কতদিন পর এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে ক্রিকেট!

  মজুমদার নাজিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম ব্যুরো ১৬ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আজিজ,

চট্টগ্রামের এমএ আজিজ স্টেডিয়াম ক্রিকেটের ‘অপশনাল’ মাঠ। ঢাকার বাইরে দেশের প্রথম টেস্ট ভেন্যুর মর্যাদা পাওয়া এ স্টেডিয়ামে একসময় নিয়মিত বসত আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের আসর। কালের পরিক্রমায় যা এখন একরকম নির্বাসিতই বলা যায়। ফুটবলসহ অন্যান্য খেলা নিয়মিত হয়। বসে ক্রিকেটের ঘরোয়া লিগের আসরও। কিন্তু আন্তর্জাতিক ক্রিকেট যে আর মুখ তুলে তাকায় না।

অনেকদিন ধরেই এখানে অনুপস্থিত আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। এমএ আজিজের পর চট্টগ্রামের দ্বিতীয় ভেন্যু হিসেবে টেস্ট ও ওয়ানডে মর্যাদা পায় জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম। এমএ আজিজ হয় ক্রিকেটছাড়া। বড় আসরগুলো বসছে জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে। খুব বেশি প্রয়োজন না হলে ক্রিকেটের জন্য ডাক পড়ে না এমএ আজিজের। সুখবর হল, দীর্ঘদিন পর এমএ আজিজে বসতে যাচ্ছে ক্রিকেটের বড় আসর।

এখানে খেলতে নামছে টেস্ট খেলুড়ে দল। ২২ নভেম্বর জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে শুরু হচ্ছে বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ দুই ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্ট। এরই মধ্যে ক্যারিবিয়ানরা চট্টগ্রাম এসে পৌঁছেছে। টেস্টে মাঠে নামার আগে তারা বিসিবি একাদশের সঙ্গে খেলবে একটি দু’দিনের ম্যাচ। রোববার নগরীর এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে শুরু হবে গা গরমের এ ম্যাচ। এর মধ্যদিয়ে দীর্ঘদিন পর আবার ক্রিকেট উৎসব হতে চলেছে এ মাঠে। যদিও ম্যাচটি পুরোপুরি আন্তর্জাতিক মর্যাদার নয়, তবে টেস্ট পরাশক্তি ওয়েস্ট ইন্ডিজের সঙ্গে হওয়ায় এতে আন্তর্জাতিক ম্যাচের আমেজ থাকবে।

প্রস্তুতি ম্যাচের প্রস্তুতি প্রায় শেষ করে এনেছে বিসিবি। নিয়মিত ক্রিকেট না হওয়ায় মাঠ খেলার উপযোগী করে তুলতে ঘাম ঝরাতে হচ্ছে বিসিবি কর্তাদের। বৃষ্টিতে আউটফিল্ড ভরে যায় খানাখন্দে। সেসব ভরাট করতে হয়েছে। ধুয়েমুছে পরিষ্কার করতে হয়েছে গ্যালারি, ড্রেসিংরুম, হসপিটালিটি বক্স ও মিডিয়া বক্স।

বিসিবি’র চট্টগ্রাম ভেন্যু ম্যানেজার ফজলে বারী খান রুবেল বৃহস্পতিবার যুগান্তরকে বলেন, ‘বেশ কিছুদিন বৃষ্টিতে ভিজে মাঠ খারাপ হয়ে গিয়েছিল। গত কয়েক দিনে আমরা তা মোটামুটি ঠিক করে এনেছি। এখন মাঠের অবস্থা ভালো। খেলার উপযোগী হয়ে উঠেছে। তিনটি উইকেট এই মাঠে। দু’দিনের ম্যাচ তাই একটি উইকেটই ব্যবহার করা হবে। এজন্য মাঝের উইকেটটি প্রস্তুত করা হয়েছে। এখন ফিনিশিং চলছে।’

তিনি জানান, এমএ আজিজের মিডিয়া বক্স, ড্রেসিংরুম, হসপিটালিটি বক্সসহ ক্রিকেট অবকাঠামো জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের মতো উন্নতমানের নয়। তাই এখানে ক্রিকেট ম্যাচ আয়োজনে সীমাবদ্ধতা থাকে। এর মধ্যেই সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে যাতে প্রস্তুতি ম্যাচটি সুন্দরভাবে হতে পারে। চট্টগ্রাম নগরীর প্রাণকেন্দ্র কাজীর দেউড়ি এলাকায় নির্মিত এমএ আজিজ স্টেডিয়াম ২০০১ সালে ৮২তম আন্তর্জাতিক টেস্ট ভেন্যুর মর্যাদা পায়।

ঢাকার পর এটাই ছিল দেশের দ্বিতীয় টেস্ট ভেন্যু। ২০০৫ সালে বাংলাদেশ দলের প্রথম টেস্ট জয়টাও আসে এই ভেন্যুতেই। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ২২৬ রানের অবিস্মরণীয় সেই জয়ের মধ্যদিয়ে এমএ আজিজ স্টেডিয়াম বাংলাদেশের ক্রিকেট ইতিহাসে ঠাঁই করে নেয়। এরপরই জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামমুখী হয়ে পড়ে ক্রিকেট। এমএ আজিজে আন্তর্জাতিক ওয়ানডে ম্যাচও হয়েছে বেশ কয়েকটি। এখানে প্রথম ওডিআই হয় ১৯৮৮ সালে উইলস এশিয়া কাপে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানানোর আগ পর্যন্ত এমএ আজিজ স্টেডিয়ামে মোট আটটি টেস্ট ম্যাচ ও ১০টি ওয়ানডে অনুষ্ঠিত হয়। ২০০৫ সালের পর আর বড় কোনো আসর বসেনি। তবে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেলে। এছাড়া গত মাসে অনূর্ধ্ব-১৯ এশিয়া কাপের কয়েকটি ম্যাচ হয়েছে।

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ-২০১৮ ঢাকা

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×