বন্দরে পানিবন্দি কয়েক হাজার মানুষ

  বন্দর (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ২৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

টানা ভারি বর্ষণ ও অপরিকল্পিত ড্রেনেজ ব্যবস্থার কারণে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের বন্দর এলাকার অধিকাংশ ঘরবাড়ি ও রাস্তাঘাট পানিতে তলিয়ে গেছে। পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন এলাকার হাজার হাজার মানুষ। পচা ও নোংরা পানির কারণে স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে আছেন তারা। নোংরা ও ময়লাযুক্ত পানিতে চলাচল করে এলাকাবাসী পানিবাহিত নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছেন। জলাবদ্ধতার কারণে জনজীবনে নেমে এসেছে চরম দুর্দশা। বিশেষ করে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যেতে ও কর্মকর্তা কর্মচারীদের অফিসে যেতে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

মঙ্গলবার সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৫ নম্বর ওয়ার্ড বন্দরের লক্ষণখোলা, দেউলী চৌরাপাড়া, ২৪ নম্বর ওয়ার্ডের আমিরাবাদ, বক্তারকান্দি, নোয়াদ্দা, কাইতাখালী, নবীগঞ্জ, ২২ নম্বর ওয়ার্ডের একরামপুর ইস্পাহানি প্রভৃতি এলাকার ঘরবাড়ি পানিতে তলিয়ে গেছে। অধিকাংশ বাড়ির আঙ্গিনায় পানি জমে কৃত্রিম বন্যার সৃষ্টি হয়েছে।

লক্ষণখোলা এলাকার বাসিন্দা নূর হোসেন জানান, কয়েক দিনের টানা বর্ষণে বাড়ির উঠোনে নোংরা ও পচা পানি জমে আছে। এতে স্বাভাবিক জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে।

২৪ ও ২৫ নম্বর ওয়ার্ডে ড্রেনের অব্যবস্থাপনার কারণে অল্প বৃষ্টি হলেই জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়। ঘরের ভেতর পানি ঢুকে পড়ে। তিন দিন ধরে লক্ষণখোলা জামে মসজিদ (ছোট সমাজ) চত্বরে পানি জমে আছে। এতে মুসল্লিদের নামাজ পড়তে অসুবিধা হচ্ছে।

বন্দর নাগরিক কমিটির সাধারণ সম্পাদক কবির সোহেল বলেন, দক্ষিণ লক্ষণখোলা ও চৌরাপাড়া এলাকায় সারা বছরই জমিতে পানি জমে থাকে। বিলে বাধ দিয়ে মাছ চাষ করায় পানি সরতে পারে না। ফলে শুষ্ক মৌসুমেও বর্ষার রূপ ধারণ করে। বিষয়টি স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের নজরে এনেও কোনো ফল পাওয়া যাচ্ছে না।

এলাকাবাসী জানান, লক্ষণখোলা এলাকায় সম্প্রতি ডিংলিং নামে একটি ব্যাটারি ফ্যাক্টরি গড়ে উঠেছে। ব্যাটারি ফ্যাক্টরির এসিডের বিষাক্ত পানি বৃষ্টির পানির সঙ্গে মিশে বড় ধরনের বিপর্যয় ডেকে আনতে পারে বলে এলাকাবাসীর আশঙ্কা। এসিড পানির কারণে নানা রোগ বালাই দেখা দিতে পারে। তারা জানান, কিছু দিন আগে ব্যাটারি ফ্যাক্টরিসংলগ্ন একটি মাছ চাষের পুকুরে এসিডের পানি মিশে যায়। এতে পুকুরের সব মাছ মরে ভেসে ওঠে। বর্তমানের পুকুরের পানি দূষিত হওয়ায় এখন আর মাছ চাষ করা হয় না। তাই জলাবদ্ধতার কবল থেকে রক্ষা পেতে এলাকাবাসী নাসিক মেয়রের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter