শিগগিরই বিএনপির আন্দোলনের রূপরেখা : গয়েশ্বর
jugantor
শিগগিরই বিএনপির আন্দোলনের রূপরেখা : গয়েশ্বর

  যুগান্তর প্রতিবেদন  

১৪ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের রূপরেখা খুব শিগগিরই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, আমরা এখন ঐক্যের জন্য সংগ্রাম করছি। এরপর একটি লক্ষ্য আদায়ের জন্য ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন হবে। আওয়ামী লীগের ফ্যাসিবাদী চরিত্র সব বিরোধী রাজনৈতিক দলকে এককাতারে নিয়ে এসেছে। ফলে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা আর বেশি দূরে নয়। যে কোনো সময় তা জাতির সামনে উপস্থাপন করা হবে। সেই সঙ্গে আগামী দিনের আন্দোলনের রূপরেখা আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান তুলে ধরবেন। এ ব্যাপারে (আন্দোলনের রূপরেখা) আমাদের প্রস্তুতি শেষ প্রান্তে।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ‘গ্রহণযোগ্য নির্বাচন-সংকটের একমাত্র সমাধান’ শীর্ষক সভার আয়োজন করে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি। দলটির একাংশের সভাপতি আবদুল করীম আব্বাসীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন-বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা জহির উদ্দিন স্বপন, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাতীয় দলের অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা প্রমুখ।

গয়েশ্বর বলেন, জাতীয়তাবাদী শক্তির মধ্যে যখন দৃঢ় ঐক্য গড়ে উঠবে, তখনই পরাশক্তি বা ষড়যন্ত্রকারীরা দুর্বল হবে। আর জাতীয়তাবাদী শক্তি যখন খণ্ড-বিখণ্ড থাকে তখন সুবিধাবাদী শক্তি শক্তিশালী হবে, লুটপাট বাড়বে ও দুর্নীতি বাড়বে। বিরোধী রাজনৈতিক দলের শরিকদের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, অনেক দলের চলমান সংকট উত্তরণের পথে নানামুখী ভাবনা বা দিকনির্দেশনা থাকতে পারে। কিন্তু সরকারের যে ফ্যাসিবাদী চরিত্র, তাদের কর্মকাণ্ড খুব দ্রুত তাদেরকে একত্রিত করেছে। সবাই সবার ভাবনা ত্যাগ করে একভাবে একপথে চলতে চায়।

অলির এলডিপির শতাধিক নেতা আব্বাসীর দলে যোগদান : সভা শেষে কর্নেল (অব.) ড. অলি আহমদের নেতৃত্বাধীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) থেকে শতাধিক নেতা আবদুল করীম আব্বাসীর নেতৃত্বাধীন এলডিপিতে যোগ দেন। তারা বৃহস্পতিবার একযোগে পদত্যাগ করেছিলেন। এলডিপির একাংশের সভাপতি আবদুল করীম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের হাতে ফুল দিয়ে যোগদান করে তারা আগামী দিনের আন্দোলনে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এদের মধ্যে আছেন অলির এলডিপির সহ-সভাপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, উপদেষ্টা ফরিদ আমিন, যুগ্ম-মহাসচিব তমিজ উদ্দিন টিঠু, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মো. ইব্রাহিম রওনক, অঙ্গ-সংগঠন গণতান্ত্রিক যুবদলের সাইফুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

শিগগিরই বিএনপির আন্দোলনের রূপরেখা : গয়েশ্বর

 যুগান্তর প্রতিবেদন 
১৪ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার আন্দোলনের রূপরেখা খুব শিগগিরই প্রকাশ করা হবে বলে জানিয়েছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, আমরা এখন ঐক্যের জন্য সংগ্রাম করছি। এরপর একটি লক্ষ্য আদায়ের জন্য ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন হবে। আওয়ামী লীগের ফ্যাসিবাদী চরিত্র সব বিরোধী রাজনৈতিক দলকে এককাতারে নিয়ে এসেছে। ফলে জাতীয় ঐক্য প্রতিষ্ঠা আর বেশি দূরে নয়। যে কোনো সময় তা জাতির সামনে উপস্থাপন করা হবে। সেই সঙ্গে আগামী দিনের আন্দোলনের রূপরেখা আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান তুলে ধরবেন। এ ব্যাপারে (আন্দোলনের রূপরেখা) আমাদের প্রস্তুতি শেষ প্রান্তে।

শুক্রবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক আলোচনা সভায় তিনি এ কথা বলেন। ‘গ্রহণযোগ্য নির্বাচন-সংকটের একমাত্র সমাধান’ শীর্ষক সভার আয়োজন করে লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি-এলডিপি। দলটির একাংশের সভাপতি আবদুল করীম আব্বাসীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য দেন-বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতা জহির উদ্দিন স্বপন, আবু নাসের মুহাম্মদ রহমাতুল্লাহ, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাতীয় দলের অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা প্রমুখ।

গয়েশ্বর বলেন, জাতীয়তাবাদী শক্তির মধ্যে যখন দৃঢ় ঐক্য গড়ে উঠবে, তখনই পরাশক্তি বা ষড়যন্ত্রকারীরা দুর্বল হবে। আর জাতীয়তাবাদী শক্তি যখন খণ্ড-বিখণ্ড থাকে তখন সুবিধাবাদী শক্তি শক্তিশালী হবে, লুটপাট বাড়বে ও দুর্নীতি বাড়বে। বিরোধী রাজনৈতিক দলের শরিকদের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, অনেক দলের চলমান সংকট উত্তরণের পথে নানামুখী ভাবনা বা দিকনির্দেশনা থাকতে পারে। কিন্তু সরকারের যে ফ্যাসিবাদী চরিত্র, তাদের কর্মকাণ্ড খুব দ্রুত তাদেরকে একত্রিত করেছে। সবাই সবার ভাবনা ত্যাগ করে একভাবে একপথে চলতে চায়।

অলির এলডিপির শতাধিক নেতা আব্বাসীর দলে যোগদান : সভা শেষে কর্নেল (অব.) ড. অলি আহমদের নেতৃত্বাধীন লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) থেকে শতাধিক নেতা আবদুল করীম আব্বাসীর নেতৃত্বাধীন এলডিপিতে যোগ দেন। তারা বৃহস্পতিবার একযোগে পদত্যাগ করেছিলেন। এলডিপির একাংশের সভাপতি আবদুল করীম আব্বাসী ও মহাসচিব শাহাদাত হোসেন সেলিমের হাতে ফুল দিয়ে যোগদান করে তারা আগামী দিনের আন্দোলনে থাকার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। এদের মধ্যে আছেন অলির এলডিপির সহ-সভাপতি আবু জাফর সিদ্দিকী, উপদেষ্টা ফরিদ আমিন, যুগ্ম-মহাসচিব তমিজ উদ্দিন টিঠু, সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মো. ইব্রাহিম রওনক, অঙ্গ-সংগঠন গণতান্ত্রিক যুবদলের সাইফুল ইসলাম বাবু প্রমুখ।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন