‘আমাদের চোখের পানি কেউ দেখে না’

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

মাহমুদউল্লাহ,

‘খারাপ খেললে ড্রেসিংরুমে আমাদের সবার মন খারাপ থাকে। কেউ আমাদের চোখের পানি দেখে না। কাউকে আমরা একথা বলি না।’ বৃহস্পতিবার ঢাকা টেস্ট জিতে দুই ম্যাচের সিরিজ ১-১ সমতায় শেষ করার পর একথা বললেন বাংলাদেশ দলের ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ।

সিলেট টেস্টে বাজেভাবে হারার পর মাহমুদউল্লাহ বলেছিলেন, ‘এভাবে টেস্টে খেলার কোনো মানে হয় না।’ দ্বিতীয় টেস্ট জিতে কি বলবেন? ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক বলেন, ‘প্রথম টেস্টের মতো খেললে অবশ্যই খেলার কোনো মানে হয় না। দ্বিতীয় টেস্টের কথা যদি বলি, এরকম মানসিকতা দেখাতে পারলে, ব্যাটিং-বোলিংয়ে এমন পারফরম্যান্স করতে পারলে অবশ্যই টেস্ট খেলার মানে হয়।’

প্রথম টেস্টে ধরাশায়ী হওয়ার পর দ্বিতীয় টেস্টে ভালো খেলে জেতাটাকে প্রাপ্তি মনে করছেন মাহমুদউল্লাহ। সংক্ষিপ্ত ফরম্যাটের ক্রিকেটে ভালো ব্যাট করলেও সাদা পোশাকে অনেকদিন ধরে রান পাচ্ছিলেন না তিনি। দ্বিতীয় টেস্টে সেঞ্চুরি করার পর এখন স্বস্তি পাচ্ছেন।

মাহমুদউল্লাহ বলেন, ‘কিছুটা স্বস্তি পাচ্ছি। শেষ পাঁচ টেস্টে আমার কোনো ফিফটি ছিল না। এ ফরম্যাটে লড়াই করছিলাম। ভালো লাগছে আমি কিছুটা অবদান রাখতে পেরেছি বলে। রান পেয়েছি। তবে আরও উন্নতি করতে হবে। ধারাবাহিক হতে হবে।’

ঢাকা টেস্টে স্পিন সহায়ক উইকেট পায়নি বাংলাদেশ। হোম কন্ডিশনের সুবিধা পেতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজে স্পিন সহায়ক উইকেট আশা করছেন মাহমুদউল্লাহ। তিনি বলেন, ‘অবশ্যই দুশ্চিন্তা (ঢাকার উইকেট নিয়ে) রয়েছে। আমরা সাধারণত স্পিন সহায়ক উইকেট করি। সেদিকেই হয়তো আমরা যাব।’

প্রায় দেড় মাসের ভারত সফর শেষে ওয়েস্ট ইন্ডিজ বাংলাদেশে এসেছে। উপমহাদেশের কন্ডিশনের সঙ্গে তারা মানিয়ে নেয়ার চেষ্টা করেছে। জিম্বাবুয়ের চেয়ে ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সিরিজ তাই চ্যালেঞ্জিং হবে বলে ধারণা মাহমুদউল্লাহর।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×