় হয়। জসিম নিজেকে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এ বাহিনীর বিভিন্ন পদে লোকজনকে চাকরি দিতে পারবে বলে প্রলোভন দেখায়। এ ছাড়া ভুক্তভোগীকে সেনাবাহিনীর ইলেকট্রনিক ম্যান পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে দুই লাখ টাকা দাবি করে। গত বছরের ২৪ নভেম্বর চাকরির জন্য মৌখিক চুক্তিতে জসিমকে দুই লাখ টাকা দেন ভুক্তভোগী। ১২ জানুয়ারি চাকরিতে যোগদানের নিয়োগপত্র দেওয়া হবে বলে জানায়। ভিকটিম ১১ জানুয়ারি জসিমের সঙ্গে যোগাযোগ করলে বিভিন্ন জটিলতার কারণে নিয়োগপত্র দিতে পারবে না জানিয়ে ভুক্তভোগীকে ২০ জানুয়ারি আবার যোগাযোগ করতে বলে। এরপর থেকে জসিম নানা অজুহাত দেখাতে থাকে। পরে ভিকটিম টাকা ফেরত চাইলে জসিম ভয়ভীতি দেখায়। প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে র‌্যাব-১ এর কাছে একটি অভিযোগ করে আইনগত সহায়তা চান ভুক্তভোগী জিসান। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ প্রতারক চক্রটিকে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ ছায়া তদন্ত ও গোয়েন্দা নজরদারি বাড়িয়ে রাজধানীর বনানী পুলিশ ফাঁড়ির উত্তর পাশে বাস কাউন্টারের সামনে থেকে বৃহস্পতিবার বিকালে জসিম উদ্দিনকে (২৯) আটক করে। তার বাড়ি বগুড়ায়। আটকের সময় তার কাছ থেকে সেনাবাহিনীর লোগো সংবলিত ১৯টি খাকি ফাইল কভার ও পাঁচটি প্লাস্টিকের ফাইল কভার উদ্ধার করা হয়।

চাকরির প্রলোভনে প্রতারণা, আটক ১

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
২৯ জানুয়ারি ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রাজধানীর বনানী থেকে চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগে এক প্রতারককে আটক করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তার নাম জসিম উদ্দিন। সে নিজেকে সেনাবাহিনীর মেজর পরিচয় দিত। র‌্যাব-১ এর একটি দল বৃহস্পতিবার সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে তাকে আটক করেছে।

র‌্যাব-১ এর সহকারী পরিচালক (অপস্ অফিসার) সহকারী পুলিশ সুপার নোমান আহমদ শুক্রবার জানান, ৫-৬ মাস আগে ভুক্তভোগী জিসান আলীর (২০) সঙ্গে প্রতারক জসিম উদ্দিনের পরিচয় হয়। জসিম নিজেকে সেনাবাহিনীর কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে এ বাহিনীর বিভিন্ন পদে লোকজনকে চাকরি দিতে পারবে বলে প্রলোভন দেখায়। এ ছাড়া ভুক্তভোগীকে সেনাবাহিনীর ইলেকট্রনিক ম্যান পদে চাকরি পাইয়ে দেওয়ার কথা বলে দুই লাখ টাকা দাবি করে। গত বছরের ২৪ নভেম্বর চাকরির জন্য মৌখিক চুক্তিতে জসিমকে দুই লাখ টাকা দেন ভুক্তভোগী। ১২ জানুয়ারি চাকরিতে যোগদানের নিয়োগপত্র দেওয়া হবে বলে জানায়। ভিকটিম ১১ জানুয়ারি জসিমের সঙ্গে যোগাযোগ করলে বিভিন্ন জটিলতার কারণে নিয়োগপত্র দিতে পারবে না জানিয়ে ভুক্তভোগীকে ২০ জানুয়ারি আবার যোগাযোগ করতে বলে। এরপর থেকে জসিম নানা অজুহাত দেখাতে থাকে। পরে ভিকটিম টাকা ফেরত চাইলে জসিম ভয়ভীতি দেখায়। প্রতারণার বিষয়টি বুঝতে পেরে র‌্যাব-১ এর কাছে একটি অভিযোগ করে আইনগত সহায়তা চান ভুক্তভোগী জিসান। এ অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে এ প্রতারক চক্রটিকে আইনের আওতায় আনতে র‌্যাব-১ ছায়া তদন্ত ও গোয়েন্দা নজরদারি বাড়িয়ে রাজধানীর বনানী পুলিশ ফাঁড়ির উত্তর পাশে বাস কাউন্টারের সামনে থেকে বৃহস্পতিবার বিকালে জসিম উদ্দিনকে (২৯) আটক করে। তার বাড়ি বগুড়ায়। আটকের সময় তার কাছ থেকে সেনাবাহিনীর লোগো সংবলিত ১৯টি খাকি ফাইল কভার ও পাঁচটি প্লাস্টিকের ফাইল কভার উদ্ধার করা হয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন