গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন

কোনাবাড়িতে নিত্য দুর্ভোগ

  গাজীপুর প্রতিনিধি ২৩ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের কোনাবাড়ির আমবাগ, নসের মার্কেট, কালাইভিটা, সাকাশ্বর, বাঘিয়া ও মেঘলালসহ ঘনবসতিপূর্ণ কয়েকটি মহল্লায় প্রবেশের একটি মাত্র সড়ক। কোনাবাড়ি-আমবাগ-সাকাশ্বর নামে ওই সড়কটি দিয়ে লক্ষাধিক মানুষ চলাচল করে। এ সড়কে অবৈধ ব্যাটারিচালিত অটোরিকশা ও ইজিবাইকের দাপটে সৃষ্ট যানজট নিত্যদিন নাকাল এলাকাবাসী। এছাড়া কোনাবাড়ি থেকে আমবাগ সংযোগ স্থলে রয়েছে অর্ধশত বছরের পুরাতন জরাজীর্ণ একটি সেতু। হাজার হাজার গামেন্টর্স শ্রমিককে প্রতিদিন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে ওই সেতুটি অতিক্রম করতে হয়। ওই অঞ্চলে আরও কিছু সড়ক থাকলেও পানি নিষ্কাশনে সড়কের পাশে নেই কোনো নালা। যার ফলে অল্পবৃষ্টিতেই সড়কে পানি জমে থাকে। এলাকায় বেশ কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থাকলেও নেই কোনো খেলার মাঠ ও বিনোদন ব্যবস্থা। এলাকাটি শিল্পঅধ্যুষিত হওয়ায় খুব দ্রুত যত্রতত্র গড়ে উঠেছে অপরিপল্পিত বিভিন্ন অবকাঠামো এবং ঘরবাড়ি।

মঙ্গলবার এলাকাটি ঘুরে ও স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, ওই এলাকার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সড়ক হচ্ছে কোনাবাড়ি সাকাশ্বর সড়ক। এ সড়কের নছের মার্কেট পর্যন্ত সিটি কর্পোরেশনের ১০নং ওয়ার্ডের আওয়াতাধীন। সড়কটি আরসিসি ঢালাই করা হলেও পানি নিষ্কাশনের জন্য কোনো ড্রেন নির্মাণ করা হয়নি। যার কারণে কয়েকদিনের বৃষ্টিতে সড়কে পানি জমে গেছে। আরও কয়েকটি সড়কের কাজ করা হলেও কোনো ড্রেন করা হয়নি। সবচেয়ে খারাপ অবস্থা দেখা গেছে মধ্য আমবাগ থেকে কোনাবাড়ি নতুন বাজার যাওয়ার সড়কটি। সড়কের বিভিন্ন স্থানে পানি জমে আছে। কোনো কোনো স্থানে কাদায় একাকার অবস্থা।

স্থানীয়রা জানান, এলাকায় একটি বড় খাল রয়েছে। ড্রেনেজ ব্যবস্থা বা নালা নির্মাণ করে ওই খালে নামিয়ে দিলে এলাকায় আর জলাবদ্ধতার সমস্যা থাকবে না। এলাকাবাসীর স্বার্থে এটি কারা খুব জরুরি।

স্থানীয় ওয়ার্ড কাউন্সিলর খলিলুর রহমান বলেন, তার ওয়ার্ডের প্রধান সমস্যা হচ্ছে সড়কে পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থা না থাকা। তাই আগামীতে তার প্রধান কাজই হবে প্রতিটি রাস্তার সঙ্গে ড্রেন নির্মাণ করে তার মাধ্যমে পানি খালে নামিয়ে দেয়া।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×