গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন

জাহাঙ্গীর আলমের মতবিনিময় সভা ও ইফতার

  রায়হানুল ইসলাম আকন্দ, শ্রীপুর (গাজীপুর) ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে আনুষ্ঠানিক প্রচার-প্রচারণা ১৮ জুন শুরু হওয়ার কথা থাকলেও কোনো প্রার্থীই বসে নেই। তারা নির্বাচনী প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। প্রতিদিনই তারা বিভিন্ন কৌশলে গণসংযোগ ও সভা করছেন। প্রার্থীরা তাদের কর্মী সমর্থকদের নিয়ে ভোটারদের কাছে গিয়ে নিজেদের তুলে ধরছেন ভোটের আশায়। প্রার্থীদের এ প্রচার প্রচারণার ব্যাপারে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা একে অপরের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ তুলছেন। প্রার্থী ছাড়াও বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের দায়িত্বশীল কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধেও পক্ষপাতিত্ব ও নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠছে। সোমবার আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন ১৪ দলীয় জোট সমর্থিত মেয়র প্রার্থী (নৌকা প্রতীক) অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম টঙ্গী এলাকায় শিক্ষক, অভিভাবক ও শ্রমিকদের সঙ্গে মতবিনিময় এবং ইফতার মাহফিলে যোগ দেন। আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থীর এ কার্যক্রমকে নির্বাচনী আচরণবিধি লঙ্ঘন বলে নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করেছেন বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী (ধানের শীষ প্রতীক) হাসান উদ্দিন সরকার।

জাহাঙ্গীর আলমের মিডিয়া সেলের সদস্য মোহাম্মদ আলম বলেন, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম দিনব্যাপী মহানগরের টঙ্গীতে ৫৪, ৫৫ ও ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের কয়েকটি স্কুলের শিক্ষক, অভিভাবক এবং কারখানার শ্রমিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। দিনভর মতবিনিময় শেষে সন্ধ্যায় ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডে নোয়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ইফতার মাহফিলে যোগ দেন। অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর আলম বেলা ১১টার দিকে ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডের টঙ্গী পাইলট স্কুল অ্যান্ড গার্লস কলেজে, দুপুর আড়াইটায় ৪৬ নম্বর ওয়ার্ডের শাহাজউদ্দিন সরকার স্কুল অ্যান্ড কলেজে এবং বিকালে একই ওয়ার্ডের নওয়াগাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ে মতবিনিময় করেন। বিকেলে তিনি টঙ্গী শিল্পাঞ্চলের পিনাকি গার্মেন্টসে শ্রমিকদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন।

শিক্ষকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি বলেন, আমাদের সমাজের শিক্ষকরা হচ্ছেন আদর্শের শক্তি। একমাত্র তারাই পারেন জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে একজন আদর্শ মানুষ হিসাবে নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠিত করতে। এ ব্যাপারে আমি আপনাদের সহযোগিতা চাই। এ সময় টঙ্গী থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং টঙ্গী পাইলট স্কুল অ্যান্ড গার্লস কলেজের গভর্নিং কমিটির সভাপতি ফজলুল হক, অধ্যক্ষ আলাউদ্দিন মিয়া, মহানগর আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মতিউর রহমান মতি, শাহাজউদ্দিন সরকার উচ্চ বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ মো. দেলোয়ার হোসেন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক কাজী ইলিয়াস আহমেদ, টঙ্গী থানা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক রজব আলী, টঙ্গী থানা যুবলীগের সভাপতি আবদুস সাত্তার মোল্লা, মহানগর ওলামা লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম শেখ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে, টঙ্গী পাইলট স্কুল অ্যান্ড গার্লস কলেজের অধ্যক্ষের ভাই ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডের সাধারণ আসনের কাউন্সিলর প্রার্থী (লাটিম প্রতীক) হেলাল উদ্দিনের পক্ষেও নির্বাচনী প্রচারণা চালানো হয়। এজন্য অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের অভিযোগ তুলেছেন একই ওয়ার্ডের সাধারণ আসনে কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বী অপর দুই প্রার্থী। অভিযোগকারী কাউন্সিলর প্রার্থী জানান, প্রতিষ্ঠানটির অধ্যক্ষ আলাউদ্দিন মিয়ার সহোদর হেলাল উদ্দিন ৫৪ নম্বর ওয়ার্ডে সাধারণ কাউন্সিলর পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। কিন্তু আচরণবিধি লঙ্ঘন করে প্রতিষ্ঠানের অধ্যক্ষ নিজের ভাইয়ের পক্ষে অবৈধভাবে নির্বাচনী সভা করেছেন। এ ব্যাপারে টঙ্গী পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ অধ্যক্ষ আলাউদ্দিন মিয়া বলেন, আমার স্কুলে কোনো নির্বাচনী সভা হয়নি। প্রতিষ্ঠানের সভাপতির কাছে দেখা করতে ও দোয়া চাইতে মেয়র প্রার্থী জাহাঙ্গীর আলম স্কুলে এসেছিলেন। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা তারিফুজ্জামান বলেন, বাইরে গিয়ে কোনো প্রার্থী নির্বাচনী মতবিনিময় কিংবা গণসংযোগ করতে পারবেন না। তবে ধর্মীয় আচার অনুষ্ঠানে প্রার্থীরা যোগ দিলেও নির্বাচনী বক্তব্য বা ভোট চাইতে পারবেন না। সোমবার এ সংক্রান্ত গণবিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×