থাকেন ভারতে খেলেন যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১২ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্যাডমিন্টন,

বাবা-মা’র সঙ্গে ভারতে থাকেন রুহি রাজু। কিন্তু ঢাকায় এসেছেন তিনি মার্কিন খেলোয়াড় হিসেবে। কীভাবে? কারণ তার জন্ম যুক্তরাষ্ট্রে। আর ভারত দ্বৈত নাগরিকত্ব দেয় না বলেই ভারতে থেকেও তাকে খেলতে হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে। এর চেয়ে কষ্টের আর কি হতে পারে। রুহির ভাষায়, ‘এত বছর ধরে ভারতে থাকছি। কিন্তু আমার জন্ম যুক্তরাষ্ট্রে হওয়ায় আমাকে খেলতে হচ্ছে ওই দেশের হয়ে। মনে কষ্ট।’

প্রদীপ রাজু জন্মসূত্রে ভারতীয়। তিনি বিয়ে করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্র প্রবাসী এক দম্পতির মেয়েকে। রুহি জন্মানোর সময় রাজুর স্ত্রীকে চলে যেতে হয় যুক্তরাষ্ট্রে। সেখানেই জন্ম নেয়ায় রুহি এখন মার্কিন নাগরিক। ভারতে সুচিত্রা ব্যাডমিন্টন একাডেমিতে অনুশীলন করেন রুহি। ২০১৬ সালে রিও অলিম্পিকে মহিলা এককে রুপা জেতা ভারতী পিভি সিন্ধু এই একাডেমির ট্রেইনার। ইন্দোনেশিয়ার জনাথন দাসুকি একাডেমির প্রধান কোচ। রুহির কথায়, ‘বাবা ১৯৯১-’৯২ সালে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিলেন। মা’ও ব্যাডমিন্টনের সঙ্গে জড়িত। ব্যাডমিন্টনই আমার আশা-ভরসা।’

২০১৫, ’১৬তে ভারতে শীর্ষ পাঁচে উঠেছিলেন। সেটা ঘরোয়া আসরে। আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে তাকে অংশ নিতে হয় যুক্তরাষ্ট্রের হয়ে। ২০১৮ সালে আর্জেন্টিনায় সিনিয়র টুর্নামেন্টে রুপা ও অনূর্ধ্ব-১৯ ওয়ার্ল্ড চাম্পিয়নশিপে ব্রোঞ্জ জিতেছিলেন রুহি। বর্তমানে বিশ্ব জুনিয়র র‌্যাংকিংয়ে ৪২তম স্থানে রয়েছেন তিনি। ঢাকায় আসার আগে ভারতে তিন মাস অনুশীলন করেছেন। হারিয়েছেন বাংলাদেশের র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষে থাকা এলিনা সুলতানাকে। ম্যাচ শেষে রুহি বলেন, ‘ভালো লাগছে প্রথম খেলায় জিতে। তিন মাস অনুশীলন করে এখানে এসেছি। বাবা আমাকে সব সময় গাইড করেন। পিভি সিন্ধুর কাছে প্রশিক্ষণ নিচ্ছি। সামনে আরও খেলা। দেখি কী হয়।’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×