সিদ্ধিরগঞ্জে বিএনপি নেতাকে না পেয়ে ছেলেকে গ্রেফতার
jugantor
সিদ্ধিরগঞ্জে বিএনপি নেতাকে না পেয়ে ছেলেকে গ্রেফতার

  সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি  

০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবির ছোট ছেলে প্রীতমকে (২০) বিস্ফোরক আইন মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসাবে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেফতার প্রীতমকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিক। এর আগে বুধবার রাত ২টায় সিদ্ধিরগঞ্জের হীরাঝিল আবাসিক এলাকার অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবি জানান, রাত ২টায় হঠাৎ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা আমার বাসা ঘিরে ফেলে। এ সময় তারা বাসার ভেতরে ঢুকে আমাকে খুঁজতে শুরু করে। বাসায় তল্লাশি চালিয়ে সেখানে আমার কোনো সন্ধান না পেয়ে আমার ছোট ছেলে প্রীতমকে ধরে নিয়ে যায়। তিনি বলেন, প্রীতমের নামে কোনো মামলা নেই। আমাকে না পেয়ে আমার নিরীহ ছেলেকে ধরে নিয়ে গেছে পুলিশ। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান জানান, ৩০ নভেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মৌচাক এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক দেবাশিষ কুন্ডু বাদী হয়ে বিএনপি-জামায়াতের ৫৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ২ ডিসেম্বর বিস্ফোরক আইনে মামলা করেন। ওই মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসাবে মনিরুল ইসলাম রবির ছেলে প্রীতমকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। বুধবার দুপুরে তাকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

সিদ্ধিরগঞ্জে বিএনপি নেতাকে না পেয়ে ছেলেকে গ্রেফতার

 সিদ্ধিরগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি 
০৯ ডিসেম্বর ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবির ছোট ছেলে প্রীতমকে (২০) বিস্ফোরক আইন মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসাবে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দুপুরে গ্রেফতার প্রীতমকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান মানিক। এর আগে বুধবার রাত ২টায় সিদ্ধিরগঞ্জের হীরাঝিল আবাসিক এলাকার অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ।

এ বিষয়ে জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম রবি জানান, রাত ২টায় হঠাৎ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা আমার বাসা ঘিরে ফেলে। এ সময় তারা বাসার ভেতরে ঢুকে আমাকে খুঁজতে শুরু করে। বাসায় তল্লাশি চালিয়ে সেখানে আমার কোনো সন্ধান না পেয়ে আমার ছোট ছেলে প্রীতমকে ধরে নিয়ে যায়। তিনি বলেন, প্রীতমের নামে কোনো মামলা নেই। আমাকে না পেয়ে আমার নিরীহ ছেলেকে ধরে নিয়ে গেছে পুলিশ। সিদ্ধিরগঞ্জ থানা পুলিশের পরিদর্শক (তদন্ত) হাফিজুর রহমান জানান, ৩০ নভেম্বর সন্ধ্যায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের মৌচাক এলাকায় ককটেল বিস্ফোরণ ঘটনায় সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক দেবাশিষ কুন্ডু বাদী হয়ে বিএনপি-জামায়াতের ৫৬ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে ২ ডিসেম্বর বিস্ফোরক আইনে মামলা করেন। ওই মামলার সন্দেহভাজন আসামি হিসাবে মনিরুল ইসলাম রবির ছেলে প্রীতমকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে। বুধবার দুপুরে তাকে নারায়ণগঞ্জ আদালতে পাঠানো হয়েছে।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন