মালয়েশিয়ায় সেরা শিক্ষার্থীর সম্মাননা পেলেন চট্টগ্রামের ওলিদ
jugantor
মালয়েশিয়ায় সেরা শিক্ষার্থীর সম্মাননা পেলেন চট্টগ্রামের ওলিদ

  মালয়েশিয়া প্রতিনিধি  

০৮ আগস্ট ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় সেরা শিক্ষার্থীর সম্মাননা পেলেন চট্টগ্রামের পাঁচলাইশের নাসির উদ্দিন চৌধুরীর ছেলে ওলিদ বিন নাসির। তিনি কভেন্ট্রি ইউনিভার্সিটি ইউকের সহযোগিতায় মালয়েশিয়ার ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে ২০১৮ সালের জানুয়ারি ও ২০২১ সালের ডিসেম্বর সময়কালে তথ্য প্রযুক্তিতে স্নাতকে সম্মাননা পেয়েছেন। কভেন্ট্রি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য লা ইম উইংয়ের কাছ থেকে ২৯ জুলাই সম্মাননা পুরস্কার গ্রহণ করেন তিনি। সর্বোচ্চ সিজিপিএ পাওয়া ১২ শিক্ষার্থীর মধ্যে প্রথম এ অনুষদে একজন বাংলাদেশি এ পুরস্কার পেলেন। অনুষদের সেরা শিক্ষার্থী নির্বাচিত হওয়ায় এইচআইএন গ্রুপের পক্ষ থেকে তিনি আরও একটি পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। এ গ্রুপের মালিক লু চিং উই এক হাজার রিঙ্গিতের চেক ও সম্মাননা তার হাতে তুলে দেন।

২০১৮ সালে ব্যাচেলর ইন ইনফরমেশন টেকনোলজি বিষয়ে ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে লেখাপড়া শুরু করেন ওলিদ। ২০২১ সালে ৮০ শিক্ষার্থীকে পেছনে ফেলে প্রথম পুরস্কার (ডায়মন্ড) জিতেছিলেন তিনি। ৩৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন পোস্টার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে (আরআইপিসি) প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন। ২০১৯ সালে প্রথম চালু করা ইভেন্টটির লক্ষ্য ছিল শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত বছরের প্রকল্প, থিসিস বা গবেষণাপত্র উপস্থাপন করা। ২০২১ সালের ৫ আগস্ট অনলাইনে ওলিদের গবেষণাপত্র জমা করার পর ২৮ আগস্ট জুরিবোর্ড তাকে প্রথম পুরস্কারে (ডায়মন্ড) ভূষিত করে।

মালয়েশিয়ায় সেরা শিক্ষার্থীর সম্মাননা পেলেন চট্টগ্রামের ওলিদ

 মালয়েশিয়া প্রতিনিধি 
০৮ আগস্ট ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

মালয়েশিয়ায় সেরা শিক্ষার্থীর সম্মাননা পেলেন চট্টগ্রামের পাঁচলাইশের নাসির উদ্দিন চৌধুরীর ছেলে ওলিদ বিন নাসির। তিনি কভেন্ট্রি ইউনিভার্সিটি ইউকের সহযোগিতায় মালয়েশিয়ার ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি থেকে ২০১৮ সালের জানুয়ারি ও ২০২১ সালের ডিসেম্বর সময়কালে তথ্য প্রযুক্তিতে স্নাতকে সম্মাননা পেয়েছেন। কভেন্ট্রি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য লা ইম উইংয়ের কাছ থেকে ২৯ জুলাই সম্মাননা পুরস্কার গ্রহণ করেন তিনি। সর্বোচ্চ সিজিপিএ পাওয়া ১২ শিক্ষার্থীর মধ্যে প্রথম এ অনুষদে একজন বাংলাদেশি এ পুরস্কার পেলেন। অনুষদের সেরা শিক্ষার্থী নির্বাচিত হওয়ায় এইচআইএন গ্রুপের পক্ষ থেকে তিনি আরও একটি পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন। এ গ্রুপের মালিক লু চিং উই এক হাজার রিঙ্গিতের চেক ও সম্মাননা তার হাতে তুলে দেন।

২০১৮ সালে ব্যাচেলর ইন ইনফরমেশন টেকনোলজি বিষয়ে ইন্টি ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটিতে লেখাপড়া শুরু করেন ওলিদ। ২০২১ সালে ৮০ শিক্ষার্থীকে পেছনে ফেলে প্রথম পুরস্কার (ডায়মন্ড) জিতেছিলেন তিনি। ৩৫টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমন্বয়ে অনুষ্ঠিত ফাইনাল ইয়ার প্রজেক্ট রিসার্চ অ্যান্ড ইনোভেশন পোস্টার প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে (আরআইপিসি) প্রথম পুরস্কার পেয়েছেন। ২০১৯ সালে প্রথম চালু করা ইভেন্টটির লক্ষ্য ছিল শিক্ষার্থীদের চূড়ান্ত বছরের প্রকল্প, থিসিস বা গবেষণাপত্র উপস্থাপন করা। ২০২১ সালের ৫ আগস্ট অনলাইনে ওলিদের গবেষণাপত্র জমা করার পর ২৮ আগস্ট জুরিবোর্ড তাকে প্রথম পুরস্কারে (ডায়মন্ড) ভূষিত করে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন